• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • TALIBAN IS LIKE TO NOT FORM GOVERNMENT TILL 31 AUGUST TO HONOUR TREATY WITH AMERICA DMG

America Taliban Treaty: আমেরিকার সঙ্গে চুক্তি, ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত সরকার গঠন করবে না তালিবানরা?

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাইয়ের সঙ্গে আলোচনায় আনাস হাক্কানি এবং আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ৷ Photo-Twitter/Tolo News

তালিবানদের তরফে মূল মধ্যস্থতাকারী আনাস হাক্কানি দেশের পূর্বতন সরকারের প্রশাসনিক কর্তাদের এই ইঙ্গিত দিয়েছেন (America Taliban Treaty)৷

  • Share this:

    #কাবুল: যতক্ষণ না পর্যন্ত আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা ফিরে যাচ্ছে, ততদিন সম্ভবত সরকার গঠন করবে না তালিবানরা৷ তালিবানদের সঙ্গে আলোচনায় যুক্ত থাকা এক আফগান আধিকারিকই এই খবর জানিয়েছেন৷ আমেরিকা ইতিমধ্যেই জানিয়েছে, ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত আফগানিস্তানে তাঁদের সেনা থাকবে৷

    সংবাদসংস্থা এপি-র খবর অনুযায়ী, নাম গোপন রাখার শর্তে ওই আফগান কর্তা জানিয়েছেন, তালিবানদের তরফে মূল মধ্যস্থতাকারী আনাস হাক্কানি দেশের পূর্বতন সরকারের প্রশাসনিক কর্তাদের এই ইঙ্গিত দিয়েছেন৷ হাক্কানি জানিয়ে দিয়েছেন, আমেরিকার সঙ্গে তাদের চুক্তি অনুযায়ী যতক্ষণ না পর্যন্ত মার্কিন সেনা আফগানিস্তান থেকে প্রত্যাহার করা হচ্ছে, ততক্ষণ তারা কিছুই করতে পারবেন না৷ তবে হাক্কানি স্পষ্ট করেননি, কিছু না করার অর্থ শুধুমাত্র রাজনৈতিক পদক্ষেপের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে কি না৷

    হাক্কানির এ হেন দাবির পর প্রশ্ন উঠেছে, ৩১ অগাস্টের পর কি তাহলে নিজেদের আসল রূপ দেখাবে তালিবানরা? পূর্বতন সরকারের অধীনে কর্মরত আধিকারিকদের তারা নতুন সরকারে অন্তর্ভুক্ত করবে কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷ তার উপরে এখনও তালিবানরা স্পষ্ট করে জানায়নি, আফগান জাতীয় সুরক্ষা বাহিনীর ভবিষ্যৎ কী৷ অথবা আফগান সামরিক বাহিনীর পরিবর্তে দেশের নিরাপত্তার ভার তালিবানরা কাদের হাতে তুলে দেবে, তাও এখনও স্পষ্ট নয়৷

    মার্কিন সেনবাহিনীর এক আধিকারিক জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত আফগানিস্তানে তাঁদের মোট ৫২০০ জন সেনা কর্মরত রয়েছেন৷ বর্তমানে আফগানিস্তান থেকে আমেরিকার নাগরিকদের পাশাপাশি অন্যান্য দেশের নাগরিকদের উদ্ধারেও সহায়তা করছে মার্কিন সেনা৷ এমন কি, আফগানদেরও সাহায্য করছে তারা৷

    আফগানিস্তান থেকে আমেরিকা সহ অন্যান্য দেশগুলির সেনাবাহিনী প্রত্যাহার শুরু হতে না হতেই যে দ্রুত গতিতে তালিবানরা গোটা দেশ দখল করেছে, তাতে সেই দেশগুলির নেতৃত্বেরও অনেকে রীতিমতো অবাক৷ আফগানিস্তানের অনেক জায়গাই এখন কার্যত প্রশাসন শূন্য অবস্থায় রয়েছে৷

    তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বিডেন স্পষ্ট করে দিয়েছেন যে ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত সেনা প্রত্যাহারের সময়সীমা দেওয়া হলেও যতক্ষণ না পর্যন্ত সমস্ত মার্কিন নাগরিককে ফিরিয়ে নেওয়া হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত মার্কিন সেনা আফগানিস্তানে থাকবে৷ আফগানিস্তান থেকে মার্কিনদের নিরাপদে উদ্ধারকেই এখন সব থেকে গুরুত্ব দিচ্ছে জো বিডেন প্রশাসন৷ কারণ সমীক্ষায় প্রমাণিত, ক্ষমতায় আসার পর প্রেসিডেন্ট বিডেনের আমলে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তই সবথেকে বেশি জনসমর্থন পেয়েছে৷ যদিও মার্কিন নির্বাচনে এই বিষয়টি সেভাবে গুরুত্ব পায়নি৷ যদিও সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া বিডেন যেভাবে সামলেছেন, তাতে ডেমোক্র্যাটদের একাংশও তাঁর সমালোচনায় সরব হয়েছে৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: