• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • বিদেশ
  • »
  • VIOLENCE HAS NEVER BEEN OUR WAY PAK FOREIGN MINISTER SHAH MEHMOOD QURESHI REACTS AGAINST INDIAS ALLGEATION REGARDING PULWAMA

ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক চায় পাকিস্তান, মন্তব্য পাক বিদেশমন্ত্রীর

ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক চায় পাকিস্তান, মন্তব্য পাক বিদেশমন্ত্রীর

  • Share this:

    #মিউনিখ: পুলওয়ামা হামলায় ৪২ জওয়ানের অকালমৃত্যু । ঘটনায় শোকস্তব্ধ গোটা দেশ । কূটনৈতিক স্তরে ভারত-পাক সম্পর্কে ফের চিড় ধরেছে । নয়াদিল্লির তরফ থেকে পাকিস্তানকে দোষারোপের মধ্যেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে পাকিস্তান। দুই রাষ্ট্রের মধ্যে এই রাজনৈতিক চাপানউতোরের মধ্যেই নিজের প্রতিক্রিয়া পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি । নয়াদিল্লির আরও দায়িত্বপূর্ণ আচরণ করা উচিৎ ছিল, জানিয়েছেন কুরেশি । লোকসভা নির্বাচনের আগে কি আদৌ অভ্যন্তরীণ শান্তি ও স্থিতির উপর গুরুত্ব দিচ্ছে ভারত-এমনই প্রশ্ন কুরেশির।

    মিউনিক নিরাপত্তা সম্মেলনের মঞ্চে পুলওয়ামা হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন তিনি ও পাশাপাশি এই ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক বলে আখ্যা দিয়েছেন তিনি; কিন্তু এই ঘটনার নেপথ্যে পাকিস্তানের জড়িত থাকার যে অভিযোগ তুলেছে ভারত তা একেবারেই ভিত্তিহীন। কেন্দ্রীয় সামরিক বাহিনীর জওয়ানদের মৃত্যু অত্যন্ত বেদনাদায়ক কিন্তু একই সঙ্গে যে কোনও ঘটনায় পাকিস্তানকে দায়ী করা ভীষণ সহজ, মন্তব্য বিদেশমন্ত্রী কুরেশির।

    শান্তি প্রতিষ্ঠা করাই পাকিস্তানের নতুন সরকারের উদ্দেশ্য তা খুব স্পষ্টভাবেই জানান হয়েছে । প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতেও সর্বদা সচেষ্ট পাক-সরকার, জানিয়েছেন তিনি। হিংসার পথে কোনওদিন হাঁটেনি বা হিংসার রাজনীতিকেও সমর্থন করেনি পাকিস্তান, বক্তব্য কুরেশির। পুলওয়ামার ঘটনা খুব দূর্ভাগ্যজনক এবং হিংসাকে কখনই সমর্থন করে না পাকিস্তান । তাই রাজনৈতিক দোষারোপের আগে ভারত সরকারের আরও দায়িত্ববান হওয়া উচিৎ ছিল ।

    কুরেশির স্পষ্ট প্রতিক্রিয়া-'আমি দুঃখিত, কারণ সঠিক কোনও তদন্ত না করেই, কোনও বিচার-বিবেচনা ছাড়াই পাকিস্তানকে এই ঘটনার জন্য দায়ী করেছে ভারত।'

    এই মুহূর্তে ইসলামাবাদের যাবতীয় কার্যকলাপের কেন্দ্রবিন্দু আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠা সুতরাং পশ্চিমাংশ থেকে হঠাৎ করে পূর্ব সীমান্তে নজর ঘোরানো অর্থহীন । কুরেশি আরও জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের আরও ভাল করে ভেবে এই বিষয়ের তদন্তের নির্দেশ দেওয়া প্রয়োজন।

    #PulwamaAttack : পাকিস্তানের কাছ থেকে 'মোস্ট ফেবার্ড নেশন' এর তকমা কেড়ে নিল ভারত

    ভারতেও এমন অনেক মানুষ রয়েছেন যাঁরা চান তাঁদের সরকারও নিজেদের কার্যকলাপ খতিয়ে দেখুক । বিশেষ করে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয় অবশ্যই খতিয়ে দেখা দরকার, বক্তব্য কুরেশির। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, শক্তির অত্যাধিক প্রয়োগের জন্যই ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে বারবার এই ধরনের ঘটনা ঘটছে ।

    পাকিস্তানের নব-নির্বাচিত তেহরিক-ই-ইনসাফ সরকার শুরু থেকে প্রতিবেশী দেশ বিশেষ করে ভারতের সঙ্গে শান্তি বজায় রাখার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়েছে । কেবলমাত্র রাজনৈতিক কারণে নয়, পাকিস্তানর অভ্যন্তরীণ শান্তি ও প্রতিকূলতাগুলির সমাধান করার জন্যও ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে চায় ইমরান খান সরকার, জানিয়েছেন কুরেশি ।

    প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কোনওরকম আতঙ্কবাদী ও রাষ্ট্রবিরোধী কার্যকলাপের সম্পূর্ণ বিরুদ্ধে ও সেই কারণে আঞ্চলিক শক্তিগুলির সঙ্গে শান্তি বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর পাক-সরকার, জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী ।

    First published: