• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • Omicron: এক সপ্তাহে ৩ শতাংশ থেকে ৭৩ শতাংশ! আমেরিকায় মোট আক্রান্তের মধ্যে ওমিক্রন সংক্রমণ বাড়ছে লাফিয়ে

Omicron: এক সপ্তাহে ৩ শতাংশ থেকে ৭৩ শতাংশ! আমেরিকায় মোট আক্রান্তের মধ্যে ওমিক্রন সংক্রমণ বাড়ছে লাফিয়ে

প্রতীকী চিত্র

প্রতীকী চিত্র

Covid 19: ইতিমধ্যে সিডিসি-র তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এই একই চিত্র দেখা যেতে পারে গোটা পৃথিবীতেই। সারা পৃথিবীতেই ঢেউ তুলতে পারে এই ওমিক্রন।

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: আমেরিকায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনার ওমিক্রন প্রজাতির সংক্রমণ (Omicron। গত সপ্তাহে যেখানে মোট করোনা আক্রান্তের মধ্যে ৩ শতাংশের শরীরে ওমিক্রনের সংক্রমণ ধরা পড়েছিল, এক সপ্তাহের মধ্যে সেই শতাংশের হিসাব পৌঁছে গিয়েছে প্রায় ৭৩ শতাংশে। অর্থাৎ মোট যতজনের জিনোম সিকোয়েন্সিং করা হচ্ছে, তার ৭৩ শতাংশের শরীরে ধরা পড়ছে ওমিক্রন। গত সপ্তাহেই সেই শতাংশের হিসাব ছিল ৩ শতাংশ।

    ব্রিটেন ও আমেরিকায় ওমিক্রনের সংক্রমণ বারংবার আতঙ্ক তৈরি করেছে শেষ কয়েকদিনে। সেখানে কার্যত লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে করোনার সংক্রমণ। অন্য দিকে ডেল্টা প্রজাতির করোনা সংক্রমণ অপেক্ষাকৃত অনেকটাই কমেছে। ফলে এই আমেরিকা ও ব্রিটেনে এখন প্রধান আতঙ্কের কারণ ওমিক্রন প্রজাতি। জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ে ওমিক্রন প্রজাতির সংক্রমণ বৃদ্ধির হার তাই চিন্তা বাড়াচ্ছে প্রশাসনের।

    আরও পড়ুন: বড়দিন থেকেই মেট্রোর সূচিতে বড় বদল, যাত্রীদের সুবিধায় আরও ট্রেন

    মার্কিন প্রশাসনের পক্ষ থেকে মনে করা হচ্ছে, এ ভাবে যদি প্রতিনিয়ত ওমিক্রন প্রজাতির সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার চিত্র দেখা যায়, তা হলে এই সংক্রমণও একটি ঢেউ হিসাবে চিহ্নিত হতে পারে। তাতেই বড়সড় চাপ তৈরি হতে পারে আমেরিকার স্বাস্থ্য পরিকাঠামোয়। ইতিমধ্যে সিডিসি-র তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এই একই চিত্র দেখা যেতে পারে গোটা পৃথিবীতেই। সারা পৃথিবীতেই ঢেউ তুলতে পারে এই ওমিক্রন।

    আরও পড়ুন: কলকাতায় ফের চালু হচ্ছে রাত্রিকালীন বাস পরিষেবা, কী জানালেন ফিরহাদ হাকিম? দেখুন...

    আমেরিকার এমনও একাধিক স্থান রয়েছে, যে খানে প্রায় সমস্ত সংক্রমণই ওমিক্রনের সংক্রমণ। নিউ ইয়র্কে নতুন করোনা সংক্রমণের ৯২ শতাংশই ওমিক্রন, আবার ওয়াশিংটনে সংক্রমণের ৯৬ শতাংশই ওমিক্রনের সংক্রমণ। ফলে বিভিন্ন স্থানে এই প্রজাতি যে চাপ তৈরি করবে, তা বলাই বাহুল্য। ইতিমধ্যে আমেরিকায় টিকাকরণ নিয়ে আরও জোর দিতে শুরু করেছে বাইডেন প্রশাসন। সকলকেই আবেদন করা হচ্ছে, যাতে তাঁরা দ্রুত টিকা নিয়ে নেন। কিন্তু টিকা নেওয়ার বিষয়ে অনেকের মধ্যেই এখনও অনীহা রয়েছে। সেই কারণেই প্রচারে জোর দিতে চাইছে বাইডেন প্রশাসন।

    Published by:Uddalak B
    First published: