• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • LAC আসার পথে ভারতের ভয়ে হাউহাউ করে কাঁদছে চিনা ফৌজ! ভাইরাল ভিডিওতে চাঞ্চল্য

LAC আসার পথে ভারতের ভয়ে হাউহাউ করে কাঁদছে চিনা ফৌজ! ভাইরাল ভিডিওতে চাঞ্চল্য

সীমান্ত পাহারার দায়িত্ব পড়তেই ভারতের ভয়ে হাউ হাউ করে কাঁদতে কাঁদতে ডিউটিতে যাচ্ছে লাল ফৌজ ! সামনে আসা চিন সেনার এক ভাইরাল ভিডিও নিয়ে এমনই ব্যাখা দিয়েছে তাইওয়ানের এক সংবাদমাধ্যম ৷

সীমান্ত পাহারার দায়িত্ব পড়তেই ভারতের ভয়ে হাউ হাউ করে কাঁদতে কাঁদতে ডিউটিতে যাচ্ছে লাল ফৌজ ! সামনে আসা চিন সেনার এক ভাইরাল ভিডিও নিয়ে এমনই ব্যাখা দিয়েছে তাইওয়ানের এক সংবাদমাধ্যম ৷

সীমান্ত পাহারার দায়িত্ব পড়তেই ভারতের ভয়ে হাউ হাউ করে কাঁদতে কাঁদতে ডিউটিতে যাচ্ছে লাল ফৌজ ! সামনে আসা চিন সেনার এক ভাইরাল ভিডিও নিয়ে এমনই ব্যাখা দিয়েছে তাইওয়ানের এক সংবাদমাধ্যম ৷

  • Share this:

    #তাইপেই:ভারত-চিন উত্তেজনায় নয়া মাত্রা জুড়ল এক ভাইরাল ভিডিও ৷ সীমান্ত পাহারার দায়িত্ব পড়তেই ভারতের ভয়ে হাউ হাউ করে কাঁদতে কাঁদতে ডিউটিতে যাচ্ছে লাল ফৌজ ! সামনে আসা চিন সেনার এক ভাইরাল ভিডিও নিয়ে এমনই ব্যাখ্যা দিয়েছে তাইওয়ানের এক সংবাদমাধ্যম৷ এই ভিডিও নিয়েই সংঘাতের আবহে নয়া অস্বস্তিতে বেজিং ৷

    ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, বাসে করে যেতে যেতে চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মির বেশ কয়েকজন সদস্য প্রবল কান্নাকাটি করছেন ৷ সেসময় বাসে 'গ্রিন ফ্লাওয়ার্স ইন দা আর্মি' বলে চিনা সেনায় একটি বহুল প্রচলিত গান গাওয়া হচ্ছিল৷ তাইওয়ানের একাধিক সংবাদমাধ্যম ভিডিওটি উদ্ধৃত করে লিখেছে, LAC-তে যাওয়ার নাম শুনেই ভারতীয় সেনার ভয়ে কাঁদতে শুরু করেছে পিপলস লিবারেশন আর্মির ওই সদস্যরা ৷

    এমন দাবির পাল্টা তড়িঘড়ি মাঠে নেমে বেজিংয়ের দাবি ভিডিওটির ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে৷ চিনা কমিউনিস্ট পার্টির মুখপত্র গ্লোবাল টাইমসে দাবি করা হয়েছে, আবেগের ভাষাকে ভুলভাবে প্রচার করা হচ্ছে ৷ প্রিয়জনকে বিদায় জানিয়ে দেশের হয়ে দায়িত্ব পালনে যাওয়ার পথে বাহিনীতে প্রচলিত ওই গান গাইছিলেন সেনারা ৷ গানের আবেগে ভেসে গিয়েই তাঁদের চোখে জল এসেছে৷ তার সঙ্গে ভারতীয় সেনাকে ভয় পাওয়ার কোনও সম্পর্ক নেই ৷

    তাইওয়ানের সংবাদমাধ্যম এই দাবি উড়িয়ে বলেছে, সেনারা ভারতের ভয়ে এতটাই ভীত যে গানের কথাগুলি ভাল করে উচ্চারণও করতে পারছিলেন না ৷ ভয়ে কাঁদতে কাঁদতে গলার আওয়াজ হারিয়ে গিয়েছে তাঁদের৷ গত সপ্তাহে পূর্ব চিনের আনহুই প্রদেশের একটি স্থানীয় নেটওয়ার্কে এই ভিডিয়োটি প্রথম প্রকাশিত হয়। তারপরই দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে এই ভিডিও ৷

    ফৌজের এমন কান্নাকাটিকে রীতিমতো ব্যঙ্গ করেছে বিভিন্ন তাইনিজ সংবাদমাধ্যম৷ উল্লেখ্য, এই তরজায় ভিডিওটিকে কখনওই ভুয়ো বলে দাবি করেনি চিন৷ বরং ভুল ব্যাখ্যাকে আঁকড়ে যুক্তি খাড়া করেছে বেজিং ৷
    Published by:Elina Datta
    First published: