পর্যটকদের সেলফি তুলতে অসুবিধা, সিংহ ছানার পা ভেঙে বসিয়ে রাখা হল বিনোদন পার্কে!

ক্রমাগত পিটিয়ে, পা ভেঙে সিংহ ছানাকে বেঁধে রাখা হল রাশিয়ার একটি সমুদ্র সৈকতের বিনোদন পার্কে ! পাশবিক, অমানবিক, নৃশংস এই ঘটনায় স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

ক্রমাগত পিটিয়ে, পা ভেঙে সিংহ ছানাকে বেঁধে রাখা হল রাশিয়ার একটি সমুদ্র সৈকতের বিনোদন পার্কে ! পাশবিক, অমানবিক, নৃশংস এই ঘটনায় স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

  • Share this:

    #রাশিয়া: পর্যটকদের সেলফি তুলতে অসুবিধে হচ্ছে, যতবারই ক্যামেরা সেট করছেন, ছুটে পালিয়ে যাচ্ছে সিংহ ছানা, বেজায় বিরক্ত পর্যটকেরা! এতে কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ল একদল অসাধু ব্যবসায়ীর। সমাধান হিসেবে পা ভেঙে দেওয়া হল সিংহ শাবকের, যাতে সে সেলফি তোলার সময় ছোটাছুটি করতে না পারে! ক্রমাগত পিটিয়ে, পা ভেঙে বেঁধে রাখা হল রাশিয়ার একটি সমুদ্র সৈকতের বিনোদন পার্কে ! পাশবিক, অমানবিক, নৃশংস এই ঘটনায় স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

    জানা যায়, সিংহ শাবকটির নাম সিমবা। কয়েক মাসের সিমবাকে কেড়ে আনা হয় তার মায়ের কাছ থেকে। এরপর সামনের পা দু’টো ভেঙে বেঁধে রাখা হয় একটি বিনোদন পার্কে, পর্যটকেরা যাতে তার সঙ্গে নির্বিঘ্নে সেলফি তুলতে পারেন, সে কোনও ভাবেই ছুটে না পালিয়ে যায়। এইভাবে বড় হতে থাকে সিমবা। সম্প্রতি একটি পশুপ্রেমী সংগঠন তাকে উদ্ধার করে। সংগঠনের তরফে ইউরিয়া আগিভা জানান, ''সিংহ শাবকটিকে খেতে দিতই না বলা যায়। গায়ে ঢেলে দেওয়া হত বরফ ঠান্ডা জল।''

    এত অত্যাচারের গর গত গ্রীষ্মে সিমবাকে ছেড়ে দিয়ে আসা হয় রাশিয়ার হাড়কাঁপানো ঠান্ডা অঞ্চল ডাগেস্তানে। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে একটি পশুপ্রেমী সংগঠন, নিয়ে যাওয়া হয় পশুচিকিৎসকের কাছে। অস্ত্রোপচারের পর এখন আবার হাঁটতে পারছে সিমবা। তার এখনকার ভিডিও সোশ্যাল হ্যান্ডেলে পোস্ট করে চিকিৎসক ডালাক্যান জানিয়েছেন, ''কিছু নৃশংস ফোটোগ্রাফার এইভাবে জন্তুদের ওপর অত্যাচার চালায়। এদের হাঁড় ভেঙে বসিয়ে রাখা হয় যাতে পালাতে না পারে আর পর্যটকেরা নির্বিঘ্নে ছবি তুলতে পারে।''

     
    View this post on Instagram
     

    A post shared by Карен Даллакян (@karendallakyan) on

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published: