বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিশ্বের প্রথম মহিলাকে চাঁদে উড়িয়ে নিয়ে যাবে এই ইঞ্জিন, ভিডিও দেখুন

বিশ্বের প্রথম মহিলাকে চাঁদে উড়িয়ে নিয়ে যাবে এই ইঞ্জিন, ভিডিও দেখুন

২০২৪ সালের চাঁদে প্রথমবার মহিলা পাঠানোর লক্ষ্যে জোরকদমে প্রস্তুতি শুরু করেছে NASA।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: ২০২৪ সালের চাঁদে প্রথমবার মহিলা পাঠানোর লক্ষ্যে জোরকদমে প্রস্তুতি শুরু করেছে NASA। তার জন্য মহাকাশ যান, স্পেস লঞ্চ সিস্টেম, ল্যান্ডার তৈরির কাজও শুরু হয়েছে। আর NASA-র সঙ্গে এই চন্দ্রাভিযানে জুটি বেঁধেছে Amazon-এর ফাউন্ডার ও CEO জেফ বেজোসের (Jeff Bezos)-এর সংস্থা ব্লু  অরিজিন (Blue Origin)।  শোনা যাচ্ছে, চাঁদে বিশ্বের প্রথম মহিলাকে উড়িয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে ব্লু অরিজিনের তৈরি রকেটের ইঞ্জিন BE-7। আলাবামার হান্টসভিলেতে (Huntsville) চলা সেই ইঞ্জিনের একটি পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ভিডিও পোস্ট করলেন স্বয়ং জেফ বেজোস।

NASA-র চন্দ্র অভিযান তথা আর্টেমিস মিশনের সঙ্গী হবে এই রকেট। তার জন্য প্রস্তুতি চূড়ান্ত পর্যায়ে। ইতিমধ্যেই রকেটের ইঞ্জিন BE-7-এর পরীক্ষা শুরু হয়েছে। নিজের Instagram-এ সেই ভিডিও শেয়ার করেছেন বেজোস। জানা গিয়েছে, স্পেস ফ্লাইট সেন্টারের চেম্বার থেকে হট ফায়ার টেস্ট হচ্ছে এই ইঞ্জিনের। রকেট উৎক্ষেপণের সময় তাপমাত্রার পরিমাপ ও ইঞ্জিনের কার্যক্ষমতা খতিয়ে দেখতেই এই পরীক্ষা। বেজোস জানিয়েছেন, হাই-পারফরম্যান্স লিকুইড হাইড্রোজেন সম্পন্ন এই লুনার ল্যান্ডিং ইঞ্জিন ১০ হাজার lbf শক্তিতে থ্রাস্ট দিতে পারে। CNN-এ প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই বছর এপ্রিল মাসে NASA-র একটি ঘোষণায় Blue Origin সংস্থাটির নাম উঠে আসে। এ ক্ষেত্রে NASA-র চাঁদে পাড়ি দেওয়ার মিশনে মূলত মুন ল্যান্ডার অর্থাৎ মহাকাশযানের ল্যান্ডার তৈরি করার জন্য সংশ্লিষ্ট সংস্থাটিকে নির্বাচিত করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে আর্টেমিস (Artemis) প্রোগ্রামের অধীনেই এই মুন ল্যান্ডার বা লুনার ল্যান্ডার তৈরি করা হবে। আসলে এই লুনার ল্যান্ডার বা মুন ল্যান্ডার হল একটি স্পেসক্রাফ্ট যারা সাহায্যে চাঁদের পৃষ্ঠতলে কোনও মানুষ বা বস্তুকে অবতরণ করানো হয়।
Sky News-এ প্রকাশিত আর একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, NASA-র পরবর্তী মিশনে মহাকাশযানের ল্যান্ডার তৈরির জন্য ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি সংস্থার নাম উঠে এসেছে। শোনা যাচ্ছে, NASA-র সঙ্গে চুক্তি পাকা করার জন্য বর্তমানে এলন মাস্কের (Elon Musk) SpaceX ও লেইডস মালিকানাধীন ( Leidos) ডাইনেটিকস (Dynetics) নামে দু'টি সংস্থার সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নেমেছে এই Blue Origin। উল্লেখ্য, এই আর্টেমিস (Artemis) প্রোগ্রামের অধীনেই, ২০২৪ সালের মধ্যে একজন পুরুষ এবং একজন মহিলাকে চাঁদে পাঠানোর পরিকল্পনা করছে NASA। এর আগে NASA-এর Apollo প্রোগ্রামের অধীনে ১৯৭২ সালের ৭-১৯ ডিসেম্বরের মধ্যে চাঁদে মহাকাশযান পাঠানো হয়েছিল। প্রসঙ্গত, মহাকাশে প্রথমবার মহিলা পাঠায় রাশিয়া। ১৯৬৩ সালে রাশিয়া থেকে ভ্যালেন্তিনা তেরেস্কোভাকে মহাকাশে (Valentina Tereshkova) পাঠানো হয়েছিল। Vostok 6 মহাকাশযানে চড়ে পাড়ি দেন ভ্যালেন্তিনা।
Published by: Akash Misra
First published: December 8, 2020, 8:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर