ফ্রান্সে মহিলার গলা কেটে খুন, নিসে গির্জা চত্বরে নিহত ৩

ফ্রান্সের নিসে ভয়াবহ হামলা! ছুরিকাঘাতে মৃত্যু ২ জনের, ১ জন গুরুতর আহত

ফ্রান্সের নিসে ভয়াবহ হামলা! ছুরিকাঘাতে মৃত্যু ২ জনের, ১ জন গুরুতর আহত

  • Share this:

    #ফ্রান্স: ফ্রান্সের নিসে নৃশংস হামলা!  ঐতিহাসিক নতর দাম গির্জার কাছে গলা কেটে খুন! নিহত ১ মহিলা-সহ ৩।  নিসের মেয়র ক্রিস্টিয়ান এসট্রোসি জানান, ১ জন গ্রেফতার হয়েছে। তাঁর মতে, এই নৃশংস হিংসার ঘটনা নিঃসন্দেহে সন্ত্রাসবাদী হামলা। সরকারের তরফে শহরবাসীকে অনুরোধ করা হয়েছে শহরের যেখানে জঙ্গিরা হমলা চালায়, সেই স্থান এড়িয়ে চলতে। ফরাসি প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, এক মহিলার গলা কেটে খুন করা হয়েছে। ছুরি দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে আরও ২ জনকে।  নির্মম ঘটনায় শোকস্তব্ধ দেশবাসী।  ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে মৃতের স্মৃতির উদ্দেশে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী Jean Castex জানান, '' এই হিংসার ঘটনা আমাদের দেশের সামনে খুব গম্ভীর এবং নতুন একটা চ্যালেঞ্জ খাড়া করল।''

    নিসের মেয়র ক্রিশ্চিয়ান এস্ত্রোসি টুইট করে জানিয়েছেন, নিসের বিখ্যাত নতর দাম গির্জার কাছে ওই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। পুলিশ হানাদারকে গ্রেফতার করেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই হামলার জেরে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়াও বেশ কয়েক জন আহত। হামলাকারী কোনও জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

    প্যারিসের কাছে কনফ্লান্স-সেন্ট-অনরিন এলাকায় শিক্ষককে গলা কেটে খুনের ভয়াবহ স্মৃতি এখন দগদগে, এর মধ্যেই ফের একই নৃশংস ঘটনার সাক্ষী থাকল ফ্রান্স।

    অন্যদিকে, বুধবার নতুন করে লকডাউন জারি হয়েছে ফ্রান্সে। করোনা মোকাবিলায় দ্বিতীয় দফার লকডাউন ঘোষণা হয়েছে ইওরোপের আরও একটি দেশ জার্মানিতে।পশ্চিমী অর্থনীতির প্রধান দুই স্তম্ভ ফের বন্ধ থাকছে এই খবর বাজারে আসতেই শেয়ার বাজারে ধস নামতে শুরু করে।

    ফ্রান্সে প্রতিদিন নতুন করে প্রায় ৩৬ হাজার দেশবাসী করোনা সংক্রমিত হচ্ছেন। পরিস্থিতি বুঝে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রন কার্ফু জারি করেন। জাতির উদ্দেশ্যে প্রদত্ত টিভি ভাষণে তিনি বলেন, অন্যান্য প্রতিবেশীর মতো আমাদের ঘরেও নতুন করে ভাইরাসের ঢেউ আছড়ে পড়ছে। তাই আমরা চাইছি আবার নতুন করে লকডাউন জারি করতে। শুক্রবার থেকেই লকডাউন চালু হচ্ছে ফ্রান্সে। বলা হচ্ছে ঘরের বাইরে বেরতেও পুলিশি অনুমতির প্রয়োজন হবে। অত্যাবশ্যকীয় পণ্য কেনার ব্যাপারে ছাড়পত্র পাওয়া যাবে। ওয়ার্ক ফ্রম হোমেই জোর দেওয়া হবে।

    বুধবারই জার্মান চান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল জানিয়ে দেন আগামী ২ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত লকডাউন জারি থাকবে জার্মানি জুড়ে। বন্ধ থাকবে সমস্ত পানশালা ও রেস্তোরাঁ। বন্ধ থাকবে সিনেমা হল,থিয়েটার, কনসার্ট, খেলার মাঠ,বাণিজ্য প্রদর্শনী। শর্তসাপেক্ষ ভাবে কয়েকটি দোকান খোলা থাকতে পারে।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published: