বিদেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফেসবুকে ফাঁদ!‌ ১৫০ তরুণীর নগ্ন ছবি পেয়েই‌ এবার নোংরা ভিডিও চেয়ে ব্ল্যাকমেল, অত্যাচার

ফেসবুকে ফাঁদ!‌ ১৫০ তরুণীর নগ্ন ছবি পেয়েই‌ এবার নোংরা ভিডিও চেয়ে ব্ল্যাকমেল, অত্যাচার

একটা দীর্ঘ সময় ধরে এই কাজ করে গিয়েছে অপরাধী। ১৫০ জন কিশোরী ও তরুণীর উপর তাঁর এই অত্যাচার চলত বলে পুলিশ জানিয়েছে।

  • Share this:

ফেসবুকে ফাঁদ পেতে মেয়েদের ফাঁসাত ২৫ বছরের মেঞ্জামিন জেনকিনস। জর্জিয়ার এই বাসিন্দার ফাঁদে ফেঁসেছেন অসংখ্য তরুণী। তাঁদের থেকে নগ্ন ছবি আদায় করে ছেড়েছে এই যুবক। তারপর থেকে শুরু হয়েছে ব্ল্যাকমেল। একেবারে ১৩ বছরে বালিকা থেকে শুরু করে মধ্যবয়সের তরুণী, সবাইকেই নিজের শিকার বানাতে অভ্যস্ত ছিল সে। আর সবটাই হত সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে। প্রথমে ইনিয়ে বিনিয়ে একটা ছবি আদায় করে তারপর থেকে ভয় দেখাতে শুরু করত সে। বলত পরিবারের অন্য লোকেদের কাছে বা সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবি ছড়িয়ে দেওয়া হবে। পরিবারের লোকেদের কাছে এই ছবি পাঠিয়ে দেওয়া হবে। আর সেই ভয় দেখিয়ে ক্রমাগত আরও অনেক ছবি, ভিডিও চেয়ে যেত সেই ষড়যন্ত্রকারী। এতেই ফেঁসে যেতেন কম বয়সের কিশোরী থেকে তরুণীরা। শুধু ছবি চাওয়া নয় দিনের পর দিন বিভিন্ন নোংরা কাজ করে ছবি পাঠাতে বলত এই অপরাধী। সেগুলি করতেও অনেকে বাধ্য হত।

একটা দীর্ঘ সময় ধরে এই কাজ করে গিয়েছে অপরাধী। ১৫০ জন কিশোরী ও তরুণীর উপর তাঁর এই অত্যাচার চলত বলে পুলিশ জানিয়েছে। একদিন নয়, দীর্ঘদিন ধরেই এই অত্যাচার সে চালাত বলে খবর। সেই সমস্ত কিশোরী ও তাঁদের পরিবারকে প্রবল যন্ত্রণার মধ্যে রেখেছিল এই অপরাধী। এমন এক ফাঁদে কিশোরীরা পড়ে গিয়েছিল যে সেই ফাঁদ থেকে তারা বেরোতেই পারছিল না। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেক্সটিং কতটা ভয়ানক হতে পারে, সেটার উদাহরণ হতে পারে এই ঘটনাটি। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। এই ঘটনাটিকে উদাহরণ হিসাবে তুলে ধরে সাধারণ কিশোরী, কিশোরদের সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার সম্পর্কে ওয়াকিবহাল করা হবে। ঘটনার পরেই অপরাধীকে আদালতে পেশ করে পুলিশ। পুলিশ একাধিক তথ্য প্রমাণ জমা করার পরে আদালতও এই গোটা ঘটনায় তীব্র উদ্বেগ প্রকাশ করে। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যবহারের বিষয়েও আরও সতর্ক হওয়ার কথা বলে। পাশাপাশি, অপরাধীর অপরাধকে এক জঘন্যতম অপরাধ বলে চিহ্নিত করেন। ৪০ বছরের জন্য কারাদণ্ডের সাজা দেন।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: September 25, 2020, 6:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर