• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • চিনের বিরুদ্ধে প্রচণ্ড রেগে জাপান! রেকর্ড সময়ে ধরে সমুদ্রসীমা লঙ্ঘন করেছে চিন বিস্ফোরক অভিযোগ টোকিওর

চিনের বিরুদ্ধে প্রচণ্ড রেগে জাপান! রেকর্ড সময়ে ধরে সমুদ্রসীমা লঙ্ঘন করেছে চিন বিস্ফোরক অভিযোগ টোকিওর

Photo- AFP

Photo- AFP

জাপানের অধীনে থাকা সেনকাকু দ্বীপপুঞ্জের ৪ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে এসেছিল চিনের তরী

  • Share this:

    #টোকিও: চিনা কোস্ট গার্ডরা গত চার ঘণ্টায় দু'বার জাপানের সামুদ্রিক এলাকায় ঢুকেছে ৷ এমন মারাত্মক অভিযোগ উঠল ৷ চিনের এই ধরনের কার্যকলাপের জেরে জাপান কোস্ট গার্ড ভেসেলকে চিনা জাহাজের অনুপ্রবেশের পথ রুদ্ধ করে দাঁড়াতে হয়৷ চিনা জাহাজগুলি জাপানি মৎসজীবীদের নৌকা লক্ষ্য করে এগোচ্ছিল ৷ সোমবার এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে টোকিও -র আধিকারিক ৷

    জাপানের অধীনে থাকা সেনকাকু দ্বীপপুঞ্জের ৪ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে এসেছিল চিনের তরী ৷ এদিকে আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুযায়ী কোনও দেশের এলাকার জলভাগের ১৯.৩ কিলোমিটার এলাকা অবধি অন্য কোনও দেশ ঢুকতে পারে না ৷ আর এই জলসীমা অতিক্রম করেছে চিন৷ এই খবর জানিয়েছে জাপানের কোস্টগার্ডরা৷

    জাপানের চিফ ক্যাবিনেট সেক্রেটারি জানিয়েছেন, জাপান এই নিয়ে একাধিকবার কূটনৈতিক স্তরে প্রতিবাদ জানিয়েছে বেজিংয়ের কাছে৷ সেখানে তাঁদের জলসীমার মধ্যে চিনা জাহাজের অনুপ্রবেশের ইস্যুটি তুলে ধরা হয়েছে ৷
    এ দিকে যে দ্বীপটি টোকিও নিজেদের সীমান্তের অংশ বলে , বেজিংয়ের দাবি সেটা তাদের অংশ ৷ কিন্তু ১৯৭২ থেকে দ্বীপটি জাপান প্রশাসনের দখলে আছে ৷ সীমান্তের ১৯০০ কিলোমিটার বিস্তৃত রকি চেন নিয়ে এই দুই দেশের মধ্যে সংঘাত ১০০ বছরের বেশি সময় ধরে ৷ টোকিও ও বেজিং এই ইস্যু নিয়ে কেউই পিছু হঠতে চায় না ৷  তবে গত এক মাসে পরিস্থিতি আরও বেশি খারাপ হয়েছে ৷ সেনকাকু দ্বীপপুঞ্জ নিজেদের অধিকারভুক্ত বলার পর থেকে বেজিং অত্যন্ত ক্ষুব্ধ ৷
    চিন সরকারের জাহাজ দ্বীপগুলির পাশ দিয়ে ৮৪ দিন ধরে জাহাজ মোতায়েন করে রেখেছে, এমনটা জানিয়েছে জাপানের উপকূলরক্ষীবাহিনী৷ তবে এবার একেবারে জাপানের অংশীভূত জলভাগে চিনের জাহাজ ঢোকায় তারা অত্যন্ত ক্ষুব্ধ ৷ বৃহস্পতিবার  ৩০ ও ৪০ ঘণ্টা ধরে চিনা জাহাজ তাদের জলভাগের মধ্যে ঢুকে ছিল ৷
    সবচেয়ে কাছাকাছি জায়গায় দুই দেশের উপকূলরক্ষীবাহিনীর উপস্থিতি সংঘর্ষের পরিস্থিতি উদ্রেক করতে পারে৷ এর  জেরে সামরিকবাহিনীকেও হস্তক্ষেপ করতে হতে পারে এমনটাই দাবি ওয়াকিবহাল মহলের ৷
    Published by:Debalina Datta
    First published: