পৃথিবীর বাইরে এই গ্রহেই তাহলে বসতি গড়বে মানুষ!‌ বিজ্ঞানীরা আশাবাদী

এর তলের তাপমাত্রা পৃথিবীর তাপমাত্রার সমান বলেই মনে করেন বিজ্ঞানীরা। আর সেই কারণেই তাঁদের আশা, হতে পারে Proxima b–তে জল রয়েছে।

এর তলের তাপমাত্রা পৃথিবীর তাপমাত্রার সমান বলেই মনে করেন বিজ্ঞানীরা। আর সেই কারণেই তাঁদের আশা, হতে পারে Proxima b–তে জল রয়েছে।

  • Share this:

    #‌নয়াদিল্লি:‌ বিজ্ঞানীদের আশা জোগাচ্ছে Proxima b। হতে পারে বহুদূরে অবস্থিত এই গ্রহই মানুষের পরবর্তী বাসস্থান। সাম্প্রতিক গবেষণায় পৃথিবীর বাইরে মানু্ষের বাসযোগ্য অন্য গ্রহ হিসাবে Proxima b–কেই চিহ্নিত করতে চাইছেন মহাকাশ গবেষকরা। সূর্য থেকে এটির দূরত্ব ৪.‌২ আলোকবর্ষ । আর আমাদের গ্রহের তুলনায় এটি আকারে প্রায় ১.‌৭ গুন বড়‌। Proxima Centauri–এর অংশ এই গ্রহটি তাঁর নিজের নক্ষত্রকে ১১ দিনে প্রদক্ষিণ করে। ২০১৬ সালে এই গ্রহটি চিলির HARPS (High Accuracy Radial Velocity Planet Searcher)–এ একটি স্পেক্টোগ্রাফের ভিত্তিতে আবিষ্কার করেন বিজ্ঞানীরা। তার পর থেকে এই গ্রহের তথ্যানুসন্ধান চলছেই। ‌আর বিজ্ঞানীরা বলছেন, আশার কারণ দেখছেন তাঁরা।

    বিজ্ঞানীরা বলেছেন, পৃথিবী সূর্যের যত কাছে, Proxima b গ্রহটি তাঁর নক্ষত্রের তার থেকে কুড়ি গুন কাছে আছে। তবে এর তলের তাপমাত্রা পৃথিবীর তাপমাত্রার সমান বলেই মনে করেন বিজ্ঞানীরা। আর সেই কারণেই তাঁদের আশা, হতে পারে Proxima b–তে জল রয়েছে। তার মানে থাকতে পারে প্রাণও।

    তবে আশঙ্কার কথাও রয়েছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, Proxima b গ্রহটি যে নক্ষত্রকে কেন্দ্র করে প্রদক্ষিণ করে, সেটি থেকে বিপুল পরিমাণ তেজস্ক্রিয় রশ্মি গ্রহের দিকে ধেয়ে আসে। একথা ঠিক, সূর্য থেকেও একাধিক রশ্মি পৃথিবীর দিকে আসে, কিন্তু সেখানে এই রশ্মির পরিমাণ পৃথিবীর তুলনায় প্রায় ৪০০ গুণ বেশি। যার ফলে প্রাণ কী ভাবে সেখানে রক্ষা পাবে, সেটাও একটা প্রশ্ন।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: