করোনার ভয় টানা ৩ মাস বিমান টার্মিনালেই ঘর বাঁধলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত

করোনার ভয় টানা ৩ মাস বিমান টার্মিনালেই ঘর বাঁধলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত
আদিত্য সিং

লস অ্যাঞ্জেলসে ও'হেয়ার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দীর্ঘদিন বসবাস করার কারণে এক ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

  • Share this:

    #শিকাগো: মনে পড়ে? ২০০৪ সালে নির্মিত 'দ্য টার্মিনাল' ছবিটিতে টম হ্যাঙ্কস অভিনীত চরিত্রটি কয়েক মাস ধরে জেএফকে বিমানবন্দরকেই নিজের ঘর বানিয়েছিলেন। কারণ, তাঁর দেশে ফেরার অনুমতি ছিল না। অস্থায়ী বাসস্থানের জেরে সে যাযাবরের মতো ঘুরে বেড়াত। ছবিটা আংশিক ভাবে 'মাহরান করিমির' সত্যি ঘটনা দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিল। যিনি দীর্ঘ ১৮ বছর চার্লস ডি গল বিমানবন্দর টার্মিনালে অবস্থান করেছিলেন।

    সম্প্রতি অনুরূপ একটি ঘটনায় তাজ্জব হয়েছে সকলেই। লস অ্যাঞ্জেলসে ও'হেয়ার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দীর্ঘদিন বসবাস করার কারণে এক ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ৩৬ বছর বয়সী আদিত্য সিং নামক ওই ব্যাক্তি কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার আশাঙ্কায় টানা তিন মাস ধরে বিমানবন্দরের ভিতরেই থাকছিলেন। গত ১৯ অক্টোবর তিনি লস অ্যাঞ্জেলস থেকে ও'হেয়ার বিমানবন্দরে এসে পৌঁছন। করোনার ভয় তিনি উড়ান এড়ানোর জন্য টার্মিনালেই একটি সুরক্ষিত জায়গায় থাকা শুরু করেন।


    সিং জানিয়েছে, ব্রিটেনের নয়া স্ট্রেন এবং অন্যান্য দেশে করোনার সংক্রমণ হু হু করে বেড়ে যাওয়ায় সে উড়ানে ভয় পাচ্ছিল। কোনওভাবে সে একজন কর্মচারীর শংসাপত্র নিতে সক্ষম হয়েছিল। তারপর থেকে পাকাপোক্ত ভাবে টার্মিনাল থ্রি-তে থাকতে শুরু করে সে। ঘটনাটি নজরে আসে ১৬ জানুয়ারি, যখন দু’জন বিমানে কর্মরত ব্যাক্তি সিং-কে সনাক্ত করেন।

    সূত্রের খবর, সিং-কে বিমানবন্দরের পরিচপত্র দেখানোর কথা বলা হলে, সে তা কর্তৃপক্ষদের কাছে উপস্থিত করতে পারেনি। উলটে চুরি করা একটি আইডি নিজের বলে বিমান কর্তৃপক্ষের সামনে দাবি করে, যেটা তাঁদের ধারণা কিছু দিন আগে হারিয়ে গিয়েছিল। এরপরেই বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় অন্যায় ভাবে থাকার দরুণ পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।এই ঘটনার পর শিকাগো বিমান চলাচল বিভাগ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, বিমানবন্দর এবং যাত্রীদের সুরক্ষা সবার আগে। যদিও এই ঘটনায় প্রাথমিক তদন্তে আমরা নির্ধারণ করতে সক্ষম হয়েছি যে ওই ভদ্রলোক বিমানবন্দর বা ভ্রমণকারীদের কাছে কোনও ঝুঁকি তৈরি করেনি। তবে আমরা বিষয়টির তদন্ত চালিয়ে যাব এবং ভবিষ্যতে এরকম ঘটনা যাতে না ঘটে সেই দিকে নজর রাখা হবে। উল্লেখ্য, সিং-কে আপাতত ছেড়ে দেওয়া হয়েছে, তবে পুলিশের কাছে তাঁকে হাজিরা দিতে হয়। সে এখন বেকার, লস অ্যাঞ্জেলস-এ একটি শহরে সে এক বন্ধুর সঙ্গে থাকছে।

    Published by:Somosree Das
    First published: