corona virus btn
corona virus btn
Loading

কালো তালিভুক্ত করেছিল আমেরিকা, একনায়ক কিমের উত্তরসূরি হতে পারেন এই তরুণী

কালো তালিভুক্ত করেছিল আমেরিকা, একনায়ক কিমের উত্তরসূরি হতে পারেন এই তরুণী
দাদা কিমের সঙ্গে বোন ইয়ো জং৷ PHOTO- REUTERS

উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের শারীরিক অসুস্থতার খবর প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁর উত্তরসূরি কে হতে পারেন তা নিয়েও জোর চর্চা শুরু হয়েছে বিশ্বজুড়ে৷

  • Share this:

#পিয়ংইয়াং: উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের শারীরিক অসুস্থতার খবর প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁর উত্তরসূরি কে হতে পারেন তা নিয়েও জোর চর্চা শুরু হয়েছে বিশ্বজুড়ে৷ আর সেই প্রসঙ্গেই উঠে আসছে এক তরুণীর নাম৷ তিনি কিম ইয়ো জং৷ সম্পর্কে যিনি কিমেরই বোন৷ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, উত্তর কোরিয়ার শাসন ব্যবস্থায় কিমের পরই সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা তাঁর বোন ইয়ো জংয়ের৷ এমন কী, কারও কারও দাবি সামনে কিম দেশকে নেতৃত্ব দিলেও তাঁর নেপথ্যে আসল মস্তিষ্ক থাকে এই ইয়ো জংয়েরই৷

একটি অস্ত্রোপচারের পরেই কিম জংয়ের শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত সঙ্কটজনক বলে বিভিন্ন সূত্রে দাবি করা হচ্ছে৷ যদিও এ বিষয়ে সরকারিভাবে উত্তর কোরিয়া কিছু বলেনি৷ সেদেশের সংবাদমাধ্যমও যথারীতি চুপ৷ কিমের অসুস্থতার খবরের সঙ্গে সঙ্গেই তাঁর বিকল্প নিয়েও চর্চা শুরু হয়েছে৷ উত্তর কোরিয়ার রাজনৈতিক উত্থানপতনের বিষয়ে যাঁরা নিয়মিত খবর রাখেন, সেই বিশেষজ্ঞদের দাবি, কিমের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার জন্য সবথেকে বড় দাবিদার তাঁর এই বোন৷ যিনি কিমেরও খুবই আস্থাভাজন৷

গত কয়েকবছরে কিমের এই বোনের ক্ষমতা উত্তরোত্তর বৃদ্ধিই পেয়েছে৷ ২০১৮ সালে দক্ষিণ কোরিয়া শীতকালীন অলিম্পিক্সে কিমের হয়ে উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন ইয়ো জং-ই৷ এর পর ধীরে ধীরে শাসক দল ওয়ার্কার্স পার্টিতেও বিভিন্ন পদ পান তিনি৷ বলা হয়, গোটা বিশ্বের সামনে কিমের যে ভাবমূর্তি তৈরি হয়েছে, তার নেপথ্যেও আসলে তাঁর এই বোনই রয়েছেন৷ যার ফলে নিজের বোনের উপরে চোখ বুজে আস্থা করেন কিম৷

গত মাসেই উত্তর কোরিয়ার সামরিক আগ্রাসনের সমালোচনা ররেছল দক্ষিণ কোরিয়া৷ দেশের হয়ে তার পাল্টা জবাব দেন ইয়ো জং৷ প্রতিবেশী দক্ষিণ কোরিয়াকে 'চিৎকার করা ভীত কুকুর' বলে কটাক্ষ করেন কিমের বোন৷ মার্চ মাসেই কিমের বদলে তিনি জনসমক্ষে এসে আমেরিকার প্রেসিডেন্টি ডোনাল্ড ট্রাম্পের পাঠানো চিঠির প্রশংসা করেন৷ ওই চিঠিতেই দু' দেশের পারপ্সরিক সম্পর্ক ভাল রাখার বিষয়ে আশা প্রকাশ করেন ট্রাম্প৷ পাশাপাশি, করোনা সংক্রমণ রোখার জন্য সাহায্যের প্রস্তাব দেন৷ এই ঘটনাতেও কিমের বোন ইয়ো জংয়ের গুরুত্ব আরও একবার স্পষ্ট হয়েছিল৷

শুধু তাই নয়, কিমের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জোড়া বৈঠকেও সঙ্গী ছিলেন তাঁর বোন ইয়ো৷ আমেরিকার সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার কূটনৈতিক লেনদেনেও গত কয়েকবছরে গুরুত্বপূর্ণ ভূমকা নিয়েছেন ইয়ো জং৷ ২০১৭ সালে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে উত্তর কোরিয়ার বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে ইয়ো জং- কেও কালো তালিকাভুক্ত করেছিল ওয়াশিংটন৷

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞদের মতে, নিজের দাদা কিমের সম্মতি ছাড়া ইয়ো জংয়ে এই উত্থান সম্ভব ছিল না৷ ফলে কিম অসুস্থ হতে তাঁর সেই বোনকে উত্তর কোরিয়ার পরবর্তী শাসক হিসেবে তুলে ধরা হচ্ছে৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: April 22, 2020, 5:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर