করোনার ওষুধ নিয়ে রিসার্চে ভুল! প্রকাশিত গবেষণা প্রত্যাহারের আর্জি

Representative Image

গবেষণাটি প্রায় ৯৬হাজার রোগীর ওপর চালানো হয়৷ এবং পরীক্ষার ভিত্তিতে জানানো হয় যে হাইড্রক্সিক্লোরকইন এবং ক্লোরকুইন আদতে কোনও সমাধান নয়৷ বরং এতে অসুস্থতার ঝুঁকি আরও বেড়ে যায়৷

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: করোনার ওষুধ নিয়ে আন্তর্জাতিক Lancet পত্রিকায় প্রকাশিত একটি রিসার্চ পেপার প্রত্যাহার করে নিলেন তিন গবেষক৷ করোনার চিকিৎসার ক্ষেত্রে অ্যান্টি ম্যালেরিয়াল ড্রাগ ব্যবহারে যে ঝুঁকির ওপর তাঁরা পরীক্ষা চালিয়েছিলেন এবং তথ্য সামনে এনেছিলেন, তাতে গলদ রয়েছে বলে জানা যায়৷ এই গবেষণাটি করেন ৪জনের একটি দল৷ যার মধ্যে ৩জন তাঁদের প্রকাশিত পেপার প্রত্যাহার করে নিলেন৷ গবেষণার জন্য যে ডেটা বা তথ্য মিলেছিল, তাতে সমস্যা ছিল বলেই অভিযোগ গবেষকদের৷

    'হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন এবং ক্লোরকুইন, কোনও ওষুধই করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়তে সক্ষম নয়৷ উল্টে এতে সমস্যা আরও বাড়বে৷ বাড়বে প্রাণহানির ঝঁকি'৷ এমনই জানানো হয় গবেষণায়৷ প্রায় ৯৬হাজার মানুষের ওপর পরীক্ষা চালিয়ে ডেটা জোগার করা হয়৷ তার ভিত্তিতে হয় এই গবেষণা৷

    এই তথ্য সামনে আসতেই এই ওষুধ দিয়ে ক্লিনিকাল ট্রায়ল বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা৷ কিন্তু এরপরই বিশ্বজুড়ে গবেষক ও বিশেষজ্ঞরা সরব হন৷ যে তথ্যের ভিত্তিতে এই গবেষণা করা হয়েছে, তা ভুল বলে দাবি তোলেন তাঁরা৷

    হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মন্দির মেহর এই গবেষণার প্রধান ছিলেন৷ তাঁর নেতৃত্বে কাজ করেন ফ্রাঙ্ক রুসছিটজকা (ইউনিভার্সিটি হসপিটাল জুরিখ), অমিত পটেল (ইউনিভার্সিটি উটাহ) বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানান যে তথ্য ওপর কাজ চলেছে, সেটা অন্য বিশেষজ্ঞ দল দিয়ে রিভিউ করানোর চেষ্টা চলছে৷

    এই তথ্যগুলি জোগার করে শিকাগোর হেল্থ কেয়ার অ্যানালিটিক্স ফার্ম৷ নিজেদের তুলে ধরা তথ্য পুর্নমূল্যায়নের বিষয়ে একেবারে উদ্যোগী নয় এই সংস্থা৷

    'যে যেভাবে বিশ্বজুড়ে করোনার ওষুধ নিয়ে কাজ হচ্ছে, তাতে আমাদের করা গবেষণার ওপর জোর দিতে পারছি না৷ প্রাথমিকভাবে যে তথ্যের ওপর গবেষণার কাজ এগিয়েছে সেটাকে পুরোপুরি ঠিক বলে দাবি করতে পারছি না৷ খুবই দুঃখজনক এই ঘটনা'৷ এমন বক্তব্য রেখে নিজেদের পেশ করা পেপার প্রত্যাহার করার আর্জি জানান গবেষকরা৷

    ভাল কিছুর জন্য এই কাজ তাঁরা করেছিলেন, তবে তা না হওয়ায় পাঠক, এবং Lancet-এর এডিটারের কাছেও ক্ষমা চেয়েছেন তাঁরা৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: