রাসায়নিক-দূষণে রাস্তার কুকুরদের বেহাল দশা, চামড়ার রং পুড়ে নীল!

রাসায়নিক-দূষণে রাস্তার কুকুরদের বেহাল দশা, চামড়ার রং পুড়ে নীল!

কুকুরের গায়ের রং নীল!

সোভিয়েত এরার একটি কারখানার বিভিন্ন বর্জ্য-রাসায়নিকের জেরেই এমন ঘটনা বলে প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে। সচেতন স্থানীয় বাসিন্দাদের কয়েকজন ওই এলাকার কুকুরগুলিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা করার জন্য নিয়ে গিয়েছেন।

  • Share this:

    #রাশিয়া: কারখানার রাসায়নিকের দূষণ মিশছে বাতাসে। আর সেই থেকেই রাশিয়ার একটি অঞ্চলের রাস্তার কুকুরদের গায়ের রং বদলে হয়ে গিয়েছে নীল। অস্বাভাবিক এই ছবি দেখে চমকে উঠছেন পরিবেশপ্রেমীরা। রাশিয়ার জেরজিঙস্ক (Dzerzhinsk) -এর সোভিয়েত এরার একটি কারখানার বিভিন্ন বর্জ্য-রাসায়নিকের জেরেই এমন ঘটনা বলে প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে। সচেতন স্থানীয় বাসিন্দাদের কয়েকজন ওই এলাকার কুকুরগুলিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা করার জন্য নিয়ে গিয়েছেন।

    জেরজিঙস্কয়ের অর্গস্টেকলো প্লান্টের চারিদিকের এই 'নীল' কুকুরগুলির ছবি তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। প্রায় ছয় বছর আগে সেই কারখানাটি বন্ধ হয়ে গিয়েছে এবং সেটিরই নানা বর্জ্য-দূষণ এলাকার বাতাসে-জলে মিশে এমন ঘটনা ঘটছে। একদা এই কারখানায় রাসায়নিক পদার্থ উৎপাদন করা হত। হাইড্রোসায়ানিক অ্যাসিড ও প্লেক্সিগ্লাস তৈরি হত বলে জানা গিয়েছে। প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, ওই এলাকায় কিছু কপার সালফেট পাওয়া গিয়েছিল, যেগুলি থেকে শরীরে প্রদাহ তৈরি হয়। কুকুরগুলি সেগুলি খেয়ে ফেলার ফলেই তাদের চেহারা এমন ভাবে বদলে গিয়েছে।

    নীল কুকুরের দল! নীল কুকুরের দল!

    যদিও বন্ধ কারখানার সর্বস্বশূন্য ম্যানেজার অান্দ্রে মিসলিভেস্ট এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন। ছবিগুলি ভুয়ো বলে দাবি করেছেন তিনি। এলাকার কমিশনারের দাবি, 'ওই এলাকা থেকে কিছু পুরনো রাসায়নিক পাওয়া গিয়েছে, মনে করা হচ্ছে সেগুলি কপার সালফেট।' কয়েক বছর আগে এই এলাকায় অস্বাভাবিক ভাবে বহু কুকুরের মৃত্যুর ঘটনাও সামনে এসেছিল। কুকুরগুলিকে দেখার কেউ নেই, এবং সে কারণেই এমন ঘটনা ফের ঘটেছে বলে মনে করছে প্রশাসন।

    প্রশাসনের তরফে এই ঘটনায় পদক্ষেপ করার কথা বলা হয়েছে। কুকুরগুলিকে সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে বলেই জানানো হয়েছে। কুকুরদের শারীরিক পরীক্ষাও করা হবে। সম্ভবত কুকুরগুলি চুলকানির সমস্যাতেও ভুগছে বলে দাবি প্রত্যক্ষদর্শীদের।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published:
    0

    লেটেস্ট খবর