মেয়ে ও মেয়ের প্রেমিক মিলে খুন করল বাবাকে, ইউটিউবে ভিডিওতে সেই কথা জানাল নিজেরাই!

Photo- Youtube/ Video Grab

এত লজ্জা লুকোবার তো কোনও জায়গা নেই...

  • Share this:

    #লাসভেগাস: কিশোর ও কিশোরীর  (Teenager Couple) কীর্তি জানলে চোখ কপালে উঠতে বাধ্য৷ বাচ্চাদের বড় করতে বাবা ও মা নিজেদের পুরো জীবন দিয়ে সন্তান প্রতিপালন করেন৷ সেই বাচ্চারাই মাঝেমধ্যে যা কাজ করেন দেখে চোখে জল আসে, কখনও কখনও শিউরে উঠতে হয়৷ এরকমই নক্কারজনক ভিডিও সোশ্যালমিডিয়ায় দিয়ে তুলে ধরল সত্যি৷ আমেরিকার লাস ভেগাসের ঘটনা৷

    মেয়েটি মাত্র ১৬ বছরের আর তার বয়ফ্রেন্ডের বয়স ১৮ বছর৷ এই ১৬ ও ১৮ বছরের প্রেমিকযুগল মেয়ের বাবাকে মেরে ফেলল (Teenager Girl 16 with Boyfriend 18 Murdered Father)৷ মৃত্যুর পর তারা ছুটি কাটাতে বেরিয়ে যায়৷ এরপর ইউটিউবে হাসতে হাসতে ভিডিও পোস্ট করে আর সেখানে বলে কীরকম ভাবে মেয়ের বাবাকে হাসতে হাসতে মেরে ফেলেছে দু‘জন মিলে৷

    যে মেয়েটি এই ঘটনাটি ঘটায় তার নাম সেরা হালসেথ (Sierra Halseth) তার বয়ফ্রেন্ডের নাম অ্যারন গুরেরো (Aaron Guerrero)  এই কাজ করেষ লাস ভেগাস (Las Vegas) এ থাকে৷ নিজেদের কালো কাজের বিবরণ দেওয়ার জন্য ইউটিউবকে  (YouTube Channel) বেছে নেয়৷ বাবার মৃত্যুকে হাস্যকর পর্যায়ে নিয়ে যায় তারা৷

    ভিডিওতে দু‘জনকে দেখা গেছে একসঙ্গে সেই ঘটনার বিবরণ দিতে৷ হাসতে গল্প করতে করতে কীভাবে মেয়েটির বাবাকে তারা মেরে ফেলেছে তারই কথা বলা হয়েছে৷ নিজেদের ভিডিওতে তারা বলেছে কীরকমভাবে মেয়েটির বাবাকে মেরে ফেলার পর ৩ দিন হয়ে গেছে আর এটা বোঝাতে ক্যামেরায় তিনটি আঙুল দেখায় তারা৷ এইসময়েই মেয়েটি তার বয়ফ্রেন্ডেকে চেঁচিয়ে বলে ক্যামেরারা সামনে তার বয়ফ্রেন্ড যেন এই কথা না বলে৷ এর উত্তরে বয়ফ্রেন্ড বলে যে ও এরই যোগ্য ছিল৷ যেটায় সেই মেয়েটি জানায় সে এই বিষয়ে সহমত৷ ভিডিওতে টিনএজার যুগলকে একটি তাঁবুর মধ্যে দেখা যায়৷ দুজনেই সেখানে মস্তি করছিল বাবাকে মেরে ফেলার কোনও অনুতাপ ছিল না৷ বোঝা যাচ্ছিল না তারা এরকম ভয়ানক কোনও কাজ করেছে৷

    সেরা ১৬ বছরের হওয়ায় তার মৃত্যুর সাজা হবে না৷ কিন্তু তার বয়ফ্রেন্ড যেহেতু ১৮ বছরের তাই তার কোনও ছাড় হবে না৷ মেয়েটির পরিবার জানিয়েছে তারা বেশ কিছুদিন ধরেই খুঁজছে৷ মনে করা হচ্ছে টিনএজার কাপল পালিয়ে গেছিল৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: