ভালোবাসা পরীক্ষা করাতে গিয়ে ইউক্রেনে নিজেদের হাতকড়া পড়ালেন যুগল

ভালোবাসা পরীক্ষা করাতে গিয়ে ইউক্রেনে নিজেদের হাতকড়া পড়ালেন যুগল
ভালোবাসা প্রমাণ করতেই তিন মাস বাঁধা অবস্থায় থাকলেন এই যুগল

ভালোবাসা প্রমাণ করতেই তিন মাস বাঁধা অবস্থায় থাকলেন এই যুগল

  • Share this:

#ইউক্রেন: যে কোনও মুহূর্তে ভেঙে যেতে পারে সম্পর্ক। আজকাল এমনই এক ভয়ে দিন কাটান বেশিরভাগ যুগল! সম্পর্কে বিশ্বাস বা দৃঢ়তার অভাব সর্বত্র লক্ষ্য করা যায়। ফোন ছেড়ে বা সোশ্য়াল মিডিয়া ছেড়ে সঙ্গীর সঙ্গে দিনের পর দিন কাটানো ভাবতেই পারেন না অনেকে। কিন্তু ভালোবাসা থাকলে সব হয়। কথায় আছে ভালোবাসা থাকলে সব জয় করা যায়। আর এই ভালোবাসার জোরেই তিন মাস নিজেদের হাতকড়া পরিয়ে রাখলেন যুগল।

ভালোবাসার পরীক্ষা! তা-ও হয় না কি? শুনলেই অবাক হতে পারেন অনেকে। কিন্তু ইউক্রেনের এই যুগল ভালোবাসারই পরীক্ষা দিলেন সম্প্রতি। বেশ কয়েকটি ধাপে এই পরীক্ষার শেষে ছিল নিজেদের একসঙ্গে বেঁধে রাখা। কারও সঙ্গে যোগাযোগ না রেখে, হাতকড়া পরে সময় কাটাতে পারলেই জিতে যাবে ভালোবাসা আর তাঁরা জিতে যাবেন খেতাবও।

এই খেতাব জিততে ও ভালোবাসা প্রমাণ করতেই তিন মাস বাঁধা অবস্থায় থাকলেন এই যুগল। LADbible-এর রিপোর্ট থেকে জানা যায়, ভ্যালেন্টাইনস ডে'র দিন আলেকজান্ডার ও ভিক্টোরিয়া দু'জনে দু'জনকে বেঁধে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন ইউনিটি স্কাল্পচারের কাছে। তাঁদের দেখাশোনার দায়িত্বে রয়েছেন ভিটালি জোরিন। এই বিষয়ে তিনি জানিয়েছেন, তাঁদের হাত একসঙ্গে বাঁধা রয়েছে এবং হাতের তালু কয়েক সেন্টিমিটার দূরে রয়েছে। তিনি এই যুগলের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার পরই এই কাজে সম্মতি দিয়েছেন।


এই বিষয়ে আলেকজান্ডার জানিয়েছেন, আমরা চেইন দিয়ে যুক্ত রয়েছি। সঙ্গে ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ রেকর্ডসের একটি সিলও লাগানো রয়েছে।

নয়া রেকর্ড তাঁরা গড়বেন, এই ব্যাপারে যথেষ্ট আশাবাদী ও আত্মবিশ্বাসী তাঁরা। যেহেতু এতগুলো দিন একসঙ্গে থাকার পরিকল্পনা রয়েছে, তাই তাঁদের জন্য একটি বিশেষ জামাও প্রস্তুত করা হয়েছে।

এর আগে এই যুগলের ভালোবাসা পরীক্ষা করা হয়েছিল ট্যাক্সি রাইডে। ৩২৫ মাইল ট্যাক্সি রাইডে তাঁরা দু'জনে ছিলেন। জানা গিয়েছে, নয়া এই পরীক্ষায় তাঁদের জন্য কোনও ব্যক্তিগত জায়গা দেওয়া হবে না।

কিন্তু রান্না করা, খাওয়া, ঘুমোনো, ব্রাশ করা মল-মূত্র ত্যাগ করা, একসঙ্গেই করতে হবে। যা ইতিমধ্যেই করা শুরু করে দিয়েছেন তাঁরা। এই সংক্রান্ত একটি ভিডিও দেখা গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে আলেকজান্ডারের পিছনে জামা-কাপড় কাচতে কাচতে ছুটছেন ভিক্টোরিয়া।

তাঁদের এই একসঙ্গে থাকার সবে মাত্র কয়েকদিন হয়েছে। আগামীদিনে তাঁরা এভাবেই থাকতে পারেন বলে আশাবাদী তাঁদের পরামর্শদাতা।

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

লেটেস্ট খবর