• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • চিনা মালিকানা না বদলালে আমেরিকায় নিষিদ্ধ টিকটক, ৪৫ দিন সময় দিলেন ট্রাম্প

চিনা মালিকানা না বদলালে আমেরিকায় নিষিদ্ধ টিকটক, ৪৫ দিন সময় দিলেন ট্রাম্প

টিকটকের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ ডোনাল্ড ট্রাম্পের৷

টিকটকের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ ডোনাল্ড ট্রাম্পের৷

গত সোমবার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, কোনও মার্কিন সংস্থাকে বিক্রি না করে দিলে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের পর আমেরিকায় টিকটক নিষিদ্ধ করা হবে৷

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: আগেই হুঁশিয়ারি দিয়েছিল আমেরিকা৷ এবার অনেকটা ভারতের পথে হেঁটেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চিনা অ্যাপ টিকটক এবং উইচ্যাট নিষিদ্ধ করার পথে একধাপ এগোল ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকার৷ ৪৫ দিনের মধ্যে চিনা মালিকানা বদল না করলে এই দু'টি অ্যাপকেই আমেরিকায় নিষিদ্ধ করা হবে৷ বিশেষ আর্থিক ক্ষমতাবলে বৃহস্পতিবার সেই নির্দেশিকা জারি করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷

    তবে মালিকানা বদল করলেও এই দু'টি অ্যাপের আয়ের একাংশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে দিতে হবে বলে নির্দেশিকায় কোনও শর্ত রাখা হয়নি৷ যদিও এই ধরনের দাবিতে গত কয়েকদিন ধরেই সরব হয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট৷

    নির্দেশিকায় টিকটক সম্পর্কে স্পষ্ট বলা হয়েছে, ৪৫ দিন পর কোনও ব্যক্তি বা সংস্থা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে ব্যক্তিগত বা সম্পত্তি সংক্রান্ত কোনও লেনদেন ByteDance Ltd (টিকটকের মালিকানা যাদের হাতে রয়েছে)-এর সঙ্গে করতে পারবে না৷ আমেরিকার এই সিদ্ধান্তের ফলে টিকে থাকার জন্য জনপ্রিয় এই সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপের মালিকানা বদলের সম্ভাবনা আরও জোরাল হল৷ ইতিমধ্যেই ভারতও টিকটককে নিষিদ্ধ করার পরে আর্থিক ভাবে বিরাট ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে এই চিনা সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ৷

    গত সোমবার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, কোনও মার্কিন সংস্থাকে বিক্রি না করে দিলে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের পর আমেরিকায় টিকটক নিষিদ্ধ করা হবে৷ মাইক্রোসফট টিকটক কিনে নিতে পারে, এমন সম্ভাবনাও তৈরি হয়েছে৷ সংস্থার তরফেই এই খবরের সত্যতা স্বীকার করা হয়েছে৷

    ভারতের মতো আমেরিকাও টিকটক নিষিদ্ধ করার পিছনে জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়টিকেই কারণ হিসেবে তুলে ধরেছে৷ অভিযোগ করা হয়েছে, এই অ্যাপের মাধ্যমেই মার্কিন নাগরিকদের ব্যক্তিগত তথ্য তো বটেই, দেশের গোপন তথ্যও সরাসরি চিনা কমিউনিস্ট পার্টির হাতে চলে যাচ্ছে৷ যে তথ্য কাজে লাগিয়ে ব্যক্তিগত স্তরে ব্ল্যাকমেল করা, কর্পোরেট গুপ্তচরবৃত্তির মতো ঘটনাও ঘটছে৷

    টিকটক নিয়ে নির্দেশিকা ঘোষণার কিছুক্ষণের মধ্যে উইচ্যাট নিয়েও একই ধরনের নির্দেশিকা জারি করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ আমেরিকায় উইচ্যাট ব্যবহার করে ফান্ড ট্রান্সফারও করা যায়৷ মালিকানা বদলের নির্দেশিকা না মানলে যা পুরোপুরি নিষিদ্ধ হতে চলেছে৷

    ডোনাল্ড ট্রাম্প টিকটক নিষিদ্ধ করার ভাবনাচিন্তা শুরু করার পরই বিষয়টির সম্পর্কে অবগত হোয়াইট হাউজের কয়েকজন সূত্র দাবি করেছিলেন, আমেরিকায় টিকটকের মালিকানা কোনও মার্কিন সংস্থাকেই বিক্রি করার শর্ত রাখা হতে পারে৷ যদিও ট্রাম্পের নির্দেশিকায় এই শর্ত রাখা হয়েছে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়৷ প্রসঙ্গত, আমেরিকায় টিকটকের প্রায় ১০ কোটি ফলোয়ার রয়েছে৷ সংস্থার মুখপাত্র এর আগে দাবি করেছিলেন, আমেরিকায় আগের মতোই চালু থাকবে এই সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: