বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

অভিনন্দনের মুক্তি নিয়ে তথ্য ফাঁস, এই সাংসদকেই 'দেশদ্রোহী' বলছে পাকিস্তান

অভিনন্দনের মুক্তি নিয়ে তথ্য ফাঁস, এই সাংসদকেই 'দেশদ্রোহী' বলছে পাকিস্তান
পাকিস্তানের বিরোধী দল পিএমল-এন এর সাংসদ সর্দার আয়াজ সাদিক৷

পাকিস্তানের বিরোধী দল পিএমল-এন এর সাংসদ সর্দার আয়াজ সাদিক গত বুধবার পাকিস্তানের সংসদে দাঁড়িয়েই দাবি করেন, অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি না দিলে ভারতের হামলার ভয়ে সিঁটিয়ে ছিলেন পাকিস্তানের তাবড় মন্ত্রী থেকে শুরু করে সেনা কর্তারা৷

  • Share this:

#ইসলামাবাদ: ভারতের হামলার ভয় পেয়েই বায়ুসেনার পাইলট অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দিয়েছিল পাকিস্তান৷ এই তথ্য সামনে আনার জন্য এ বার বিরোধী দলের সাংসদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা করতে চলেছে ইমরান খান সরকার৷

পাকিস্তানের বিরোধী দল পিএমল-এন এর সাংসদ সর্দার আয়াজ সাদিক গত বুধবার পাকিস্তানের সংসদে দাঁড়িয়েই দাবি করেন, অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি না দিলে ভারতের হামলার ভয়ে রীতিমতো সিঁটিয়ে ছিলেন পাকিস্তানের তাবড় মন্ত্রী থেকে শুরু করে সেনা কর্তারা৷ ওই সাংসদের কথা অনুযায়ী, একটি সরকারি বৈঠকে বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি রীতিমতো আতঙ্কিত কণ্ঠে বলেন, 'ভগবানের দোহাই, অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দিন৷ নাহলে ভারত হামলা করবে৷' ওই বৈঠকে পাক সেনা প্রধান কোমর জাভেদ বাজওয়ার হাঁটু কাপছিল বলেও চাঞ্চল্যকর দাবি করেন পাকিস্তানের এই সাংসদ৷

এই মন্তব্যে স্বভাবতই মুখ পুড়েছে পাকিস্তানের৷ কারণ এতদিন তাদের দাবি ছিল শান্তির বার্তা দিতেই উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দিয়েছিল তারা৷ বিরোধী দলের সাংসদ সাদিক অভিযোগ করেন, ভারতের হামলার কোনও পরিকল্পনা ছিল না৷ তা সত্ত্বেও মাথা ঝুঁকিয়ে অভিনন্দনকে ফেরত পাঠায় ইমরান খান সরকার৷

যদিও এই মন্তব্যের মাশুল চোকাতে হতে পারে পাকিস্তানের বিরোধী দলের এই সাংসদকে৷ কারণ ইতিমধ্যেই দেশের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী ইজাজ শাহ জানিয়েছেন,সাদিকের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা করার কথা ভাবা হচ্ছে৷ কারণ পুলিশের কাছে তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ দায়ের হয়েছে৷ তিনি আরও বলেন, যাঁরা ভারতের হয়ে ওকালতি করতে চান, তাঁদের অমৃতসরে চলে যাওয়াই ভাল৷ ইতিমধ্যেই সাদিককে বিশ্বাসঘাতক আখ্যা দিয়ে লাহোরে পোস্টার মারা হয়েছে৷

যদিও ইমরান খান সরকার যেভাবে বিরোধীদের দেশদ্রোহী হিসেবে তুলে ধরছে, তার কড়া সমালোচনা করেছে সাদিকের দল পিএমএল-এন৷ তাদের পাল্টা দাবি, যারা সাদিকের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার অভিযোগ আনছে, তাদেরই অতীতে নানা অপরাধের সঙ্গে যুক্ত থাকার রেকর্ড রয়েছে৷

পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর গত বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে বেশ কিছু জঙ্গি ঘাঁটি উড়িয়ে দেয় ভারতীয় বায়ুসেনা৷ এর পরের দিন আকাশে পাকিস্তানের যুদ্ধবিমানের সঙ্গে লড়াইয়ের সময় ভেঙে পড়ে উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের মিগ ২১৷ তার আগে অবশ্য পাক বায়ুসেনার একটি এফ ১৬ যুদ্ধবিমানকে ধ্বংস করেন তিনি৷ পাকিস্তানের হাতে বন্দি হওয়ার পর ১ মার্চ মুক্তি পান ৩৭ বছরের এই উইং কম্যান্ডার৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: November 2, 2020, 8:56 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर