সাপ ভর্তি জলে পড়ে গেলেন এক ব্যক্তি, তারপর যা হল ছবি Viral

সাপ ভর্তি জলে পড়ে গেলেন এক ব্যক্তি, তারপর যা হল ছবি Viral
Photo- File

এ ছবি দেখেছেন আগে?

  • Share this:

#নয়াদিল্লি:  বিভিন্ন সময়ে মানুষ রেগে গিয়ে নিজেদের পরিস্থিতি বলতে গিয়ে বলেন এ যেন জঙ্গলে আছি ৷  কিন্তু জঙ্গলের নিয়ম আলাদা ৷ সেখানে পশুদের মধ্যেও মমত্ববোধ থাকে , বিপদে থাকাদের তারাও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় ৷ এর আগেও বিভিন্ন সময়ে বিপদে থাকা মানুষদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে জঙ্গলের পশুরা ৷  তবে এবার যে ঘটনা সামনে এসেছে তাতে শিউড়ে উঠতে হয় ৷

এবার যে ঘটনা সামনে এসেছে তা বোর্নিওর ৷ বোর্নিওর একটি গভীর অভয়ারন্যে ওরাংওটাংয়ের কীর্তি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ৷ আর সকলেই কুর্নিশ করছে তাকে ৷ এই গভীর জঙ্গলে ঘুরতে ঘুরতে হঠাৎই এক ব্যক্তি জলে পড়ে যান ৷ আর জলও যেসে নয় , একেবারে গাদা গাদা সাপভর্তি জল ৷ কী হবে এবার এই সব যখন ভাবছেন তখনই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় এক ওরাংওটাং ৷ না কোনও মিথ্যে গল্প বা মজার কোনও কিছু নয় ৷ ভয়ার্ত প্রাণকে সাহায্যের হাত এগিয়ে দেয় ওরাংওটাংটি ৷ এই ছবিটি অনিল প্রভাকর নামের এক ব্যক্তি ক্লিক করেছেন ৷

 
View this post on Instagram
 

Let me help you? : Once Humanity dying in Mankind, sometime animals are guiding us back to our basics. @wwf @wildlife_conservation_official @wild_borneo @orang.hutan @oranghutancamp @borneo.nature @borneowildlifecare @bosfoundation @natgeoindonesia @natgeoimagecollection @natgeo @natgeoyourshot @canon.indonesia @balikpapan_city @balikpapan_landscapers #borneo #borneowildlife #oranghutan #saveorangutanindonesia #oranghutankalimantan #wildlifephotography #wildlifeconservation #animalsofborneo #BOSF #apes #balikpapan #wildlifephotographer #borneo #wildlife #balikpapanku #natgeo

A post shared by Reminiscence Photography (@anil_t_prabhakar) on

যে ব্যক্তি এই ছবি ক্লিক করেছেন তিনি অনিল টি প্রভাকর ৷ তাঁর সোশ্যাল হ্যান্ডেল তাঁকে ফটোগ্রাফার, রাইটার, আর্ট লাভিং ফেলো বলে বর্ণনা করা হয়েছে ৷ কী ভাবে এই ছবি পেলেন তা জানাতে গিয়ে অনিল জানিয়েছেন, ‘বনের ওই অংশে সাপ পাওয়া যায় এই খবর ছিল ৷ এই সাপ সরাতেই ওই ব্যক্তি গিয়েছিলেন ৷ তারপর জলে পড়ে যেতেই ওরাংওটাং তাঁকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় ৷’ তিনি আরও জানিয়েছেন তাঁর হাতে ক্যামেরা ছিল এত সংবেদনশীল মুহূর্ত দেখে তিনি তা ক্লিক করে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন ৷

আরও পড়ুন - #U19WC: বিশ্বকাপ ফাইনালে বাঙালি বোলারদের দাপট, ১৭৭ রানে গুটিয়ে গেল ভারত

প্রভাকর জানিয়েছেন গোটা ঘটনাটি তিন -চার মিনিটের ছিল ৷ এই মুহূর্ত চোখের সামনে দেখতে পেয়ে নিজেকে ধন্য মনে করেছেন প্রভাকর ৷

First published: February 9, 2020, 5:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर