আজব ট্রেন, যাত্রী মানুষের সঙ্গে ছাগল-শুয়োরের দল! ভাইরাল ভিডিও চমকে দিয়েছে বিশ্বকে

আজব ট্রেন, যাত্রী মানুষের সঙ্গে ছাগল-শুয়োরের দল! ভাইরাল ভিডিও চমকে দিয়েছে বিশ্বকে

একটি ট্রেন, তার বসার আসনের মাঝখানে সারি দিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে এক দল ছাগল, ভেড়া আর শুয়োর। তাদের দেখে যাত্রীদের কেউই বিন্দুমাত্র বিচলিত হয়নি, যাত্রীদের হাবভাব দেখে মনে হচ্ছে, এ যেন নিত্যকার ঘটনা!

একটি ট্রেন, তার বসার আসনের মাঝখানে সারি দিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে এক দল ছাগল, ভেড়া আর শুয়োর। তাদের দেখে যাত্রীদের কেউই বিন্দুমাত্র বিচলিত হয়নি, যাত্রীদের হাবভাব দেখে মনে হচ্ছে, এ যেন নিত্যকার ঘটনা!

  • Share this:

#বেজিং: তৃতীয় বিশ্বের দেশ, যেখানে মানুষ নিজেই ন্যূনতম পরিষেবা পায় না, সেখানে পশুর সঙ্গে একই গাড়িতে সফর করার উদাহরণ বড় কম নয়। পশু পরিবহনের জন্য ট্রেনের আলাদা কামরা থাকলেও দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে আইন ফাঁকি দিয়ে একই কামরায় প্রিয় পোষ্যকে নিয়ে যাওয়ার  ঘটনাও অতীতে প্রকাশ্যে এসেছে। কিন্তু সম্প্রতি যে ভিডিও ভাইরাল হল, তাতে বলতেই হয় যে মানুষ আর পশুর একত্র সফরের নিরিখে বিশ্বের যে কোনও দেশকে টেক্কা দিয়েছে চিন!

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট সংবাদমাধ্যমের তরফে সম্প্রতি এই খবর এবং তার ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বে। জানা গিয়েছে, চিনের সিজুয়ান প্রদেশে নজরে এসেছে এই অবাক করে দেওয়ার মতো দৃশ্য। পাক্সিয়ং থেকে পানজিহুয়াতে যাচ্ছিল একটি ট্রেন, তার বসার আসনের মাঝখানে সারি দিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে এক দল ছাগল, ভেড়া আর শুয়োর। তাদের দেখে যাত্রীদের কেউই বিন্দুমাত্র বিচলিত হয়নি, যাত্রীদের হাবভাব দেখে মনে হচ্ছে,  এ যেন নিত্যকার ঘটনা!

এই প্রসঙ্গে একটা কথা উল্লেখ না করলেই নয়। চিনের এই ট্রেনটির কিছু বিশেষত্ব আছে। এটি নিতান্ত এক যাত্রীবাহী ট্রেন নয়, মূলত বাজারে কৃষকদের শাকসবজি নিয়ে যাওয়ার জন্যই ট্রেনটি চালু করা হয়েছে প্রশাসনের তরফে। গরিব চাষিরা যাতে সহজেই নিজেদের পণ্য নিয়ে যেতে পারেন বাজারে, সেই কথা মাথায় রেখে এই ট্রেনের টিকিটের দামও খুবই কম ধার্য করা হয়েছে- মাত্র ২ ইউয়ান! তবে চাষিরা এই ট্রেনে শুধুই পণ্য বাজারে নিয়ে যান না, একই সঙ্গে যাত্রাপথে ট্রেনের কামরার মধ্যেই তাঁরা শাকসবজি বিক্রিও করে থাকেন!

এই তথ্য একটা ব্যাপার স্পষ্ট করে দেয়- এই পশুগুলোকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বাজারের কসাইখানায় বিক্রি করে দেওয়ার জন্য! তবে নিয়মিত যে এই ট্রেনে এই ভাবে পশু নিয়ে যাওয়া হয় না বিক্রি করার জন্য, সেটা স্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করতে ভোলেনি সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট। সে কারণেই ঘটনা এবং তার ভিডিও চাঞ্চল্য ফেলেছে বিশ্বে। সোশ্যাল মিডিয়া ইউজাররা এই ভিডিও দেখে নানা রকম মন্তব্য করতেও ছাড়েননি। অনেকে মজা করে লিখেছেন, পশু পুষতে চাইলে এই ট্রেনে সফর করা উচিত! অনেকের আবার দাবি- নিশ্চয়ই দুর্গন্ধে ওই ট্রেনের কামরায় টেঁকা যাচ্ছিল না!

Published by:Rukmini Mazumder
First published: