আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন থেকে ভিন্ন রূপে ধরা দিয়েছে পৃথিবী! ছবি শেয়ার করল NASA!

আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন থেকে ভিন্ন রূপে ধরা দিয়েছে পৃথিবী! ছবি শেয়ার করল NASA!

আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন থেকে ভিন্ন রূপে ধরা দিয়েছে পৃথিবী! ছবি শেয়ার করল NASA!

আন্তার্জতিক স্পেস সেন্টার থেকে পৃথিবী সত্যিই যেন এক নৈসর্গিক রূপ নিয়ে হাজির হয়েছে।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: দিন কয়েক আগে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে পৌঁছেছেন রাশিয়া ও আমেরিকার তিন মহাকাশচারী। সোয়ুজ MS- ১৮ স্পেস ক্র্যাফ্টে করে স্পেস স্টেশনে পৌঁছান তাঁরা। ইতিমধ্যেই সাড়া ফেলে দিয়েছে সেই খবর। এবার প্রকাশ্যে এল পৃথিবীর নানা প্রান্তের ছবি। আন্তার্জতিক স্পেস সেন্টার থেকে পৃথিবী সত্যিই যেন এক নৈসর্গিক রূপ নিয়ে হাজির হয়েছে। সম্প্রতি সেই সমস্ত ছবি শেয়ার করল আমেরিকার মহাকাশ সংস্থা NASA।

মাদাগাস্কারের বোম্বেটকা বে। গত বৃহস্পতিবার এই ছবিটি শেয়ার করেছে মার্কিন মহাকাশ সংস্থা NASA। ইতিমধ্যেই ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ছবিটি। ছবি সৌজন্য: NASA-র Instagram পেইজ।

ছবিটি মোরিটানিয়ার (Mauritania) রিচ্যাট স্ট্রাকচার প্রান্তের (Richat Structure)। আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন থেকে একদম ভিন্ন ভাবে ধরা দিয়েছে এই ছবি। ছবিটি শেয়ার করার পর NASA-র ক্যাপশন, বিস্তীর্ণ প্রান্তর জুড়ে জলাভূমি, স্থলভাগ, তুষারাবৃত এলাকা। এই সব মিলিয়েই জীবনের সঞ্চার। মহাকাশ হোক বা মাটি। এক অদ্ভুত বৈচিত্র্যের মধ্য দিয়ে এই ছোট্ট গ্রহে আমরা সবাই একত্রিত হয়ে বেঁচে রয়েছি। ছবি সৌজন্য: NASA-র Instagram পেইজ।

এই ছবিটিতে ইতিমধ্যেই লক্ষ লক্ষ লাইক ও কমেন্ট পড়েছে। আসলে দক্ষিণ ফ্লোরিডার এভারগ্লেডসের ছবি এটি। প্রসঙ্গত, আমেরিকার ফ্লোরিডায় ১.৫ মিলিয়ন একর জায়গাজুড়ে রয়েছে এই জাতীয় উদ্যান। ধীরগতির নদীর পাশাপাশি বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে রয়েছে ঘাস আর বনভূমি। নানা প্রজাতির বন্যপ্রাণীর বাস এখানে। তবে NASA-র শেয়ার করা ছবিতে আরও সুন্দর হয়ে উঠেছে পৃথিবীর এই প্রান্তটি। ছবি সৌজন্য: NASA-র Instagram পেইজ।

সামনেই আর্থ ডে। এই বিশেষ দিনটিকে সাড়ম্বরে উদযাপনের জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছে NASA। পাশাপাশি একটি বার্তা দিয়েছে আমেরিকার এই মহাকাশ সংস্থা। NASA-র তরফে জানানো হয়েছে, আর্থ ডে-র কথা মাথায় রেখে উৎসাহীরা পৃথিবীর নানা প্রান্তের ছবি শেয়ার করতে পারেন। কোনও ছবি নির্বাচিত হলে, তা NASA-র তরফে শেয়ার করা হতে পারে। উপরের ছবিটি দেখে মনে হয়, যেন একটি বিস্তীর্ণ এলাকা বরফে ঢাকা রয়েছে। আসলে এটি ইউরোপের নাইপার নদী (Dnieper River)। ছবি সৌজন্য: NASA-র Instagram পেইজ।

Published by:Pooja Basu
First published:

লেটেস্ট খবর