Taliban kills a woman in Afghanistan: মহিলাকে রাস্তায় গুলি করে হত্যা! মুখেই বড় বড় কথা, তালিবান আছে তালিবানেই

বন্দুকের নলেই শাসন চালাচ্ছে তালিবানরা৷ ছবি সৌজন্যে এপি ৷

মঙ্গলবার আফগানিস্তানের তাখার প্রদেশে বোরখা না পরার অপরাধে প্রকাশ্যেই এক মহিলাকে গুলি করে হত্যা করেছে তালিবানরা (Taliban kills a woman in Afghanistan)৷

  • Share this:

    #কাবুল: মহিলাদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করবে না তারা৷ মঙ্গলবারই সাংবাদিকরা এই ঘোষণা করেছিল তালিবানরা৷ আর সেদিনই বোরখা না পরার অপরাধে আফগানিস্তানে প্রকাশ্য রাস্তাতেই গুলি করে এক মহিলাকে হত্যা করল তালিবানরা৷ আর তার সঙ্গেই ফিরে এলো তালিবান শাসনের অন্ধকার যুগের ছবি৷

    শুধু তাই নয়, কাবুলের রাস্তায় তালিবানরা নানা অজুহাতে মহিলাদের মারধর করছে বলেও খবর পাওয়া যাচ্ছে৷ পাশাপাশি কাবুলে তালিবানরা প্রাক্তন সরকারি কর্মীদেরও খোঁজ চালাচ্ছে বলে খবর৷

    নিউ ইয়র্ক পোস্টে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, মঙ্গলবার আফগানিস্তানের তাখার প্রদেশে বোরখা না পরার অপরাধে প্রকাশ্যেই এক মহিলাকে গুলি করে হত্যা করেছে তালিবানরা৷ রাস্তার মধ্যেই নৃশংসভাবে হত্যা করা হয় ওই মহিলাকে৷ রক্তে ভেসে যায় তাঁর দেহ৷ ঘটনার ভিডিও-তে দেখা গিয়েছে, মহিলার দেহ ঘিরে বসে আর্তনাদ করছেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা৷

    মঙ্গলবারই সাংবাদিক বৈঠক করে তালিবানরা দাবি করেছিল, মহিলাদের বিরুদ্ধে কোনও বৈষম্যমূলক আচরণ করবে না তারা৷ তবে মহিলাদের শরিয়তি আইন মানতে হবে বলে ও জানিয়ে দিয়েছিল তালিবানরা৷ এমন কি, শরিয়তি আইন মেনে মহিলারা স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের মতো পরিষেবায় চাকরিও করতে পারবে বলে দাবি করে তারা৷ যদিও তালিবানরা মুকে যাই বলুক না কেন, কার্যক্ষেত্রে যে তারা মহিলাদের প্রতি মনোভাব এতটুকু বদলায়নি, তাখার প্রদেশের ঘটনাতেই তা স্পষ্ট হয়ে গেল৷

    যদিও এ দিনই তালিবানরা চিকিৎসা পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত সহ চাকরিজীবী বেশ কিছু মহিলার সঙ্গে বৈঠক করেছে বলে খবর৷ সেখানেও তাঁদের নিরাপত্তার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে৷ কিন্তু তালিবানদের মুখের কথার সঙ্গে কাজের ক্ষেত্রে মিল থাকছে না৷ শুধু মহিলারাই নয়, তালিবানরা কাবুলে ব্যবসায়ীদের উপরেও অত্যাচার শুরু করেছে বলে অভিযোগ৷

    তালিবানদের এই অত্যাচার থেকে বাঁচতেই আফগানিস্তান ছেড়ে পালানোর হিড়িক পড়ে গিয়েছে৷ কিন্তু তাতেও তালিবানদের রোষ থেকে বাঁচা যাচ্ছে না৷ কারণ এই মুহূর্তে কাবুল সহ দেশের বিভিন্ন প্রদেশে রাস্তায় টহল দিচ্ছে তালিবানি যোদ্ধারা৷ কাউকে পালাতে দেখলেই ধরে মারধর করছে তারা৷ এই পরিস্থিতিতে আফগানদের অসহায়তা ধরা পড়েছে ২২ বছর বয়সি আয়েষা খুররামের গলায়৷ তাঁর কথায়, 'এখন আমাদের কাছে দুটো বিকল্প রয়েছে৷ হয় আফগানিস্তান ছেড়ে পালাতে হবে, নাহলে এখানে কীভাবে বেঁচে থাকা যায় তা ভাবতে হবে৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: