ব্যস্ত রাস্তায় স্ত্রীকে পিটিয়ে মারলেন স্বামী, দাঁড়িয়ে দেখল জনতা! চিনে চরম অমানবিকতা

ব্যস্ত রাস্তায় স্ত্রীকে পিটিয়ে মারলেন স্বামী, দাঁড়িয়ে দেখল জনতা! চিনে চরম অমানবিকতা

প্রতীকী ছবি৷

চিনের বিভিন্ন গণমাধ্যমেই এই ঘটনার ছবি ছড়িয়ে পড়ে৷ তার পর তা ভাইরাল হয়৷

  • Share this:

    #বেজিং: ব্যস্ত রাস্তার মধ্যেই নিজের স্ত্রীকে পেটাচ্ছেন স্বামী৷ মারের চোটে ধীরে ধীরে মৃত্যুর দিকে ঢলে পড়ছেন মহিলা৷ অথচ রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখলেও তাতে বাধা দিচ্ছেন না কেউ৷ চিনের শৌঝউ শহরের এই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই ভাইরাল হয়েছে৷ যে ভিডিও দেখে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, আশেপাশে অত মানুষ থাকলেও কেন কেউ এগিয়ে মারমুখী ওই ব্যক্তিকে আটকালেন না?

    চিনের বিভিন্ন গণমাধ্যমেই এই ঘটনার ছবি ছড়িয়ে পড়ে৷ তার পর তা ভাইরাল হয়৷ জানা গিয়েছে শনিবার সকালে ওই ঘটনাটি ঘটে৷ ওই দম্পতি একটি ইলেক্ট্রিক স্কুটারে চড়ে যাওয়ার সময় একটি গাড়ির সঙ্গে তাদের ধাক্কা লাগে৷ এর পরই গন্ডগোলের সূত্রপাত৷ অভিযোগ, নিজের স্ত্রীর উপরে কোনও কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁকে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে ওই ব্যক্তি৷

    ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা গিয়েছে, যেখানে এই ঘটনা ঘটছে তার চারপাশে পথচারী থেকে শুরু করে সাইকেল, মোটরসাইকেল আরোহী দাঁড়িয়ে রয়েছেন৷ অথচ মহিলাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেননি কেউ৷ ভিডিও দেখে অনেকেই প্রশ্ন করেছেন, ওই ব্যক্তির কাছে কোনও অস্ত্র না থাকা সত্ত্বেও কেন কেউ মহিলার সাহায্যে এগিয়ে গেলেন না?

    পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, অভিযুক্ত ব্যক্তিকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে৷ গোটা ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে৷ চিনের সমাজকর্মীদের অনেকেরই অভিযোগ, সেদেশে প্রায়শই পারিবারিক হিংসার ঘটনাকে উপেক্ষা করা হয়৷ পারিবারিক হিংসার ঘটনায় লাগাম পরাতে ২০১৫ সালে কড়া আইন নিয়ে এসেছিল চিন৷ এই আইন অনুযায়ী পারিবারিক হিংসাকে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে ঘোষণা করা হয়৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:
    0