ট্রাম্পের অভিবাসন নীতিতে স্থগিতাদেশ মার্কিন আদালতের– News18 Bengali

ট্রাম্পের অভিবাসন নীতিতে স্থগিতাদেশ মার্কিন আদালতের

মার্কিন আদালতে আবারও বড়সড় ধাক্কা খেল ট্রাম্প নীতি

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 04, 2017 01:06 PM IST
ট্রাম্পের অভিবাসন নীতিতে স্থগিতাদেশ মার্কিন আদালতের
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 04, 2017 01:06 PM IST

#ওয়াশিংটন: মার্কিন আদালতে আবারও বড়সড় ধাক্কা খেল ট্রাম্প নীতি ৷ মুসলিম অধ্যুসিত সাতটি দেশের নাগরিকদের আমেরিকায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন নয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ৷ প্রেসিডেন্টের সেই নিষেধাজ্ঞায় সাময়িক স্থগিতাদেশ দিল মার্কিন আদালত ৷ ঘটনায় প্রবল ক্ষুব্ধ হোয়াইট হাউস, আদালতের সিদ্ধান্তকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ করার পথে হাঁটছে ৷

২৮ জানুয়ারি ইরাক, ইরান, লিবিয়া, সুদান, ইয়েমেন, সিরিয়া ও সোমালিয়া, মুসলিম অধ্যুষিত দেশের নাগরিকদের আমেরিকায় প্রবেশ নিষিদ্ধ করেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই নিষেধাজ্ঞার জারি করার পর থেকেই চরম হয়রানির মুখ পড়তে হয়েছে এই সাত দেশের নাগরিকদের ৷ দেশগুলি থেকে আসা ব্যক্তিরা মার্কিন মুলুকে প্রবেশ করতে পারছেন না ৷ নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাদের আটক করা হয়েছে । ট্রাম্প যখন এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছেন তখন এই সাত দেশের বহু মানুষ মাঝআকাশে ছিলেন ৷ তাই তাদের আটক করা হলে বিমানবন্দরের বাইরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে তাদের পরিবার পরিজনরা ৷

ট্রাম্পের নতুন নির্দেশের জেরে বহু মানুষের ভবিষ্যত কী হবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে ৷ এর নিয়ম জারি হতেই বৈধ ভিসা থাকা সত্ত্বেও বিমানবন্দরে আটক করা হয় এই সাত দেশের নাগরিকদের ৷

ওয়াশিংটন অ্যাটোর্নি জেনারেল বব ফার্গুসন এই অভিবাসন নীতির কিছু নিয়ম নিয়ে প্রশ্ন তুলে সিয়াটেলের আদালতে মামলা দায়ের করেন ৷ ওই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক জেমস রবার্ট নয়া অভিবাসন নীতিতে এদিন সাময়িক স্থগিতাদেশ জারি করেন ৷ রায় শোনার পর বব ফার্গুসনের বক্তব্য, ‘আইনের উর্ধ্বে কেউ নন, এমনকী প্রেসিডেন্টও নয় ৷’

ওয়াশিংটন গর্ভনর জে ইনসলে এই রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন ৷ তবে একইসঙ্গে হোয়াইট হাউসের পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়েও সাবধান করেছেন ৷ তাঁর মতে, যুদ্ধ এখানেই শেষ নয় ৷

একইভাবে ট্রাম্পের সাত দেশের নাগরিকদের ব্যান করার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে শুধু সিয়াটেল নয়, ক্যালিফোর্নিয়া, নিউ ইয়র্ক এবং ওয়াশিংটন সহ বহু আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে ৷

Loading...

এর আগে বিমানবন্দরে আটক দু’জন ইরাকি নাগরিকের হয়ে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন (এসিএলইউ)-র একটি পিটিশন দায়ের করেন ৷ সেই পিটিশনের পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন জেলা বিচারক অ্যান ডোনলি ২৯ জানুয়ারি নাগরিকদের প্রত্যর্পণে সাময়িক স্থগিতাদেশ জারি করেন। বলা হয়, যাঁদের কাছে বৈধ ভিসা রয়েছে এবং বৈধ ভিসা নিয়ে ইরাক, সিরিয়া, ইরান, সুদান, লিবিয়া, সোমালিয়া ও ইয়েমেন থেকে আসা আমেরিকায় প্রবেশের আইনি অধিকার রয়েছে। তাদের ফেরত পাঠানো যাবে না ৷

ট্রাম্পের এই নতুন নির্দেশিকা সই করার পর থেকেই সারা বিশ্ব জুড়ে বিতর্কের ঝড় উঠেছে ৷ তবে সমাজকর্মী ও সামাজিক অধিকার রক্ষা কমিটিগুলি ট্রাম্পের এই পদক্ষেপের তীব্র নিন্দা করেছেন ৷ এই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রেসিডেন্ট বৈষম্যমূলক আচরণ করছেন বলে অভিযোগ জানিয়েছেন তারা ৷

First published: 01:06:42 PM Feb 04, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर