আমেরিকা-ইরান যুদ্ধের আশঙ্কা, সুলেমানির মৃত্যুর বদলার হুঁশিয়ারি

আমেরিকা-ইরান যুদ্ধের আশঙ্কা, সুলেমানির মৃত্যুর বদলার হুঁশিয়ারি

মার্কিন ড্রোন হামলায় সুলেমানির মৃত্যুর পর এখন আমেরিকা-ইরান যুদ্ধের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। যার প্রভাব পড়তে পারে গোটা পশ্চিম এশিয়ায়।

  • Share this:

#তেহরান: প্রবল উত্তেজনা ছিলই। মার্কিন ড্রোন হামলায় সুলেমানির মৃত্যুর পর এখন আমেরিকা-ইরান যুদ্ধের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। যার প্রভাব পড়তে পারে গোটা পশ্চিম এশিয়ায়। চাপে পড়ে মিত্র দেশগুলিকে পাশে চাইছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ইরানের রেভোলিউশনারি গার্ড কোরের গুপ্ত বাহিনী কুদস। বিদেশের মাটিতে ইরানপন্থী ভাড়াটে সেনাদের পরিচালনা করাই যার মূল কাজ। এই বাহিনীরই প্রধান ছিলেন কাসেম সুলেমানি। শুক্রবার ভোররাতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে মার্কিন ড্রোন হামলায় মৃত্যু হয় সুলেমানির। এরপর থেকেই নতুন করে মার্কিন-ইরান টানাপোড়েনের শুরু। যা গড়াতে পারে যুদ্ধ পর্যন্ত। ইতিমধ্যেই যার আঁচ পেয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। চাপে পড়ে মিত্র দেশগুলিকে পাশে চাইছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

merlin_166609041_f181cc3d-28d8-47cf-b992-5a7e530189f8-superJumbo

চাপে পড়ে ট্রাম্পের কূটনীতি

-ট্রাম্পের নির্দেশে মিত্র দেশগুলির রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে কথা বলেছেন মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পেও - পাক সেনাপ্রধান বাজওয়ার সঙ্গে ফোনে কথা বলছেন পম্পেও - ইরাক ও আফগান প্রেসিডেন্টের সঙ্গেও কথা বলেছেন

- কথা বলেছেন সৌদি ও আরব আমিরশাহির রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে

চুপ করে বসে নেই ইরানও। শনিবারই রাজধানী তেহরানে সুলেইমানির মেয়ের সঙ্গে দেখা করেন সেদেশের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। তাঁর বাবার মৃত্যুর বদলা নেওয়ারও আশ্বাস দেন।

জেইনাব বলেন, ‘‘বাবার বন্ধুদের রক্ত ঝরলে, বাবা তার বদলা নিতেন। এখন আমার বাবার রক্তের বদলা কে নেবে?’’ রুহানির উত্তর, ‘‘প্রত্যেকে বদলা নেবে। তুমি কোনও চিন্তা কোরো না ৷ ’’

এদিনই সুলেমানির কফিনবন্দি দেহ নিয়ে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে মিছিল করেন তাঁর সমর্থকরা। গাজায় মার্কিন বিরোধিতায় মিছিল করেন প্যালেস্তিনীয়রাও। এমন উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে, উপসাগীয় যুদ্ধের পুনরাবৃত্তির আশঙ্কাপ্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতিরেজ।

First published: January 4, 2020, 7:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर