উদ্ধার বিশাল সোনার ভাণ্ডার! অর্থের আর অভাব থাকবে না 'এই' দেশে!

উদ্ধার বিশাল সোনার ভাণ্ডার! অর্থের আর অভাব থাকবে না 'এই' দেশে!

কোথায় পাওয়া গেল এই বিপুল সোনা?

কোথায় পাওয়া গেল এই বিপুল সোনা?

  • Share this:

    #ইস্তানবুল: বিশাল স্বর্ণ ভাণ্ডার উদ্ধার! পুরো উদ্ধার করা সম্ভব না হলেও, মনে করা হচ্ছে যে প্রায় ৯৯ টন সোনা রয়েছে এই বিরাট গর্তে৷ স্থানীয় সংবাদসংস্থা আনাডোলু এই খবরটি নিশ্চিত করেছে৷ এর সঙ্গে সঙ্গেই হঠাৎ করে খুঁজে পাওয়া এই বিশাল অর্থের খনি উঠে এল খবরের শিরোনামে৷ এমন গোপন সোনার খনির খোঁজ হয়ত অনেক সময় পাওয়া যায়, তবে এর বিষয়টি অনেকটা আলাদা৷ কারণ এই সোনার ভাণ্ডার এতটাই ব্যাপক যে এর মূল্য বহু দেশের জিডিপির থেকে বেশি হবে মনে করা হচ্ছে৷ অনুমান করা হচ্ছে যে, এই সোনার মূল্য ৬ বিলিয়ান ডলার বা ৪৪হাজার কোটি টাকা! ফলে আর অভাব থাকবে না বলেই মনে করা হচ্ছে৷

    ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, মলদ্বীপের(Maldives) জিডিপি ৪.৮৭ বিলিয়ান ডলার, লাইবেরিয়ার (Liberia) ৩.২৯ ডলার, ভূটানের(Bhutan) ২.৫৩ বিলিয়ান ডলার, বুরুন্ডি(Burundi) ৩.১৭ বিলিয়ান ডলার, লেসোথোর (Lesotho)২.৫৮ বিলিয়ান ডলার৷ অর্থাৎ তুরস্কে উদ্ধার সোনার ভাণ্ডারের থেকে অনেক কম এই সব দেশের জিডিপি৷

    কোথায় পাওয়া গেল এই বিপুল সোনা? মধ্য পশ্চিম সোগুটে এই অর্থ ভাণ্ডারের খোঁজ মিলেছে৷ তুরস্ক গাবরেটাস ফার্টিলাইজার প্রোডাকশন অ্যাগ্রিকালচারল ক্রেডিট কোয়াপারেটিভ প্রধান ফাহরেটিন পোরাজে এই খবরটি প্রথম সকলের সঙ্গে ভাগ করে নেন৷ তুরস্কের সংবাদ সংস্থাগুলিকে এই বিপুল ধনের কথা জানান৷

    সেপ্টেম্বর মাসে তুরস্কের মন্ত্রী ফাতেহ ডনমেজ জানান যে ইতিমধ্যেই দেশে ৩৮ টন সোনা উৎপাদন হয়েছে৷ পরবর্তী ৫ বছরে সোনার উৎপাদনের লক্ষ্য ১০০ টন স্থির করা হয়েছে বলে তিনি জানান৷ এর ফলে তুরস্কের অর্থনীতি অনেকটাই চাঙ্গা হবে বলে মত বিশেষজ্ঞদের৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: