• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • MAN POURS FATHERS ASHES IN DRAIN OUTSIDE HIS FAVOURITE PUB TO HONOUR HIS LAST WISH SR

বাবার শেষ ইচ্ছা রাখতে তাঁর চিতাভষ্ম পানশালার ড্রেনে ফেললেন ছেলে! ভাইরাল ভিডিও

৬৬ বছর বয়সে মারা যান তিনি । কিন্তু মৃত্যুর আগে ছেলে এবং মেয়েকে বহুবার নিজের শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন ওই বৃদ্ধ । সে কথাই অক্ষরে অক্ষরে পালন করলেন ছেলে ।

৬৬ বছর বয়সে মারা যান তিনি । কিন্তু মৃত্যুর আগে ছেলে এবং মেয়েকে বহুবার নিজের শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন ওই বৃদ্ধ । সে কথাই অক্ষরে অক্ষরে পালন করলেন ছেলে ।

  • Share this:

    #ইংল্যান্ড: কতরকম আজব ইচ্ছাই না হয় মানুষের । হয়তো বহু বছর ধরে সেই ইচ্ছাটাকে মনের ভিতরে লালন করেন, কিন্তু কখনও বাস্তবে তা করা হয়ে ওঠে না । বেঁচে থাকবে যে সাধ পূরণ হয়নি, অনেকেই চান অন্তত মৃত্যুর পরেও সেই স্বপ্ন পূরণ হোক । তাই তো, শেষ ইচ্ছার কথা প্রিয়জনদের বলে যান অনেকে । যেমন বলে গিয়েছিলেন এই ব্যক্তিও । কিন্তু তা বলে এমন অদ্ভুত ইচ্ছা!

    মধ্য ইংল্যান্ডের কোভেন্ট্রি শহর । সেখানকারই বাসিন্দা ছিলেন ম্যাক গ্লিনচে । ৬৬ বছর বয়সে মারা যান তিনি । কিন্তু মৃত্যুর আগে ছেলে ওয়েন এবং মেয়ে ক্যাসিডি’কে বহুবার নিজের শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন ম্যাক । বাবার কথা মতো সে কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন করলেন ওয়েন এবং ক্যাসিডি । বাবার চিতাভষ্ম বিয়ারে মিশিয়ে ফেলে দিলেন ম্যাকের প্রিয় পানশালার সামনের ড্রেনে ।

    গোটা ঘটনাটির একাধিক ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় । বাবার চিতাভষ্ম ড্রেনে ফেলছেন ছেলে, এই ঘটনা সকলকে অবাক করলেও ওয়েন নিজেই জানিয়েছেন কেন তিনি এ কাজ করেছেন । পানশালার সামনে পরিবারের সকলের উপস্থিতি এ কাজ করার সময় ছোট্ট একটি বক্তব্য রাখেন ওয়েন । সেখানেই তিনি বলেন, হোলিবুশ নামের এই পাবটি তাঁর বাবার অত্যন্ত পছন্দের জায়গা ছিল । রোজ হাঁটতে হাঁটতে এই পাবে চলে আসতেন ম্যাক । অনেকটা সময় এখানে কাটাতেন । বিয়ার খেতে খুব ভালবাসতেন তাঁর বাবা ।

    শুধু তাই নয়, ম্যাক বারংবার বাড়িতে বলতেন, তাঁর মৃত্যুর পর যেন তাঁর চিতাভষ্ম এই পাবের সামনের নিকাশিনালার মধ্যে ফেলে দেওয়া হয় । যাতে তিনি এই এলাকার আশেপাশেই থাকেন । নালার মধ্যে দিয়ে শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়াতে পারেন । সে কারণেই বাবার মৃত্যুর পর তাঁর ভষ্ম নিয়ে ওই পাবে আসেন ওয়েন-সহ পরিবারের সদস্যরা । এক চামচ ভষ্ম নিয়ে বিয়ারের মধ্যে মিশিয়ে দেন ওয়েন । বাবা’কে স্মরণ করেন । তারপর সকলের সম্মতি নিয়ে সেই বিয়ার ঢেলে দেন সামনের ড্রেনে ।

    Published by:Simli Raha
    First published: