corona virus btn
corona virus btn
Loading

কোনও হত্যা ভোলা হবে না, মানবাধিকারকে সম্মান করুন...! চিনকে কড়া বার্তা আমেরিকার

কোনও হত্যা ভোলা হবে না, মানবাধিকারকে সম্মান করুন...! চিনকে কড়া বার্তা আমেরিকার
Protesters take part in a candlelight vigil to mark the 31st anniversary of the crackdown of pro-democracy protests at Beijing's Tiananmen Square in 1989, after police rejected a mass annual vigil on public health grounds, at Victoria Park, in Hong Kong, China June 4, 2020. REUTERS/Tyrone Siu

'অস্ত্রহীন সাধারণ চিনা নাগরিকদের যেভাবে হত্যা করেছিল চিনা কমিউনিস্ট পার্টি, তা ভোলার নয়', জানাল হোয়াইট হাউজ ৷

  • Share this:

#ওয়াশিংটন:  কোনও হত্যা ভোলা হবে না, মানবাধিকারকে সম্মান করুন...! চিনের ‘Tiananmen Square massacre’-এর ৩১তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে এভাবেই বেজিংকে আর্জি জানাল আমেরিকা৷ স্পষ্ট জানানো হয়েছে যে মানবাধিকারকে সম্মান জানাক চিন৷ হংকং-এর প্রতি যে দায়িত্ব রয়েছে তা ঠিকভাবে পালন করা এবং জাত-পাতের ভিত্তিতে বা ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর নীপিড়ন বন্ধ করুক চিন৷

'অস্ত্রহীন সাধারণ চিনা নাগরিকদের যেভাবে হত্যা করেছিল চিনা কমিউনিস্ট পার্টি, তা ভোলার নয়', চিনকে একপ্রকার কড়া ভাষায় জানায় হোয়াইট হাউজ৷

চিনা সংবিধান অনুযায়ী চিনের প্রতিটি নাগরিকের অধিকার ও স্বাধীনতাকে সম্মান জানানো হোক, বলছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ ধর্ম ও জাতির ভিত্তিতে প্রচুর চিনাকে নিজেদের দেশেই অত্যাচারের শিকার হতে হয়, সেই সবের দিকে চিনকে নজর দিতে বলেছে হোয়াইট হাউজ৷ ইউনিভার্সাল ডিক্লারেশন অব হিউম্যান রাইটস এবং সিনো ব্রিটিশ জয়েন্ট ডিক্লারেশনের মাধ্যে হংকং-এ প্রতি যেভাবে দায়িত্ববদ্ধ চিন, তা সেভাবেই পালন করুক সেদেশের সরকার, আর্জি আমেরিকার৷

১৯৮৯-এ গণতন্ত্রের লড়াইয়ের জন্য রক্তাক্ত হয়েছিল চিন৷ ৪ জুন ছিল সেই ঘটনার বর্ষপূর্তি৷ কাকতালীয়ভাবে এই দিনটি উদযাপনের যখন হচ্ছে, তখন আমেরিকায়ও উত্তাল কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের হত্যার ঘটনায়৷ আমেরিকার বিভিন্ন জায়গায় চলছে বিক্ষোভ৷ যা ঠেকাতে সেনার ব্যবহার করার কথা বলেছেন ট্রাম্প৷ প্রেসিডেন্টের এই বক্তব্যের পর ক্ষতের ওপর প্রলেপ পড়া তো দূরের কথা, আরও উত্তপ্ত হয়েছে পরিস্থিতি৷

চিনের তিয়ানানমেন স্কোয়ারের ঘটনার ৩১তম বর্ষপূর্তিতে সব চিনা নাগরিকদের পাশে দাঁড়িয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ তাদের মৌলিক অধিকারের যে লড়াই, তার পাশে রয়েছে আমেরিকা, জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ৷

Published by: Pooja Basu
First published: June 5, 2020, 10:13 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर