• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • WHY DO ANIMALS HELP EACH OTHER SCIENTISTS DECODE ALTRUISM BY STUDYING THEIR BEHAVIOUR TC AKD

মানুষের থেকে বেশি মানবিক জন্তুরা, কেন? রহস্য উন্মোচন বিজ্ঞানীদের

সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা বুঝতে পেরেছেন যে কেন জন্তুরা একে অপরকে সাহায্য করে, আর সেটা খুঁজতে গিয়েই উঠে এসেছে এই শব্দ।

সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা বুঝতে পেরেছেন যে কেন জন্তুরা একে অপরকে সাহায্য করে, আর সেটা খুঁজতে গিয়েই উঠে এসেছে এই শব্দ।

  • Share this:

অলট্রুইজম শব্দটার তাৎপর্য অত্যন্ত গভীর। অন্যের ভালো থাকা এবং তাকে ভালো রাখার জন্য যখন কেউ এগিয়ে আসে তাকেই বলে অলট্রুইজম। নিজের ভালো, মন্দ বিচার না করে যখন কেউ অন্যের স্বার্থ দেখে তখনই এই শব্দের সঠিক মানে বোঝা যায়।

হঠাৎ এই শব্দ নিয়ে কেন আলোচনা? কারণ সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা বুঝতে পেরেছেন যে কেন জন্তুরা একে অপরকে সাহায্য করে, আর সেটা খুঁজতে গিয়েই উঠে এসেছে এই শব্দ। ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অব বেঙ্গালুরুর সেন্টার ফর ইকোলজিকাল সায়েন্স থেকে রাঘবেন্দ্র গরগকর এই বিষয়টি নিয়ে লিখেছেন। কেন জন্তুরা পরস্পরের প্রতি সহনশীল- সেটা বিজ্ঞান বিশ্লেষণ করে দিয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

কী ভাবে বিজ্ঞান আর বিজ্ঞানীরা এই রহস্য ভেদ করলেন সেটা বুঝে নেওয়া যাক এ বার।

১৮৯২ সালে জন্ম গ্রহণ করেছিলেন জন বারডন স্যানডারসন হ্যালডেন। প্রজনন তত্ত্ব বা জেনেটিক্স নিয়ে রচিত একটি বইয়ে তিনি জ্ঞাতি বা আত্মীয় বেছে নেওয়ার তত্ত্ব আলোচনা করেন। সেখানে তিনি বলেন যে অলট্রুইজম একটি জিন নির্ভর ব্যাপার, যা জন্তুদের ব্যবহারের উপর তীব্র প্রভাব ফেলে।

আত্মীয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে হ্যালডেনের এই অলট্রুইজম শব্দটি বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তিনি বলছেন যদি তাঁর দুই ভাই একসঙ্গে ডুবে যায় তা হলে তিনি নিজের প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে তাঁদের বাঁচাবেন। তবে যদি একজন ডোবে, তা হলে হয়তো তিনি এই সিদ্ধান্ত নেবেন না।

জেনেটিক্সের বিবর্তনের ক্ষেত্রে অলট্রুইজমের ভূমিকা নিয়ে ১৯৬৪ সালে উইলিয়াম ডোনাল্ড হ্যামিলটন একটি তত্ত্ব খাড়া করেন। উনি ইনক্লুসিভ ফিটনেস বলে একটি শব্দ ব্যবহার করেন। যার অর্থ হল ফিটনেস আমাদের জিনের মধ্যে সঞ্চিত থাকে যা এক প্রজাতি থেকে আরেক প্রজাতিতে ছড়িয়ে যায়। একজন আত্মীয় আরেকজনকে এই ব্যাপারে আগ্রহী করে তোলে। একে বলা হচ্ছে হ্যামিলটন রুল। যা বলছে এই ইনক্লুসিভ ফিটনেস জিনের মধ্যে থেকেই অলট্রুইজম গড়ে তোলে।

জেরাল্ড এস উইলকিনসন যিনি ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক, উনি কোস্টা রিকার বাদুড়দের উপরে একটি পরীক্ষা করেছিলেন। তিনি লক্ষ্য করে দেখেছেন যে যখন খাবার ভাগ করে খাওয়ার পরিস্থিতি আসে, বাদুড়রা তাদের সঙ্গেই খাবার ভাগ করে নিচ্ছে যারা অতীতে তাদের সাহায্য করেছে।

এই মুহূর্তে অলট্রুইজম কী ভাবে পাখিদের উপরে, বিশেষ করে কাকেদের উপরে কাজ করে সেই নিয়ে পরীক্ষা চলছে।

Written By: Doyel

Published by:Arka Deb
First published: