corona virus btn
corona virus btn
Loading

রেস্তোরাঁয় বিকোচ্ছিল ‘নিষিদ্ধ খাবার’, অভিযোগ প্রমাণিত হতেই ১৪৪৬ বছরের কারাদণ্ড দিল আদালত !

রেস্তোরাঁয় বিকোচ্ছিল ‘নিষিদ্ধ খাবার’, অভিযোগ প্রমাণিত হতেই ১৪৪৬ বছরের কারাদণ্ড দিল আদালত !

প্রায় ৫০ মিলিয়ন থাই ভাট অর্থাৎ ১৬ লাখ ডলারের ব্যবসা করে রেস্তোরাঁটি ৷

  • Share this:

#ব্যাঙ্কক: বিরলের মধ্য বিরলতম অপরাধ নয় ৷ তবে প্রতারণার অভিযোগ এই দেশে অন্যতম বড় অপরাধ ৷ তাই অস্বাভাবিক শোনালেও এমনই সাজার ব্যবস্থা থাইল্যান্ডে ৷ আইনভঙ্গ ও প্রতারণার অভিযোগে পৃথকভাবে ৭২৩ বছরের জেল মিলিয়ে মোট ১৪৪৬ বছরের কারাবাসের সাজা শুনিয়েছে আদালত ৷ বেআইনি হওয়া সত্ত্বেও দুই রেস্তোরাঁয় জমিয়ে চলছিল সামুদ্রিক প্রাণী বিক্রি ৷ ক্রেতা টানতে রীতিমতো বিজ্ঞাপন দিয়ে রমরমিয়ে চলছিল ব্যবসা ৷

কথায় বলে যা নিষিদ্ধ তার প্রতি টানও তত বেশি ৷ নিষিদ্ধ খাবারে রসনাতৃপ্তি ঘটাতে বিজ্ঞাপন দেখে ওই দুই রেস্তোরাঁয় ভিড় জমান হাজার হাজার মানুষ ৷ সংবাদ সংস্থায় প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, এমন সামুদ্রিক প্রাণী বিক্রির বিজ্ঞাপন দেখে প্রায় ২০ হাজার ক্রেতা আসেন ওই দুই রেস্তোরাঁয় ৷ বিজ্ঞাপনে অনলাইনে পে-ইন-অ্যাডভান্স এবং ফুড বুকিংয়ের ব্যবস্থা্ রেখেছিল রেস্তোরাঁগুলি ৷ সেই মতো অনলাইনে পেমেন্ট ও বুকিংয়ের ঢল নামে ৷ প্রায় ৫০ মিলিয়ন থাই ভাট অর্থাৎ ১৬ লাখ ডলারের ব্যবসা করে রেস্তোরাঁটি ৷

জনপ্রিয়তাই ডেকে আনে বিপদ ৷ রেস্তোরাঁয় নিষিদ্ধ সামুদ্রিক প্রাণীর খবর পৌঁছায় পুলিশের কানে ৷ প্রায় ১০০-ওর বেশি অভিযোগ পেয়ে দুই রেস্তোরাঁর মালিক এপিচার্ট বোয়ের্নবানচ্যারক এবং প্রপাসরন বোয়ের্নবানচাকে গ্রেফতার করে ৷ মামলা আদালতে উঠলে দুই রেস্তোরাঁ মালিককে ১৪৪৬ বছরের জেলের সাজা শোনানো হয়৷ উল্লেখ্য, থাইল্যান্ডে সর্বোচ্চ কারাবাসের সাজা ২০ বছরের ৷ কিন্তু প্রতারণার ক্ষেত্রে কোনও অস্বাভাবিক ঘটনা ঘটলে এরকম লম্বা সময়ের জন্য কারাবাসের সাজা শোনায় থাই আদালত ৷ এর আগে ২০১৭ সালেও প্রতারণায় অভিযুক্ত এক ব্যক্তিকে ১৩ হাজার বছরের জন্য কারাদণ্ড শুনিয়েছিল কোর্ট ৷

Published by: Elina Datta
First published: June 14, 2020, 3:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर