Israel-Palestine conflict: সংঘর্ষ ক্রমশ জোরালো হচ্ছে, ৫৭ টি মুসলিম দেশের বৈঠক ডাকল সৌদি আরব

Israel-Palestine conflict -Photo-AFP

ইজরায়েল (Israel) বনাম হামাস (Hamas) লড়াই ক্রমশ যুদ্ধের দিকে যাচ্ছে৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি:  ইজরায়েল (Israel)  বনাম  হামাস (Hamas) লড়াই ক্রমশ যুদ্ধের দিকে যাচ্ছে৷ ইসলামিক উগ্রপন্থী সংগঠন হমাস লড়াই করার জন্য ইজরায়েল গাজা সীমান্তে প্রচুর সেনা একত্রীকরণ করছে৷ পাশাপাশি ৯০০০ সেনা তারা তৈরি করছে৷ গাজায় এখন হামাসের দখল৷ এরমধ্যে মুসলিম দেশগুলির সংগঠনগুলি বৈঠক ডেকেছ৷  ১৬ মে ৫৭ টি দেশের অর্গানাইজেশন অফ ইসলামিক কো অপারেশন এই বৈঠক তৈরি করেছে৷ ওআইসি ট্যুইট করে জানিয়েছে বৈঠক সৌদি আরব এই বৈঠকের উদ্যোক্তা৷

    এর আগে ইজরায়েল উত্তরে গাজায় উগ্রবাদী আক্রমণের প্রচুর বিষয় নষ্ট করে দিয়েছেন৷ পাশাপশি তারা শুক্রবার নিজেদের আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে প্রচুর গোলাবর্ষণ করেছে৷ এরপরে প্রচুর প্যালেস্তানিয় নিজের শিশু ও জিনিস নিয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে৷ ইজরায়েলি হানায় একটি পরিবারের ৬ জন সদস্য বাড়িতেই মারা যান৷ প্যালেস্তানিয় উগ্রপন্থীরা ১৮০০ রকেট হামলা করছে৷ সেনারা ৬০০ -র বেশি অধিক আকাশপথে হামলা চালিয়েছে৷ তাতে অন্তত তিনটি বিল্ডিং সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গেছে৷

    আন্তর্জাতিক স্তরে সংঘর্ষ বিরতির চেষ্টার পরেও ইজরায়েল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধের আশঙ্কা ক্রমশ বাড়ছে৷ ইজরায়েলে চতুর্থ রাতে সাম্প্রদায়িক হিংসা হওয়ার পর লড়াই আরও তীব্রতর আকার নিয়েছে৷ ইহুদি ও আরবিদের মধ্যে লোড শহরে সংঘর্ষ চলছে৷ পুলিশের উপস্থিতি আরও বাড়ানোর নির্দেশের মধ্যেও সংঘর্ষ চলছেই৷ গাজা শহরের বাইরের এলাকায় বিস্ফোরণের কারণে আকাশ ধোঁওয়ায় ভরে গেছে৷

    উত্তরের গাজা স্ট্রিপে রফাত তনানি ও তাঁর গর্ভবতী স্ত্রী ও তাঁর চার বাচ্চা ইজরায়েলর হামলায় মারা যান৷ রফাতের ভাই ফাদি বলেছেন, যখন হামলা হয় তখন রফাত ও তাঁর স্ত্রী ঘুমোতে যাচ্ছিলেন৷ হামলায় বাড়ির মালিক ও তাঁর স্ত্রী-র মৃত্যু হয়৷ সোমবার থেকে এই লড়াই শুরু হয়৷ সেখানে জেরুজালেমকে বাঁচানোর জন্য হামাস আক্রমণ করছে বলে দাবি করেছিল৷ সেই সময় থেকে হামাস দূরপাল্লার রকেট হানা শুরু করে৷ এর উত্তরে ইজরায়েল পাল্টা হানা শুরু করে৷

    সেই সময় থেকে ইজরায়েলে গাজার শতাধিক টার্গেটে হামলা চালাতে শুরু করে৷ গাজা থেকে উগ্রপন্থীরা ইজরায়েলের ওপর প্রায় ২০০০ রকেট হামলা করেছে৷ এরফলে দেশের দক্ষিণ ভাগে জনজীবন বিপর্যস্ত৷ তেল আভিভকে নিশানা বানিয়ে রকেট ছোঁড়া হচ্ছে৷ গাজার স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে হামলায় এখনও অবধি ১১৯ জন মারা গেছেন৷ যার মধ্যে ৩১ টি শিশু ও ১৯ জন মহিলা মারা গেছেন৷ এখনও অবধি ৮৩০ জন আহত হয়েছে৷

    হামাস ও ইসলামিক জেহাদি উগ্রপন্থী সংগঠনগুলি ২০ জনের মৃত্যুর খবর স্বীকার করে নিয়েছে৷ এদিকে ইজরায়েল জানিয়েছে মৃতের সংখ্যা এরচেয়ে অনেক বেশি৷ ইজরায়েলে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে যেখানে ৬ বছরের এক বালক ও এক সৈনিকও রয়েছে৷ গাজা সিটি-র বাইরের এলাকায় উত্তর ও পূর্ব সীমায় প্যালেস্তানিয় হানা ও বোমা বর্ষণ হচ্ছে৷ ফলে বহু মানুষ এলাকা ছেড়ে পালাচ্ছে৷ শহর থেকে লোক ট্রাকে করে , পায়ে হেঁটে ,গবাদি পশুদের পিঠে বসে ইউএন পরিচালিত স্কুলে পৌঁছচ্ছে৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: