Viral: নাতির প্রেমিকার সঙ্গে দাদুর সঙ্গম! পুত্র সন্তান আসলে সম্পর্কে মামা, অনেক পরে জানলেন ব্যক্তি

ভাইরাল ভিডিও

বহু বছর পর, যখন তাঁর সন্তানের DNA পরীক্ষা করান, তখন তিনি এই ব্যাপারে অবগত হন৷

  • Share this:

    যে বিশ্বাসের উপর দাঁড়িয়ে থাকে সম্পর্ক, তা আজকের দিনে যেন হারিয়ে যাচ্ছে৷ কে কখন প্রতারণা করে, কেউ বলতে পারে না৷ এমনই এক সম্পর্কে চোট পাওয়ার কথা এক ব্যক্তি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেছে৷ TikTok-এ তার অ্যাকাউন্ট রয়েছে @stacks1400 নামে৷ এবং সেখানে নিজের সম্পর্ক নিয়ে তার দাদুর প্রতারণার কথা তুলে ধরেছেন তিনি৷ বহু বছর পর, যখন তাঁর সন্তানের DNA পরীক্ষা করান, তখন তিনি এই ব্যাপারে অবগত হন৷ তিনি বুঝতে পারেন যে তাঁর বান্ধবীর সঙ্গে তার দাদুর সম্পর্ক ছিল, কারণ DNA সেই তথ্যই তুলে ধরছে৷

    সম্পর্কের এই আজব জটিলতায় জড়িয়ে পড়েছেন এক ব্যক্তির জীবন। তার সঙ্গে হওয়ায় এই প্রতারণার কথা তিনি সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন। এই ভিডিওতে তাকে কাঁদতেও দেখা গিয়েছে৷ তিনি বলল যে যাকে তিনি নিজের ছেলে হিসেবে বড় করছেন, সে আদতে তাঁর মামা হবে৷ কারণ দাদুর সন্তান তো মামাই হয়৷ যে সময় তিনি বান্ধবীর সঙ্গে প্রেম করতেন, সেই সময় যে একই সঙ্গে তার বান্ধবী দাদুরও প্রেমিকা ছিল, তা তিনি জানতেন না৷ এবং প্রেমিকার গর্ভে যে তার নয়, দাদুর সন্তান, সেই ধারণাও তার ছিল না৷ তিনি সরল মনে প্রেমিকার সন্তানকে নিজের সন্তান হিসেবে মেনে নিয়েছিলেন৷ কারণ তিনি কখনও স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারেননি যে বয়স্ক দাদু তার গার্লফ্রেন্ডের সঙ্গে যৌনতায় মাততে পারেন!

    সোশ্যাল মিডিয়ায় কাঁদতে কাঁদতে নিজের দুর্ভাগ্যের কথা তিনি সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন৷ এর পরেই তার এই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। বহু মানুষ তার এই ভিডিও দেখে, ওই ব্যক্তিকে সান্ত্বনা দিয়েছেন৷ এক ব্যক্তি লিখেছেন যে সাহস হারাবেন না। অন্য এক ব্যক্তি লিখেছেন যে, তার বান্ধবীই তার যোগ্য নন৷ অনেকেই এভাবে কাঁদতে থাকা প্রেমিককে সাহস জুগিয়েছেন৷ ওই ভাইরাল ভিডিওতেই তিনি বলেন যে, সত্যি জানার পর এখন থেকে তিনি আর সন্তানকে, সন্তানের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখতে পারবেন না৷ যেকে তিনি নিজের ছেলে বলে বিশ্বাস করেছিলেন তিনি আসলে তার মামা!

    তবে এর পরে ওই ব্যক্তি আরও একটি ভিডিও করেন যেখানে সেই ছেলের জন্য তিনি বিশেষ বার্তা দেন৷ তিনি বলেন যে, প্রেমিকার প্রতারণার খেসারত দিতে হবে না সেই ছোট ছেলেকে৷ তার সঙ্গে তিনি কখনওই খারাপ ব্যবহার করবেন না৷ কারণ এতে সেই ছেলেটির কোনও দোষ নেই৷ তিনি চেষ্টা করবেন একইভাবে সেই ছেলেটিকে ভালবাসতে৷ যারা সোশ্যাল মিডিয়ায় তাকে সমর্থন করেছেন, তাদের সকলকে তিনি ধন্যবাদ জানান৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: