Home /News /international /
War In Ukraine: রাশিয়াকে তীব্র আক্রমণ ন্যাটোর, ইউক্রেনে রসদ জোগাড় করতে দোকান, এটিএমে লম্বা লাইন

War In Ukraine: রাশিয়াকে তীব্র আক্রমণ ন্যাটোর, ইউক্রেনে রসদ জোগাড় করতে দোকান, এটিএমে লম্বা লাইন

War In Ukraine: ন্যাটোর পক্ষ থেকে সেক্রেটারি জেনারেল জেনস স্টলটেনবার্গ বলেন, সমস্ত দিক থেকে রাশিয়ার কার্যকলাপের বিরোধিতা করছে ন্যাটো।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: রাশিয়াকে তীব্র সমালোচনা করল ন্যাটো। ইউক্রেনে রাশিয়ার সেনা প্রবেশের পরেই একটি জরুরি বৈঠকে বসেছিল ন্যাটো। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আয়োজিত সেই বৈঠকে রাশিয়ার প্রতিটি পদক্ষেপের বিরুদ্ধে সমালোচনার সুর তোলা হয়। পরে সাংবাদিক বৈঠকে ন্যাটোর পক্ষ থেকে সেক্রেটারি জেনারেল জেনস স্টলটেনবার্গ বলেন, সমস্ত দিক থেকে রাশিয়ার কার্যকলাপের বিরোধিতা করছে ন্যাটো। পাশাপাশি, রাশিয়াকে বার্তা দেওয়া হচ্ছে, যাতে তারা দ্রুত ইউক্রেন থেকে সেনা সরিয়ে নেয়।

    রাশিয়া দেশে প্রবেশ করার পর থেকে পাল্টা লড়াইয়ের কথা বারবার বলেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি। দিনে দ্বিতীয় বার ভাষণের সময় জেলেনস্কি বললেন, দেশের মানুষকে এক স্বাধীনতার যুদ্ধ লড়তে হবে। দেশের যে মানুষেরা যুদ্ধে লড়াই করতে চাইবেন, তাঁদের হাতে অস্ত্র তুলে দেবে ইউক্রেন প্রশাসন। কার্যত দেশের প্রতিটি মানুষকেই একসঙ্গে লড়াই করার কথা বললেন তিনি।

    আরও পড়ুন : ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয় পড়ুয়াদের জন্য চালু হল হেল্পলাইন, জানাল বিদেশমন্ত্রক

    এই ভাষণ থেকেই তিনি রাশিয়ার এই আক্রমণকে কাপুরুষচিত বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, দেশের মানুষকে রক্তদান করার জন্য প্রস্তুত থাকতে। পাশাপাশি দেশের প্রাক্তন সেনাকর্মীদের বলেন এগিয়ে আসতে যুদ্ধের জন্য। সব মিলিয়ে রাশিয়ার বিরুদ্ধে পূর্ণমাত্রায় যুদ্ধে যাওয়ার কথাই বললেন তিনি। যদিও ন্যাটোর পক্ষ থেকে সরাসরি রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশ নেওয়ার কথা বলা হয়নি। বলা হয়েছে, রাশিয়ার কারণে যে নিরাপত্তার সমস্যা তৈরি হয়েছে, তা রুখে দিতে প্রস্তুত থাকবে ন্যাটোর বন্ধু দেশগুলি। পাশাপাশি ইউক্রেনকে সাহায্য করবে।

    আরও পড়ুন : মোদির কথা শুনে যুদ্ধ বন্ধ করতে পারে রাশিয়া, ভারতকে অনুরোধ ইউক্রেনের

    অন্য দিকে ইউক্রেনের তরফ থেকে ভারতের থাকা রাষ্ট্রদূত ইগর পোলিখা নরেন্দ্র মোদিকে অনুরোধ করে বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে ভাল সম্পর্ক রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। পৃথিবীর অন্য দেশের নেতৃত্বের কথা শোনার বিষয়ে সন্দেহ থাকলেও আমার মনে হয় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কথা ভ্লাদিমির পুতিন শুনবেন।

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: Ukraine crisis

    পরবর্তী খবর