চৌকো নয়, গোলও নয়; আয়তাকার পাউরুটি নজর কাড়ছে নেটিজেনদের !

চৌকো নয়, গোলও নয়; আয়তাকার পাউরুটি নজর কাড়ছে নেটিজেনদের !
ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটি স্যান্ডউইচ ব্রেড দু'টি প্লেটে জায়গা করে নিয়েছে

ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটি স্যান্ডউইচ ব্রেড দু'টি প্লেটে জায়গা করে নিয়েছে

  • Share this:

বিশ্বের সব প্রান্তেই সকলে চৌকো পাউরুটি দেখে অভ্যন্ত। কখনও এটি বড় আকারের হয়, কখনও মাঝারি, আবার কখনও ছোট। আর এক লফ ব্রেড হয়, স্লাইস ব্রেডের মতো যা দেখতে হয় না। মাঝখান থেকে সেটি কাটতে হয়। এই ব্রেড একটু লম্বাটে আকারের হয়। কিন্তু স্লাইস ব্রেড আয়তাকার হয় কখনও দেখেছেন? হয় তো দেখেননি। কিন্তু এমনই এক আয়তাকার ব্রেড বা পাউরুটির ছবি সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে নেটদুনিয়ায়। যাতে দেখা যাচ্ছে একটি স্যান্ডউইচ ব্রেড দু'টি প্লেটে জায়গা করে নিয়েছে। সেটি চৌকো নয়, ফলে দু'টি প্লেট লেগেছে। যা দেখে একাধিক বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

পাউরুটি প্রথম তৈরি হয় ১৯২৮ সালে আমেরিকায়। তখন থেকেই প্রায় চৌকো পাউরুটির চলই বেশি রয়েছে। পরে যদিও বান, লফ ব্রেড, আলাদা করে স্যান্ডউইচ ব্রেড তৈরি শুরু হয়। কিন্তু এই ধরনের আয়তাকার ব্রেড কখনও কেউ দেখেনি।

এমনই আয়তকার ব্রেডের একটি ছবি সম্প্রতি ট্যুইটার (twitter)-এ পোস্ট হয়। একজন ট্যুইটার ব্যবহারকারী এই ছবিটি পোস্ট করে লেখেন, এই চওড়া ভাবে কাটা পাউরুটির কথা ভুলতেই পারছি না। ভেবেই যাচ্ছি একে নিয়ে!

ছবিটি পোস্টের সঙ্গে সঙ্গেই তা ভাইরাল হয় নেটদুনিয়ায়। ৭০ হাজার রিট্যুইট হয় ছবিটি। ৬ লক্ষেরও বেশি মানুষ পোস্টটিতে লাইক করে। অনেকেই লিখতে থাকে, এটি একটি বিরক্তিকর পোস্ট। অনেকে আবার লেখে, এমন আগে দেখিনি। অনেকে আবার এটাও বলে, এটি হয় তো ভুল করে কাটা হয়ে গিয়েছে।

সবাই কমেন্ট করলেও, রিট্যুইটের ক্ষেত্রে মজার মজার ক্যাপশন সামনে আসে। অনেকে লেখে, স্লাইস ব্রেড যেদিন থেকে তৈরি হয়েছে, তাতে সব চেয়ে অন্যরকম এটি। অনেকে আবার লেখে, এটা একটা অন্যতম আবিস্কার।

পোস্টটি রিট্যুইট করতে গিয়ে অনেকেই অদ্ভুত খাবার ও জিনিসের ছবিও শেয়ার করে। একজন একটি চৌকো টি-পট ও কাপের ছবি দেয়।

একজন লম্বাটে পাইপের মতো ডিমের ছবি দেয়।

এখানেই শেষ নয়, অনেকেই এমন অনেক কিছুর ছবি শেয়ার করে, যা আদৌ বাস্তবে পাওয়া যায় কি না জানা নেই।

এই ব্রেডের রহস্য অবশ্য জানা যায়নি। আদৌ এই পাউরুটি পাওয়া যায় কি না, সে বিষয়েও কিছু জানা যায়নি।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: