• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • কোন রংয়ের অন্তর্বাস পরবে ছাত্রছাত্রীরা? ঠিক করে দিচ্ছে জাপানের স্কুল

কোন রংয়ের অন্তর্বাস পরবে ছাত্রছাত্রীরা? ঠিক করে দিচ্ছে জাপানের স্কুল

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

  • Share this:
    #জাপান: চুলের রং থেকে শুরু করে জল পান করার নিয়ম৷ জাপানের স্কুলগুলি নানা এমন অনেক বিষয়ের জন্য ছাত্রছাত্রীদের জন্য নিয়ম তৈরি করে দেয়৷ এর পিছনে যুক্তি কতটা আছে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও স্কুলের ভিতরে এবং বাইরে তাদের অনুশাসনে বেঁধে রাখতেই এমন পথ অবলম্বন করে জাপানি স্কুলগুলি৷

    এই পর্যন্ত ঠিকই ছিল৷ তাই বলে ছাত্রছাত্রীদের অন্তর্বাসের রং কি ঠিক করে দিতে পারে স্কুল? সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষায় উঠে আসা তথ্য অনুযায়ী, জাপানের কয়েকটি স্কুল ছাত্রছাত্রীদের অন্তর্বাসের রংও ঠিক করে দেয়৷ ফুকুওয়াকা শহরের বার অ্যাসোসিয়েশনের করা সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, এই শহরের অধিকাংশ মিউনিসিপ্যাল হাই স্কুলই পড়ুয়াদের অন্তর্বাসের রং নির্ধারণ করে দেয়৷ এর পাশাপাশি স্কুল ইউনিফর্ম, ব্যাগ নিয়ে খুঁতখুঁতে তারা৷ এমন কি জিম ক্লাসের জন্য পড়ুয়ারা কোন ব্র্যান্ডের জুতো পড়বে, তাও বলে দেয় স্কুলগুলি৷

    জাপান টুডে পত্রিকায় প্রকাশিত একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, সমীক্ষায় উঠে এসেছে, ছাত্রছাত্রীদের চুলের দৈর্ঘ্য, স্টাইল, ক্লাস চলাকালান জল পান করার নিয়ম সংক্রান্ত বিভিন্ন বিধিনিষেধ জারি করে ফুকুওকা শহরের স্কুলগুলি৷ সেই তালিকায় রয়েছে ছাত্রছাত্রীদের অন্তর্বাসের রংও৷ আবার এমনও নির্দেশিকা রয়েছে, স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার সময় ছাত্রছাত্রীরা কোনও কেনাকাটা করতে পারবে না৷ আবার নিয়ম অনুযায়ী, ভুরুতেও আদব কায়দা করতে পারবে না ছাত্রছাত্রীরা৷

    অভিযোগ, পড়ুয়ারা এই নিয়ম ভাঙলে তার যে শাস্তি দেওয়া হয়, তা অনেক ক্ষেত্রেই মানবাধিকার ভঙ্গের সামিল৷ যেমন স্কুলের নির্দেশিকা না মেনে অন্য রংয়ের অন্তর্বাস পরলে অভিযুক্ত ছাত্রছাত্রীকে তা খুলে ফেলতে বাধ্য করা হয়৷ নিয়ম ভেঙে চুলে কোনও স্টাইলিং প্রোডাক্ট লাগালে তা ধুয়ে ফেলতে বাধ্য করা হয়৷

    দ্য মাইনিচি সংবাদপত্রে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, শহরের স্কুলগুলিকে বর্তমান নিয়মে পরিবর্তন আনার জন্য আগামী ফেব্রুয়ারি মাসেএকটি আলোচনা সভা ডাকতে চলেছে ফুকুওকা শহরের বার অ্যাসোসিয়েশন৷ শহরের মিউনিসিপ্যাল গভর্মেন্টের থেকেই তথ্যে অধিকার আইনে স্কুলগুলি সম্পর্কে এই তথ্য মিলেছে৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: