বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

জানেন কেন মার্কিন নির্বাচনের ফল প্রকাশিত হতে অনেকটা দেরি হতে পারে?‌

জানেন কেন মার্কিন নির্বাচনের ফল প্রকাশিত হতে অনেকটা দেরি হতে পারে?‌

প্রথমত এবারে অসংখ্য ভোটার ভোট দিয়েছেন পোস্টাল ব্যালট বা মেইল ব্যালটের মাধ্যমে। সাধারণত মেইল ব্যালটের মাধ্যমে দেওয়া ভোট গুণতে অনেকটা বেশি সময় লাগে।

  • Share this:

মঙ্গলবার রাতেই হয়ত জানা যাবে না, কে হতে চলেছেন নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। না, তার মানে এই নয় যে কোনও কারচুপি হতে আরে। এর পিছনে রয়েছে অন্য কারণ। রবিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান, ‘‌এটা খুবই দুঃখজনক যে রবিবার রাতে আমরা নির্বাচনের রাতে আমরা ভোটের ফলাফল জানতে পারব না। এটা খুবই সমস্যার যে ব্যালট বাক্সে পরার অনেকক্ষণ পর সেগুলি গোনা যাবে। একবার দেখে নেওয়া যাক কেন ভোটের ফল প্রকাশে দেরি হতে পারে।

প্রথমত এবারে অসংখ্য ভোটার ভোট দিয়েছেন পোস্টাল ব্যালট বা মেইল ব্যালটের মাধ্যমে। সাধারণত মেইল ব্যালটের মাধ্যমে দেওয়া ভোট গুণতে অনেকটা বেশি সময় লাগে। পোস্টাল ব্যালটের খাম খুলে, ভুল ঠিক বিচার করে, সেগুলিকে আলাদা করতে হবে। তারপর স্ক্যানারে দিয়ে ভোট গোনা হবে। যদিও সেই গোটা প্রক্রিয়ায় খুব বেশি সময় লাগে না। কিন্তু এবারে বিপুল সংখ্যায় মানুষ পোস্টাল ব্যালটে ভোট দিয়েছেন। ফলে সেটা গুণতে অনেকটা সময় লাগতে পারে। এর পাশাপাশি, ভোটের দিন যাঁরা এসে ভোট দেবেন তাঁদেরও ভোট গুণতে সময়টা আরও বেশি লাগবে। সব মিলিয়ে এই প্রক্রিয়ায় অনেকটা সময় লাগতে পারে। তিনটি এলাকা, মিশিগান, পেনসিলভেনিয়া আর উইসকনসিন এই তিনটি প্রদেশে নতুন করে এই পদ্ধতি চালু হচ্ছে বলে সময়টা আরও বেশি লাগতে পারে।

কিন্তু ইতিহাসে এমন কোনও দিন হয়নি যেখানে সমস্ত ভোট গোনার পর একরাতের মধ্যে নতুন প্রেসিডেন্টের নাম ঘোষিত হয়ে গিয়েছে। কারণ, এভাবে এত ব্যালট গোনা একদিনের মধ্যে সম্ভব নয়। মোটামুটি ট্রেন্ড দেখেই বিভিন্ন নিউজ এজেন্সি ঘোষণা করে কারা জয় পেলেন। তিনটি প্রদেশ রয়েছে, যেগুলিতে গোনার জন্য অনেক বেশি সময় লাগতে পারে। কিন্তু দুটি দল দুভাবে সাধারণ মানুষকে ভোট দেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছেন। সেই কারণে পোস্টাল ব্যালটের ক্ষেত্রে দেখা যেতে পারে ডেমোক্র‌্যাটদের প্রাধান্য আর সাধারণ নির্বাচনের ভোটের ক্ষেত্রে দেখা যেতে পারে রিপাবলিকানদের প্রাধান্য। কিন্তু তাও, এবারে ভোট গুণতে যে অনেকটা দেরি হতে পারে তা একাধিক প্রদেশের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। তার অন্যতম কারণ পোস্টাল ব্যালট। তার মধ্যে রয়েছে ফ্লোরিডা, মিশিগান, পেনসিলভেনিয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ প্রদেশ। যেগুলিতে ভোট গোনা শেষ না হলে বলা যাবে না আসলে কে এবার হোয়াইট হাউজে বসতে চলেছেন। সেই কারণে এইগুলির ফলের দিকে তাকিয়ে থাকতেই হবে।

গতকাল পর্যন্ত দেখা গিয়েছে, পোস্টাল ব্যালটের সংখ্যা ক্রমে বাড়ছে একাধিক প্রদেশে। ২০১৬ সালের মোট ভোটের থেকে এবারে পোস্টাল ব্যালটেই বেশিরভাগ ভোট পড়ে গিয়েছে, এমন প্রদেশও আছে। ফলে করোনা পরিস্থিতিতে ভোটের ফলাফল জানতে যে অনেকটা সময় লাগবে, সেটা আর নতুন করে বলতে হবে না।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: November 2, 2020, 4:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर