corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা মুক্ত শহর কবে ফিরবে ! আতঙ্কে কাটছে দিন ! সিডনি থেকে লিখছেন ইন্দ্রনীল হালদার

করোনা মুক্ত শহর কবে ফিরবে ! আতঙ্কে কাটছে দিন ! সিডনি থেকে লিখছেন ইন্দ্রনীল হালদার

আমার বাড়ির পাশেই করোনা আক্রান্ত হয়ে সাত জনের মৃত্যু হয়েছে।

  • Share this:

#সিডনি: প্রত্যেকটা দিন শুরু হচ্ছে আতঙ্ক নিয়ে। আমি সিডনিতে থাকি। হারবার ব্রিজের উত্তর দিকে। এখানে জীবন থমকে দাঁড়িয়ে রয়েছে। আমার বাড়ির পাশেই করোনা আক্রান্ত হয়ে সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। এই ভয়ানক পরিস্থিতিতে প্রতি মুহূর্তে মৃত্যু ভয় কাজ করছে। পরিবারের মানুষদের জন্য সব সময় চিন্তা লেগেই আছে। সারাক্ষণ মনে হচ্ছে এই বুঝি কিছু হল ! তবে আমাদের এখানে সামাজিক দূরত্ব খুব নিয়ম করে মানছে সবাই। এটাই যা একটা আশার কথা। এতে ইনফেকশন বা ভাইরাস কিছুটা হলেও কম ছড়াচ্ছে।

আমি এখানে একটি মেডিক্যাল কোম্পানিতে কাজ করি। আমার কোম্পানি থেকে ভেন্টিলেটর তৈরি করা হয়। কিন্তু করোনার জন্য কেউ অফিস করতে পারছে না। সব কিছু বন্ধ। বাড়ি থেকেই চলছে কিছু কাজ। আমি বাড়ি থেকেই কাজ করছি। কিন্তু এভাবে কতদিন? আমাদের এখানে একটা বড় শপিং মল রয়েছে যা এখন একদম ফাঁকা। রাস্তা ঘাট ফাঁকা। মাঠে ছেলেরা খেলছে না। কেউ স্কুলে যাচ্ছে না। আনন্দের শহর যেন এক মুহূর্তে থমকে গেছে। করোনা ভাইরাস ছড়ানো এখন কিছুটা হলেও আয়ত্বে। কিন্তু উইন্টার আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে। এই সময়টাতেও অনেক রকম অসুখ করে মানুষের। তাই আগে থেকেই অনেকে জ্বরের টিকা নিয়ে রেখেছে। এখানকার লোকাল ডাক্তাররা টেলি ফোনেই সকলের কথা শুনছেন। চিকিৎসা চালাচ্ছেন। যতটা সম্ভব হাসপাতাল এড়িয়ে চলা হচ্ছে। ফোনে বা অনলাইনেই বাচ্চাদের পড়াশুনাও চলছে।

তবে গত ১৫ বছরে আমি পেট্রোলের দাম এত কমতে দেখিনি কখনও। রেকর্ড দামে কমেছে পেট্রোলের। এখানকার পুলিশ খুব ভাল কাজ করছে। সব সময় সোশ্যাল দূরত্ব মানা হচ্ছে কিনা তার ওপর নজর রাখছে। আমাদের এখানে অর্থনীতি পুরোপুরি বন্ধ না হলেও কিছু জিনিস একেবারেই বন্ধ। যেমন বাইরের থেকে কোনও প্লেন আসছে না বা যাচ্ছে না। কিন্তু তারপরেও মানুষ গৃহবন্দি। সব কিছুই প্রায় বন্ধ। এর একটা বড় প্রভাব অর্থনীতিতে পড়তে চলেছে। যা এখন সত্যিই চিন্তার। অস্ট্রেলিয়ান আর্মি নিজেরাই মাস্ক বানাচ্ছে। মানুষকে দিচ্ছে। বাইরে থেকে যারা পড়তে এসেছে এখানে তাদের দেখভাল ও করা হচ্ছে সরকার থেকে। যারা ঘুরতে এসে এখানে আটকে পড়েছেন তাদেরকেও এখানেই রাখা হয়েছে। সরকার তাদেরও খেয়াল রাখছেন। তবে সব কিছু ঠিক থাকলেও ভয় কাটছে না। কবে যাবে করোনা জানা নেই ! সারাক্ষণ একটা আতঙ্ক কাজ করছে।

First published: April 23, 2020, 12:58 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर