US-Taliban Peace Deal| ১৮ বছরের যুদ্ধে ইতি! তালিবানদের সঙ্গে ঐতিহাসিক শান্তিচুক্তি আমেরিকার

US-Taliban Peace Deal| ১৮ বছরের যুদ্ধে ইতি! তালিবানদের সঙ্গে ঐতিহাসিক শান্তিচুক্তি আমেরিকার
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তালিবান শান্তি চুক্তি

কাতারের রাজধানী দোহায় শনিবার এই চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত জালমে খলিলজাদ ও তালিবান গোষ্ঠীর রাজনৈতিক প্রধান মোল্লা আব্দুল ঘানি বরাদার চুক্তিতে সই করেন৷

  • Share this:

#দোহা: আফগানিস্তানের তালিবানদের সঙ্গে ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষর করল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ এই চুক্তির জেরে, আফগানিস্তান থেকে সেনা সম্পূর্ণ সরিয়ে নেবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ অর্থাত্‍ আফগানিস্তানে তালিবানদের রুখতে আর থাকবে না ন্যাটো সেনা৷ তালিবানরাও জানিয়েছে, তারা আফগানিস্তানে আর কোনও হামলা চালাবে না৷ এই ঐতিহাসিক চুক্তির মাধ্যমেই ১৮ বছরের দীর্ঘ যুদ্ধের অবসান হল৷

কাতারের রাজধানী দোহায় শনিবার এই চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত জালমে খলিলজাদ ও তালিবান গোষ্ঠীর রাজনৈতিক প্রধান মোল্লা আব্দুল ঘানি বরাদার চুক্তিতে সই করেন৷ ভারত, পাকিস্তান, কাতার, তুরস্ক, ইন্দোনেশিয়া, উজবেকিস্তান ও তাজিকিস্তানের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়৷ উপস্থিত ছিলেন মার্কিন স্টেট সেক্রেটারি মাইক পম্পেও৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানকে কথা দিয়েছে, ১৪ মাসের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন ও ন্যাটোবাহিনী প্রত্যাহার করা হবে। পাশাপাশি, তালিবানের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আর্জি জানিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের দ্বারস্থ হবে আফগান সরকার।

মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব মার্ক এসপার কাবুল সফরে গিয়ে আফগান সরকারকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিভিন্ন পর্যায়ে সেনা প্রত্যাহার করবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ মার্কিন সেনাদের দেশে ফেরানোর ব্যাপারে ভোটের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ সামনেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন৷ তার আগে তালিবানদের সঙ্গে এই চুক্তি বিশেষ তাত্‍পর্যপূর্ণ বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল৷

তালিবানের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, 'এই চুক্তির ফলে আফগানিস্তানে যুদ্ধ শেষ হবে। আফগানিস্তান থেকে সব বিদেশি বাহিনী সম্পূর্ণ প্রত্যাহার ও ভবিষ্যতে আর আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করার চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়া নিঃসন্দেহে বড় কৃতিত্ব৷

First published: February 29, 2020, 10:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर