ট্রাম্প না কি মোদি? কে ঠিক বলছেন? ফের প্রশ্নে মোদির বিদেশনীতি

ট্রাম্প না কি মোদি? কে ঠিক বলছেন? ফের প্রশ্নে মোদির বিদেশনীতি

দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হয়ে হঠাৎই চরম বিড়ম্বনায় নরেন্দ্র মোদি। মোদি সরকার না কি ট্রাম্প সরকার? কে ঠিক বলছে তা নিয়ে অনেকের মনেই প্রশ্ন।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী হিসেবে একটা বড় সময় কাটিয়েছেন বিদেশে। দাবি করেছেন আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক সম্পর্ক মজবুত করতেই এই সব বিদেশ সফর। কিন্তু, দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হয়ে হঠাৎই চরম বিড়ম্বনায়। মোদি সরকার না কি ট্রাম্প সরকার? কে ঠিক বলছে তা নিয়ে অনেকের মনেই প্রশ্ন।

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে একাধিকবার গিয়েছেন আমেরিকা সফরে। বারবারই মার্কিন মুলুকে শোনা গিয়েছে মোদি-মোদি স্লোগান....৷ প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী হয়ে তিনি সেই সময়ের মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে, বারাক বলে সম্বোধন করে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন....৷ এরপর, হোয়াইট হাউসে রোজ গার্ডেনের লনে, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জড়িয়েও ধরেন নরেন্দ্র মোদি।

গেরুয়া শিবিরের দাবি, নরেন্দ্র মোদির বিদেশ নীতির জোরেই আন্তর্জাতিক স্তরে পাকিস্তান কোণঠাসা। যা এক ধাক্কায় প্রশ্নের মুখে পড়ে গেল। সৌজন্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দাবি, যে খোদ নরেন্দ্র মোদি তাঁকে কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতাকারী হওয়ার আরজি জানিয়েছেন।

দেশের রাজনীতিতে মোদি সরকারকে চেপে ধরেছে বিরোধীরা। নরেন্দ্র মোদি পালটা তাঁর বিদেশ মন্ত্রীকে আসরে নামিয়েছেন। বিদেশমন্ত্রী দাবি করেছেন, নরেন্দ্র মোদি কোনও দিনই এরকম আরজি জানাননি। তা হলে কে ঠিক বলছেন? মোদি সরকার না কি ট্রাম্প?

আন্তর্জাতিক স্তরে যেমন চাপে, তেমনই দেশীয় রাজনীতিতেও মোদি সরকারকে চেপে ধরেছে বিরোধীরা। তারা সরাসরি নরেন্দ্র মোদিকে নিশানা করছে। দাবি করছে তাঁর বিবৃতির। সুযোগ পেয়ে আসরে নেমে পড়েছে পাকিস্তানও। মার্কিন টিভি চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের মধ্যস্থতার পক্ষেই সওয়াল করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এ সবের মাঝে মোদি সরকারের কাছে কিছুটা স্বস্তি মার্কিন প্রশাসনের এই বিবৃতি। ড্যামেজ কন্ট্রোলের লক্ষ্যে মার্কিন বিদেশ দফতরের সহ সচিব অ্যালিস ওয়েলস বিবৃতি দিয়েছেন ৷

আগামী সেপ্টেম্বরে আমেরিকা সফরে যাওয়ার কথা নরেন্দ্র মোদির। তার আগে এই বিতর্ক ভারত-মার্কিন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে না তো? বিরোধীরা কটাক্ষ করে বলছেন, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রথম পাঁচ বছরের একশোর কাছাকাছি দেশে গিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। বেশ কয়েকবার মার্কিন সফরও করেছেন। কিন্তু, তারপরেও ডোনাল্ড ট্রাম্পের দাবি ফের একবার তাঁর বিদেশ নীতিকেই প্রশ্নের মুখে ফেলে দিল।

First published: 10:33:31 PM Jul 24, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर