Home /News /international /
Afghanistan Crisis: তালিবানদের কাছে মাথা নোয়ানো যাবে না... লড়তে জানে আফগানিস্তানের পঞ্জশির! হারতে জানে না

Afghanistan Crisis: তালিবানদের কাছে মাথা নোয়ানো যাবে না... লড়তে জানে আফগানিস্তানের পঞ্জশির! হারতে জানে না

Photo Courtesy: AP

Photo Courtesy: AP

Panjshir Valley: তালিবানদের হাতে অন্তত আত্মসমর্পণ নয়, তার চেয়ে মৃত্যু ঢের ভাল বলেই মনে করেন আফগানিস্তানের পঞ্জশির প্রদেশের বাসিন্দারা ৷

  • Last Updated :
  • Share this:

কাবুল: শত্রুর কাছে মাথা নোয়ানোর চেয়ে মৃত্যুবরণ করা ঢের ভাল ৷ আফগানিস্তানের পঞ্জশির প্রদেশের যোদ্ধারা এমনটাই মনে করেন ৷ আর তার জন্যই আফগানিস্তান তালিবানদের হাতে চলে গেলেও নিজেদের প্রদেশে লড়াই জারি রেখেছে পঞ্জশির (Panjshir) প্রদেশের মানুষ ৷ তাই গোটা আফগানিস্তান যে তালিবানদের দখলে, তা এখনই বলা যাচ্ছে না ৷

ইতিহাস বলছে, পঞ্জশির বার বার দেখিয়ে দিয়েছে, গোটা আফগানিস্তান দখল করেও পঞ্জশিরে জয় পাওয়া এতটা সহজ কাজ নয় ৷ সাবেক সোভিয়েত সেনা পারেনি। আমেরিকার সেনাবাহিনীও পারেনি। এখন একই সমস্যায় পড়েছে তালিবানরাও ৷

বিদেশি শত্রুর হাত থেকে পঞ্জশিরকে রক্ষা করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা অবশ্যই প্রকৃতির ৷ হিন্দুকুশ পর্বতমালায় প্রচণ্ড ঠান্ডার মধ্যে এই অঞ্চলে স্থানীয়দের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা খুব সহজ কাজ নয় ৷ দুর্গম উপত্যকায় যুদ্ধ করতে গিয়ে বারবার সমস্যায় পড়েছে রাশিয়া, আমেরিকা আর এখন তালিবানরা ৷ ছবির মতো সুন্দর এই উপত্যকার দ্বিতীয় রক্ষাকবচ সেখানকার তাজিক জনগোষ্ঠীর মানুষ। আফগানিস্তানে তাজিক জনগোষ্ঠীর বৃহত্তম বসতি পঞ্জশিরেই।

এই তাজিক জনগোষ্ঠীর মানুষ সর্বশক্তি দিয়ে বংশানুক্রমেই নিজেদের অঞ্চল রক্ষা করে এসেছেন। বরাবরই লড়াই করেছেন বীর যোদ্ধার মতো ৷ রাজধানী কাবুলের মতোই আফগানিস্তানের অধিকাংশ শহর এবং প্রদেশ যেখানে বিনা বাধায় নিজেদের দখলে এনেছে তালিবরা ৷ সেখানে পঞ্জশির দখল করতে ব্যর্থ তারা ৷ আফগানিস্তানের উপরাষ্ট্রপতি আমরুল্লাহ সালেহও তালিবানদের বিরুদ্ধে লড়াই জারি রাখার আহ্বান জানিয়েছেন ৷ পাশাপাশি জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট গনির অনুপস্থিতিতে তিনিই এখন আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট ৷ তাই তালিবানদের হাতে অন্তত আত্মসমর্পণ নয়, তার চেয়ে মৃত্যু ঢের ভাল বলেই মনে করেন আফগানিস্তানের পঞ্জশির প্রদেশের বাসিন্দারা ৷

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Afghanistan