Kim Jong Un: আমেরিকাকে প্রকাশ্যে হুমকি কিমের বোনের

Kim Jong Un: আমেরিকাকে প্রকাশ্যে হুমকি কিমের বোনের

কিমের বোনের সরাসরি হুমকি আমেরিকাকে

উত্তর কোরিয়ার স্বৈরশাসক কিম জং উনের বোন। সম্প্রতি ওই দেশের সবচেয়ে শক্তিশালী মহিলা প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছেন আমেরিকাকে

  • Share this:

    #পিয়ংইয়ং: 'শান্তিতে ঘুমাতে চাইলে দুর্গন্ধ তৈরি করবেন না। করলে ফল ভুগতে হবে। দাম দিতে হবে। সেই দাম দেওয়াটা সহজ হবে না আমেরিকার। চিরকাল মনে রাখতে হবে'। বক্তার নাম কিম ইয়ো জং। উত্তর কোরিয়ার স্বৈরশাসক কিম জং উনের বোন। সম্প্রতি ওই দেশের সবচেয়ে শক্তিশালী মহিলা প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছেন আমেরিকাকে। কোরিয়া নিয়ে নীতি নির্ধারণের ব্যাপারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রস্তুতিকে কেন্দ্র করে তিনি এ কথা বলেছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

    রোডং সিনমুন পত্রিকা কিম জং উনের বোনকে উদ্ধৃত করে বলেছে, 'যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রশাসনকে পরামর্শ দিচ্ছি- যুক্তরাষ্ট্র সমুদ্রের ওপার থেকে আমাদের ভূখণ্ডে বারুদের গন্ধ ছড়ানোর চেষ্টা চালায়। নতুন প্রশাসন যদি চার বছর শান্তিতে ঘুমাতে চায়, তাহলে শুরুতেই দুর্গন্ধ সৃষ্টি করা থেকে তাদের বিরত থাকতে হবে'। জাপানের মাটিতে পা রেখেছেন পেন্টাগন প্রধান লয়েড অস্টিন এবং নতুন বিদেশ সচিব অ্যান্টনি ব্লিংকেন। সেখানে দুদিন থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় যাওয়ার কথা দুই মার্কিন কর্তার।

    এমনিতেই জাপান এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকার সামরিক বোঝাপড়া এবং সম্পর্ক নতুন নয়। কয়েকদিনের ভিতরে যৌথ সেনা মহড়া হওয়ার কথা। কিন্তু উত্তর কোরিয়া মনে করছে তাঁদের চাপে রাখতেই এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এমনিতে আর্থিক দিক থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার থেকে পিছিয়ে থাকলেও, সামরিক শক্তিতে পাল্লা দেওয়ার ক্ষমতা রাখে উত্তর কোরিয়া। চিনের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক শাসক কিমের। আধুনিক ফাইটার জেট থেকে শুরু করে ব্যালিস্টিক মিসাইল সবই রয়েছে কিমের ঝুলিতে।

    প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বহুবার চেষ্টা করেও উত্তর কোরিয়াকে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি থেকে বিরত করতে পারেননি। সম্পর্ক ভাল করার জন্য সিঙ্গাপুরে কিমের সঙ্গে বিশেষ বৈঠক করেছিলেন ট্রাম্প। কিমের পর দেশের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার ব্যাপারে অধিকার রয়েছে একমাত্র বোন কিম ইয়ো জং এর।

    মার্কিন প্রশাসন অবশ্য এই হুমকির জবাবে কোনও উত্তর দেয়নি। বাইডেন প্রশাসন ইঙ্গিত দিয়েছে গায়ের জোরে নয়, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনার টেবিলে বসেই শান্তির পথে এগোতে চায় আমেরিকা। পাশাপাশি অন্যায় হুমকি সহ্য করার ব্যাপারে আমেরিকা দুর্বল সেটাও দেখাতে নারাজ বাইডেন। তাই এখন দেখার মৌখিক লড়াইয়েই ব্যাপারটা থেমে থাকে, নাকি নতুন করে টেনশনের পারদ চড়ে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    লেটেস্ট খবর