Home /News /international /
Viral News: চুলের মধ্যে এ কী লুকিয়ে রেখেছেন যুবতী! দেখে চোখ কপালে উঠল নেটিজেনদের

Viral News: চুলের মধ্যে এ কী লুকিয়ে রেখেছেন যুবতী! দেখে চোখ কপালে উঠল নেটিজেনদের

ট্যুইটারে দেওয়া ছবি।

ট্যুইটারে দেওয়া ছবি।

Viral News: হানা নামের এক যুবতী তাঁর মাথার চুলের ফাঁকে বাসা তৈরি করে পাখির বাচ্চাকে সযত্নে লালন-পালন করেছেন।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দমকা হাওয়ায় কিংবা আচমকা ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে যেতে পারে সব কিছুই। প্রকৃতির এমন বিরূপতা দেখা যায় আকছার। কিন্তু পাখির পাল বাসা বেঁধে থাকে গাছের ডালে। ঝড়ের তাণ্ডবে রেহাই মেলে না ওই পাখিদের বাসারও। এমনকী, ঝড়ের সময় গাছে বাসা বেঁধে থাকা পাখির পাল ছুটোছুটি করতে থাকে এদিক-ওদিক। সেই সময় পাখির পাল থেকে দল ছুট হয় ছোট্ট পাখিছানারা। এ ঘটনা ঘটে প্রায়শই। ঠিক তেমনি ভাবেই প্রচণ্ড ঝড়ে ভেঙে গিয়েছিল এক ফিঞ্চ পাখির বাসা। ওই বাসা থেকে দলছুট হয়ে একটি ফিঞ্চশাবক পড়ে গিয়েছিল মাটিতে। মায়ের খোঁজে সেই সময় ফিঞ্চ পাখির বাচ্চাটির প্রায় মর-মর অবস্থা। এর পরই ঘটে গেল অকল্পনীয় ঘটনা। যা দেখে ইতিমধ্যেই হতবাক গোটা নেটদুনিয়ার মানুষ। কিন্তু কী সেই চাঞ্চল্যকর ঘটনা?

আরও পড়ুন: বাইপাসের ধারে অস্থায়ী পার্টি অফিস হচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসের

সম্প্রতি সুদূর লন্ডনের গার্ডিয়ান পত্রিকায় প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী হানা নামের এক যুবতী তাঁর মাথার চুলের ফাঁকে বাসা তৈরি করে পাখির বাচ্চাকে সযত্নে লালন-পালন করেছেন। ঘটনাটি বেশ কয়েক বছর আগে ঘটলেও সম্প্রতি ওই যুবতীর মাথায় বাসা বেঁধে থাকা ফিঞ্চশাবকের ছবি দেখে তাজ্জব হয়েছেন নেটিজেনরা। এ বিষয়ে হানা জানিয়েছেন, একদিন প্রচণ্ড ঝড়ের সময় বাসা-ভাঙা দলছুট ওই ফিঞ্চশাবককে তিনি মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেন। ওই ফিঞ্চশাবকটি উড়ে যাওয়ার মতো পরিস্থিতিতে ছিল না বলেই জানিয়েছেন হানা। ওই পাখির বাচ্চাটির মর্মান্তিক অবস্থা দেখে মনে মনে ভীষণ কষ্ট পেয়েছিলেন তিনি। এর পর আর এক মুহূর্ত সময় নষ্ট করে ওই ফিঞ্চশাবককে ঝড়ের তাণ্ডব থেকে রক্ষা করে নিজের ঘরে নিয়ে এসেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: বিয়েতে না হবু শ্বশুরের, গঙ্গায় ঝাঁপ দিতে বিদ্যাসাগর সেতুতে যুবক, টানটান নাটক

জানা গিয়েছে, ঘরে নিয়ে এসে লালন-পালনের সময় ওই পাখিশাবকের প্রেমে পড়ে যান হানা। এর পর ওই যুবতী সিদ্ধান্ত নেন শুধুমাত্র ঘরেই নয়, সর্বদা-সর্বক্ষণ ওই ফিঞ্চ শাবককে তিনি আগলে রাখবেন, ঠিক মা যেমন ভাবে তার বাচ্চাকে আগলে রাখেন। তাই যেমন ভাবনা, তেমন কাজ। অবশেষে ওই পাখির বাচ্চাটিকে নিজের মাথায় চুলের ফাঁকে সযত্নে রেখে দেন তিনি। পক্ষীবিশারদদের পরামর্শ অনুযায়ী প্রতিদিন নিয়ম করে কেঁচো খাইয়ে পাখিশাবককে বড় করেন তিনি। এরপর ওই পাখির বাচ্চাটি একটু একটু উড়তে শেখার পর হানা তাকে দলে ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। দীর্ঘ তিন মাস পর ওই পাখিটি অবশেষে হানার চেষ্টায় খুঁজে পায় তার হারিয়ে যাওয়া বাসা, আত্মীয়-পরিজনদের। অতি সম্প্রতি ওই তরুণী এই ঘটনাটি ছবিসহ তুলে ধরেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর নিজস্ব পেজ- এ। আর তাতেই তাজ্জব গোটা নেট দুনিয়া!

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Viral News

পরবর্তী খবর