• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • চিড়িয়াখানায় নেকড়ের খাঁচায় কুকুর, চোখ কপালে উঠল দর্শকদের! আপনিও দেখুন...

চিড়িয়াখানায় নেকড়ের খাঁচায় কুকুর, চোখ কপালে উঠল দর্শকদের! আপনিও দেখুন...

চিনের চিড়িয়াখানায় নেকড়ের খাঁচায় কুকুর; চোখ কপালে উঠেছে আগত দর্শকদের!

চিনের চিড়িয়াখানায় নেকড়ের খাঁচায় কুকুর; চোখ কপালে উঠেছে আগত দর্শকদের!

নেকড়ের খাঁচার মধ্যে চুপটি করে বসে একটি রটওয়েলার (Rottweiler) প্রজাতির এক কুকুর।

  • Share this:
#বেজিং: চিড়িয়াখানায় গিয়ে অনেকেরই নেকড়ে দেখার সাধ রয়েছে। তবে চিনের হুবেই (Hubei) প্রদেশের জিয়াংউশান (Xiangwushan) চিড়িয়াখানায় যা ঘটল, তাতে চোখ কপালে উঠেছে আগত দর্শকদের। প্রতি দিনের মতো টিকিট কেটে সবাই চিড়িয়াখানার ভিতরে ঢুকেছিলেন। বাঘ, সিংহ দেখার পাশাপাশি অনেকেই নেকড়ের খাঁচার সামনে ভিড় জমান। কিন্তু এ কী! নেকড়ের খাঁচার মধ্যে চুপটি করে বসে একটি রটওয়েলার (Rottweiler) প্রজাতির এক কুকুর। বিষয়টি নজরে আসার পরই রীতিমতো বিস্ময় প্রকাশ করেছেন দর্শকরা। নেকড়ের খাঁচায় কুকুর এল কী করে? জু (Xu) নামের এক স্থানীয় বাসিন্দা ঘুরতে এসেছিলেন। ঘটনাটি প্রথমে তাঁর নজরে আসে। স্থানীয় এক সংবাদ মাধ্যমকে তিনি জানান, নেকড়ের জায়গায় খাঁচার মধ্যে কুকুর দেখে খানিকটা চমকে গিয়েছিলেন। পরে এ নিয়ে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন তিনি। চিড়িয়াখানার তরফে জানানো হয়, এর আগে এই খাঁচার মধ্যে একটি নেকড়ে থাকত। কিন্তু বয়সজনিত কারণে মৃত্যু হয় তার। তা বলে কুকুর রাখার কারণ কী? না, সে নিয়ে কোনও সদুত্তর মেলেনি। এই বিষয়ে চিড়িয়াখানার এক কর্মীর কাছ থেকে জানতে চাওয়া হলে, তিনিও ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে উত্তর দেন। কিন্তু সরাসরি কোনও কারণ জানা যায়নি। এই কর্মী জানান, খাঁচার মধ্যে বন্দী থাকা কুকুরটি সামনের পার্কেই থাকে। তবে কয়েক দিনের জন্য তাঁকে খাঁচার মধ্যে রাখা হয়েছে। কিন্তু নেকড়ের খাঁচায় কেন? না, সেই খবর জানা যায়নি। <iframe width="560" height="315" src="https://www.youtube.com/embed/JxLkLiUGC5U" frameborder="0" allow="accelerometer; autoplay; clipboard-write; encrypted-media; gyroscope; picture-in-picture" allowfullscreen></iframe> ইতিমধ্যেই ব্যাপক মাত্রায় ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি। YouTube-এ প্রায় হাজার বারের বেশি দেখা হয়েছে এই ভিডিও। এই রকম অদ্ভুত ঘটনায় চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের কড়া সমালোচনা করেছে নেটিজেনদের একাংশ। ওই চিড়িয়াখানায় পশুদের কতটা যত্ন নেওয়া হয়, তা নিয়েও নানা প্রশ্ন উঠেছে। কমেন্ট বক্সে প্রায় প্রত্যেকের আবেদন, বেচারি কুকুরটিকে যেন খাঁচা থেকে মুক্তি দেওয়া হয়। এই ধরনের কাজ নির্বুদ্ধিতা ছাড়া আর কিছু নয়। অনেকের কথায়, কুকুরকে নেকড়ে হিসেবে চালাতে চেয়েছিল চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এখন সব রহস্য ফাঁস হয়ে গিয়েছে। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই যাবতীয় ব্যবস্থা নিয়েছে হুবেই প্রদেশের বনদফতর। খাঁচা থেকে কুকুরটিকে সরানোর কথাও বলা হয়েছে। যদি নেকড়ে না থাকে, তাহলে যেন তড়িঘড়ি চিড়িয়াখানার ওই বিভাগটি বন্ধ করে দেওয়া হয়, সেই কথাও জানানো হয়েছে। তবে এই ধরনের ঘটনা প্রথমবার নয়। এর আগে ইজিপ্টের এক চিড়িয়াখানায় একটি গাধার গায়ে সাদা, কালো দাগ দিয়ে জেব্রা সাজানো হয়েছিল। ২০১৯ সালে স্পেনের ক্যাডিজের একটি বিয়ে বাড়িতে দু'টি গাধাকে একইভাবে সাদা, কালো দাগ দিয়ে জেব্রা সাজানো হয়েছিল। এ নিয়ে পরের দিকে ব্যাপক সমালোচনা হয়েছিল। ভিডিওগুলি ভাইরাল হওয়ার পাশাপাশি মিমের ভিড়ে ঢেকেছিল সোশ্যাল মিডিয়া।
First published: