কাশ্মীর নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছতে মরিয়া পাক প্রশাসন

কাশ্মীর নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছতে মরিয়া পাক প্রশাসন

যে কোনও ভাবে কাশ্মীর নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছতে মরিয়া পাক প্রশাসন। অন্তত এনিয়ে সমঝোতার বার্তা দিয়েই রাখতে চাইছেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

  • Share this:

#লাহোর: যে কোনও ভাবে কাশ্মীর নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছতে মরিয়া পাক প্রশাসন। অন্তত এনিয়ে সমঝোতার বার্তা দিয়েই রাখতে চাইছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। সন্ত্রাস দমনে কার্যকরী ব্যবস্থা নিচ্ছে তাঁর প্রশাসন। ভারত সহ আন্তর্জাতিক জগতকে আশ্বাস ইমরান খানের।

কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতায় রাজি ডোনাল্ড ট্রাম্প। নরেন্দ্র মোদি এই প্রস্তাব আদৌ দিয়েছিলেন কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে কাশ্মীর নিয়ে শুধু মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রস্তাবেই ভরসা রাখছেন না পাক প্রধানমন্ত্রী। বরং ভারতের সঙ্গে সরাসরি আলোচনার দরজা খুলে রাখতে চাইছেন।

আমেরিকা সফররত পাক প্রধানমন্ত্রী একটি মার্কিন থিঙ্কট্যাঙ্কের সভায় অংশ নেন। সেখানেই কাশ্মীর নিয়ে সমঝোতায় আলোচনার প্রস্তাব ইমরানের। কাশ্মীরবাসীর দাবি নিয়ে অবশ্য পাকিস্তানের পুরনো অবস্থান তুলে ধরেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

উরি ও পুলওয়ামা হামলার পর ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে প্রবল উত্তেজনা। যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি হয়। সেই পুলওয়ামা হামলায় দায় সরাসরি ঝেড়ে ফেলেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ৷

সন্ত্রাসে মদত নিয়ে আন্তর্জাতিক দুনিয়ায় প্রবল চাপে পাকিস্তান। ঝুলছে আর্থিক নিষেধাজ্ঞার খাঁড়া। দেশ থেকে সন্ত্রাসবদীদের নির্মুল করা নিয়েও প্রতিশ্রুতি পাক প্রধানমন্ত্রীর।

আন্তর্জাতিক সংগঠনের মঞ্চ থেকে ফিল গুড বার্তা দেওয়ারই চেষ্টা পাক প্রধানমন্ত্রীর। যার পরপরই এক রিপাবলিকান সেনেটর একটি টুইট করেন। যা বাংলা করলে দাঁড়ায়, ভূতের মুখে রামনাম শুনলে অবাক না হয়ে পারা যায়।

First published: July 25, 2019, 9:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर