ট্রাম্পের ইমপিচমেন্ট না হওয়া গণতন্ত্রের অন্ধকার অধ্যায়: বাইডেন

ট্রাম্পের ইমপিচমেন্ট না হওয়া গণতন্ত্রের অন্ধকার অধ্যায়: বাইডেন

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিনেটের ইমপিচমেন্টের বিচারে ছাড় পাওয়াকে গণতন্ত্রের জন্য অন্ধকার অধ্যায় বলে অভিহিত করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিনেটের ইমপিচমেন্টের বিচারে ছাড় পাওয়াকে গণতন্ত্রের জন্য অন্ধকার অধ্যায় বলে অভিহিত করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিনেটের ইমপিচমেন্টের বিচারে ছাড় পাওয়াকে গণতন্ত্রের জন্য অন্ধকার অধ্যায় বলে অভিহিত করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। শনিবার সিনেটে বিচারের রায় ঘোষণার পর নিজের প্রতিক্রিয়ায় এই মন্তব্য করেছেন তিনি। ব্রিটিশ সংবাদসংস্থা রয়টার্স এই খবর জানিয়েছে। সিনেটে ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করার জন্য দুই-তৃতীয়াংশের রায় প্রয়োজন ছিল। কিন্তু বিচারে ৫৭ জন দোষী সাব্যস্ত করেন কিন্তু ৪৩ তাকে নির্দোষ বলে অভিহিত করেন। ফলে দ্বিতীয়বার সিনেটে ইমপিচমেন্টের হাত থেকে রক্ষা পেলেন তিনি।জো বাইডেন বলেন, "চূড়ান্ত ভোটে হয়ত দোষী সাব্যস্ত হননি। কিন্তু তার বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। এটি আমাদের ইতিহাসের অন্ধকার অধ্যায়। যা আমাদের মনে করিয়ে দেয় গণতন্ত্র ভঙ্গুর। তাই একে সব সময় রক্ষা করতে হবে"।

    মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ‘আমাদের সদা সতর্ক থাকতে হবে। সহিংসতা ও চরমপন্থার কোনও স্থান আমেরিকায় নেই। আমেরিকান হিসেবে আমাদের সবার দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে। বিশেষ করে নেতা হিসেবে আমাদের সত্যকে রক্ষা ও মিথ্যাকে পরাজিত করতে হবে’। বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিজয় অনুমোদনের দিনে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে ট্রাম্প সমর্থকদের হামলা ও পরে সৃষ্ট দাঙ্গায় একজন পুলিশ সদস্যসহ পাঁচ জন নিহত হন। এর আগে ২০১৯ সালে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভে ইমপিচমেন্টের মুখোমুখি হন ট্রাম্প। সেবারও ভোটে রক্ষা পেয়েছিলেন তিনি। তখন তাঁর বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতার অপব্যবহার এবং কংগ্রেসের কার্যক্রমে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ছিল।

    Published by:Simli Dasgupta
    First published: