মানুষের দোষে শাস্তি পাচ্ছে প্রকৃতি!‌ দক্ষিণ মেরুর উষ্ণতা বাড়ছে তিনগুন গতিতে

Representative Image (Reuters)

গবেষকরা বলছেন, গ্রিন হাউজ গ্যাসের প্রভাবেও এই তাপমাত্রা বৃদ্ধি ঘটতে পারে।

  • Share this:

    #‌নিউ ইয়র্ক:‌ আবহাওয়া পরিবর্তন মানব সভ্যতার কাছে সবচেয়ে বড় সংকটগুলির মধ্যে অন্যতম। আর সেই সংকটে সবচেয়ে ক্ষতি হচ্ছে প্রকৃতির। মানুষের কারণেই সৃষ্টি হওয়া আবহাওয়ার পরিবর্তনের চাপে পড়ে ক্রমে প্রকৃতি হারিয়ে ফেলছে তার স্বাভাবিক রূপ। গবেষকরা বলছেন, পৃথিবীর শীতলতম অংশ, মানে দক্ষিণ মেরুর উষ্ণতা বাড়ছে তিনগুন হারে। এই সপ্তাহেই প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে এই তথ্য উঠে এসেছে।

    শেষ ৩০ বছর ধরে পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে বেশি পরিবর্তনশীল অঞ্চল হচ্ছে দক্ষিণ মেরু। আর সেটিই পৃথিবীর অন্য অংশের তুলনায় তিনগুন দ্রুততায় গরম হয়ে পড়ছে। এর ফলে গলে যাচ্ছে বরফ। শুধু প্রকৃতির কারণে নয়, মানুষের তৈরি কারণেই মূলত শাস্তি পাচ্ছে প্রকৃতি। ক্রমে হারিয়ে ফেলছে নিজের চেহারা। এমনই বলছেন গবেষকরা।

    গবেষকরা বলছেন, গ্রিন হাউজ গ্যাসের প্রভাবেও এই তাপমাত্রা বৃদ্ধি ঘটতে পারে। এখান থেকে প্রশ্ন আসে, কী হবে এই বৃদ্ধির ফলে?‌ পৃথিবীর দুই মেরু শীতলতায় পৃথিবীর সামগ্রিক তাপমাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। সেখানকার তাপমাত্রা বাড়লে বাড়বে পৃথিবীর গড় উষ্ণতাও। যা মানব সভ্যতার পক্ষে যথেষ্ট আশঙ্কার। পাশাপাশি, বরফ গলে যাওয়ার পরিমাণ যত বাড়বে, তত সাগরে বাড়তে থাকবে জল। ফলে ভৌগলিক ভাবে জলের এলাকা যদি বেড়ে যায় আর স্থলভাগ জলের নিচে চলে যায়, তাহলেও অবাক হওয়ার কিছু নেই।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: