বাবার শেষ ইচ্ছা রাখতে তাঁর চিতাভষ্ম পানশালার ড্রেনে ফেললেন ছেলে! ভাইরাল ভিডিও

বাবার শেষ ইচ্ছা রাখতে তাঁর চিতাভষ্ম পানশালার ড্রেনে ফেললেন ছেলে! ভাইরাল ভিডিও

৬৬ বছর বয়সে মারা যান তিনি । কিন্তু মৃত্যুর আগে ছেলে এবং মেয়েকে বহুবার নিজের শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন ওই বৃদ্ধ । সে কথাই অক্ষরে অক্ষরে পালন করলেন ছেলে ।

৬৬ বছর বয়সে মারা যান তিনি । কিন্তু মৃত্যুর আগে ছেলে এবং মেয়েকে বহুবার নিজের শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন ওই বৃদ্ধ । সে কথাই অক্ষরে অক্ষরে পালন করলেন ছেলে ।

  • Share this:

    #ইংল্যান্ড: কতরকম আজব ইচ্ছাই না হয় মানুষের । হয়তো বহু বছর ধরে সেই ইচ্ছাটাকে মনের ভিতরে লালন করেন, কিন্তু কখনও বাস্তবে তা করা হয়ে ওঠে না । বেঁচে থাকবে যে সাধ পূরণ হয়নি, অনেকেই চান অন্তত মৃত্যুর পরেও সেই স্বপ্ন পূরণ হোক । তাই তো, শেষ ইচ্ছার কথা প্রিয়জনদের বলে যান অনেকে । যেমন বলে গিয়েছিলেন এই ব্যক্তিও । কিন্তু তা বলে এমন অদ্ভুত ইচ্ছা!

    মধ্য ইংল্যান্ডের কোভেন্ট্রি শহর । সেখানকারই বাসিন্দা ছিলেন ম্যাক গ্লিনচে । ৬৬ বছর বয়সে মারা যান তিনি । কিন্তু মৃত্যুর আগে ছেলে ওয়েন এবং মেয়ে ক্যাসিডি’কে বহুবার নিজের শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন ম্যাক । বাবার কথা মতো সে কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন করলেন ওয়েন এবং ক্যাসিডি । বাবার চিতাভষ্ম বিয়ারে মিশিয়ে ফেলে দিলেন ম্যাকের প্রিয় পানশালার সামনের ড্রেনে ।

    গোটা ঘটনাটির একাধিক ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় । বাবার চিতাভষ্ম ড্রেনে ফেলছেন ছেলে, এই ঘটনা সকলকে অবাক করলেও ওয়েন নিজেই জানিয়েছেন কেন তিনি এ কাজ করেছেন । পানশালার সামনে পরিবারের সকলের উপস্থিতি এ কাজ করার সময় ছোট্ট একটি বক্তব্য রাখেন ওয়েন । সেখানেই তিনি বলেন, হোলিবুশ নামের এই পাবটি তাঁর বাবার অত্যন্ত পছন্দের জায়গা ছিল । রোজ হাঁটতে হাঁটতে এই পাবে চলে আসতেন ম্যাক । অনেকটা সময় এখানে কাটাতেন । বিয়ার খেতে খুব ভালবাসতেন তাঁর বাবা ।

    শুধু তাই নয়, ম্যাক বারংবার বাড়িতে বলতেন, তাঁর মৃত্যুর পর যেন তাঁর চিতাভষ্ম এই পাবের সামনের নিকাশিনালার মধ্যে ফেলে দেওয়া হয় । যাতে তিনি এই এলাকার আশেপাশেই থাকেন । নালার মধ্যে দিয়ে শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়াতে পারেন । সে কারণেই বাবার মৃত্যুর পর তাঁর ভষ্ম নিয়ে ওই পাবে আসেন ওয়েন-সহ পরিবারের সদস্যরা । এক চামচ ভষ্ম নিয়ে বিয়ারের মধ্যে মিশিয়ে দেন ওয়েন । বাবা’কে স্মরণ করেন । তারপর সকলের সম্মতি নিয়ে সেই বিয়ার ঢেলে দেন সামনের ড্রেনে ।

    Published by:Simli Raha
    First published: