বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ব্রিটেনে কোভিড ভ্যাকসিন নিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত হরি শুক্লা, বললেন, ‘ইটস মাই ডিউটি’

ব্রিটেনে কোভিড ভ্যাকসিন নিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত হরি শুক্লা, বললেন, ‘ইটস মাই ডিউটি’

ব্রিটেনে মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে কোভিড-১৯ এর টিকাকরণ। সে দেশে যাঁরা প্রথম কোভিড ভ্যাকসিন নিচ্ছেন, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত।

  • Share this:

#লন্ডন: ব্রিটেনে মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে কোভিড-১৯ এর টিকাকরণ। সে দেশে যাঁরা প্রথম কোভিড ভ্যাকসিন নিচ্ছেন, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত। সাতাশি বছর বয়সি এই ভারতীয় থাকেন ইংলন্ডের নর্থ-ইস্ট রিজিয়নে। তিনি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নেবেন নিউকাসল-এর একটি হাসপাতাল থেকে।

৮৭ বছরের এই মানুষটি, হরি শুক্লা, থাকেন ব্রিটেনের উত্তর-পূর্বে টাইন অ্যান্ড ওয়্যার নামের একটি স্টেটে। তিনি বলেছেন, দুই ডোজের প্রথম ডোজটি এখন নেওয়া তাঁর কর্তব্য বলে তিনি মনে করেন। ভ্যাকসিনের এই প্রথম দিনটিকে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বোরিস জনসন “ভি-ডে” অর্থাৎ ভ্যাকসিন দিবস বলে অভিহত করে ভূয়সী প্রশংসা পেয়েছেন।

শুক্লা বলেছে, “আমি খুবই খুশি যে অবশেষে আমরা অতিমারী-র শেষপ্রান্তে এসে পৌঁছেছি। আমার তরফ থেকে এই মুহূর্তে যা করার তা আমি করছি, এবং আমি মনে করি অতিমারীর হাত থেকে গোটা মানবসমাজকে বাঁচাতে ভ্যাকসিন নেওয়াই এখন করনীয়।” তিনি আরও বলেন, “ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের সংযোগে এসেছি, তাই আমি জানি যে কি কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে তাঁরা গিয়েছেন। ওঁদের আমি শ্রদ্ধা করি। দেশবাসীকে সুরক্ষিত রাখার জন্য ওঁরা যা করেছেন, সে জন্য আমি কৃতজ্ঞ।”

ব্রিটেনের জয়েন্ট কমিটি থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে দেশবাসীকে কোভিড ভ্যাকসিন দেওয়া হবে বিভিন্ন পর্যায়ে। এই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, টিকাকরণের প্রথম পর্যায়ে রয়েছেন এমন দেশবাসী, যাঁদের জন্য এই ভাইরাস সংক্রমণ সব থেকে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। এর উপর ভিত্তি করেই ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের তরফ থেকে হরি শুক্লাকে জানানো হয় ভ্যাকসিন নেওয়ার কথা।

প্রধানমন্ত্রী জনসনের ভাষায়, “করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে, আমাদের দেশের জন্য এটি একটি বিশেষ দিন। গোটা দেশের মানুষকে মঙ্গলবার প্রথম ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। বিজ্ঞানীরা যাঁরা এই ভ্যাকসিন তৈরি করেছেন, কিছু মানুষ যাঁরা ট্রায়ালে অংশগ্রহণ করেছেন এবং ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের সদস্যরা যাঁরা অক্লান্ত প্ররিশ্রম করছেন টিকাকরণ সফল করতে, তাঁদের প্রত্যেককে নিয়ে আমি গর্বিত।”

তিনি আরও বলেছেন, গোটা দেশে টিকাকরণ প্রক্রিয়া শেষ হতে কিছুটা সময় লাগবে। তিনি দেশবাসীর কাছে আর্জি জানিয়েছেন, ততদিন যেন সকলে একটু ধৈর্য ধরে থাকেন এবং করোনা থেকে বাঁচতে নির্দিষ্ট নিয়মবিধি মেনে চলেন।

Published by: Akash Misra
First published: December 8, 2020, 4:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर