ধন্য প্রকৃতিপ্রেম! ২৪ বছরের চেষ্টায় শুষ্ক জমি পরিণত জঙ্গলে, কে এই 'সুপারম্যান'?

ধন্য প্রকৃতিপ্রেম! ২৪ বছরের চেষ্টায় শুষ্ক জমি পরিণত জঙ্গলে, কে এই 'সুপারম্যান'?

অভূতপূর্ব এক কাণ্ড ঘটিয়েছেন সেই ব্যক্তি। যার জন্য মানবজাতির তাঁকে ধন্যবাদ জানানো উচিত।

অভূতপূর্ব এক কাণ্ড ঘটিয়েছেন সেই ব্যক্তি। যার জন্য মানবজাতির তাঁকে ধন্যবাদ জানানো উচিত।

  • Share this:

    #জাভা: আমাদের মধ্যে অনেকেই নিজেদের প্রকৃতিপ্রেমিক বলে দাবী করি। কিন্তু প্রকৃতির প্রতি সত্যিকারের প্রেম নিবেদন করতে পারি কি! প্রকৃতিকে ভাল না বাসলে নিজেদের অস্তিত্ব সংকটে ফেলা হবে। একথা তো আমরা সবাই জানি। জেনেও যেন বুঝি না! কিন্তু ইন্দোনেশিয়ার এক ব্যক্তি নিজেকে সত্যিকারের প্রকৃতিপ্রেমিক বলে প্রমাণ করিয়ে দিলেন। অভূতপূর্ব এক কাণ্ড ঘটিয়েছেন সেই ব্যক্তি। যার জন্য মানবজাতির তাঁকে ধন্যবাদ জানানো উচিত। ইন্দোনেশিয়ার সাদিমান নামক সেই ব্যক্তি ২৪ বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমে আড়াইশো হেক্টর জমি অরণ্যে পরিণত করেছেন। এক সময়ে রুক্ষ জমির চারপাশে এখন সবুজ আর সবুজ। আর সবটাই তাঁর অক্লান্ত পরিশ্রমের ফল।

    শুষ্ক পাহাড়ি এলাকা ছিল ওই জমি। কিন্তু সেখানে এখন সবুজ খেলে। ইন্দোনেশিয়াসহ পৃথিবীর বহু দেশের প্রকৃতিপ্রেমী মানুষ তাঁকে সুপারম্যান বলে ডাকছেন। ইন্দোনেশিয়ার জাভায় ১৯৬০ সালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছিল। সেই আগুনে কয়েকশো দেবদারু গাছ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। যার ফলে ওই এলাকা একেবারে রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে ওঠে। কয়েক দশক ধরে ওই এলাকা ক্ষরার পরিস্থিতি ছিল। এরপর একদিন সাদিমান ঠিক করেন, তিনি ওই এলাকাকে সবুজে মুড়ে ফেলবেন। কিন্তু মুখে বললেই তো আর হল না! এত বড় কাজ করাটা সহজ নয়। তাও আবার একার হাতে। শুরুর দিকে অনেকেই তাঁকে পাগল ভেবেছিল। কেউ কেউ বলেছিল, সাদিমান অসম্ভবকে সম্ভব করতে চাইছেন। এমনকী গ্রামের মানুষ তাঁকে বিন্দুমাত্র সাহায্য করেনি। প্রশাসনের কথা তো বাদই দিন।

    সাদিমান হার মানেনি। ২৪ বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমে রুক্ষ জমিকে এখন তিনি অরণ্যে পরিণত করেছেন।

    নিজের টাকায় গাছের চারা কিনে ওই এলাকায় রোপণ করা শুরু করেছিলেন সাদিমান। হাতে টাকা ছিল না। বাড়ির গবাদি পশু বিক্রি করে সেই টাকায় গাছের চারা কিনেছিলেন তিনি। একদিনের জন্য ছুটি নেননি। গত কয়েক দশক ধরে ওই এলাকায় বৃষ্টিপাত অনিয়মিত হয়ে পড়েছিল। ফলে জলের সমস্যা দেখা দিচ্ছিল। একের পর এক গাছ লাগাতে শুরু করার পর ধীরে ধীরে ওই এলাকা সবুজে ভরে যায়। বৃষ্টি শুরু হয় নিয়মিত। আর এখন তো সেখানে সবুজে সবুজ। প্রায় ২৪ বছর ধরে ১১ হাজার গাছ লাগিয়েছিলেন সাদিমান। ১০ বছরের বেশি সময় লেগেছে সেই সব গাছগুলি বড় হতে। গাছ ধীরে ধীরে বড় হয়েছে। ওই এলাকা গাছ ও ঘাসফুল ভরে গিয়েছে। এখন আর ওই এলাকায় জলের কোনও সমস্যা নেই। শেষ পর্যন্ত গ্রামের মানুষ সাদিমানকে সুপারম্যান বলে মেনে নিতে বাধ্য হয়। কল্পতরু পুরস্কার পান তিনি। এই পুরস্কার তাঁরাই পাযন যাঁরা পরিবেশ রক্ষায় নিজেদের সবটুকু দিয়ে দিতে পারেন। এখন ওই জঙ্গলের নাম সাদিমান ফরেস্ট। তবে অ্যাওয়ার্ডে সাদিমানের কোনও আগ্রহ নেই। ৭০ বছরের সাদিমান অরণ্যের দিকে তাকিয়ে বলেন, গাছগুলো বড় হয়েছে। এত সবুজ। এটাই তো পুরস্কার।

    Published by:Suman Majumder
    First published: