corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিরল দৃশ্য, ফ্লয়েড খুনে শোকার্ত পুলিশ! চোখ ভিজল মার্কিন বিক্ষোভকারীদেরও

বিরল দৃশ্য, ফ্লয়েড খুনে শোকার্ত পুলিশ! চোখ ভিজল মার্কিন বিক্ষোভকারীদেরও
এমনই দৃশ্য দেখা গেল মিয়ামিতে।

জর্জ ফ্লয়েডের ময়নাতদন্তের রিপোর্টে পরিষ্কার, খুনই করা হয়েছে ফ্লয়েডকে। পুলিশ কর্মী ডেরেক শওভিন হাঁটু দিয়ে চেপে শ্বাসরোধ করার ফলে জর্জ ফ্লয়েড হৃদরোগে আক্রান্ত হন।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: সামনে এসেছিল শুধুমাত্র একটি দৃশ্য। মিলিয়াপলিসে জর্জ ফ্লয়েড নামক এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবকককে হাঁটু দিয়ে গলায় চাপ দিচ্ছেন এক পুলিশকর্মী। তার জেরেই মৃত্যু হয় ফ্লয়েডের। আগুন গতিতে এই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্বে। রাতারাতি বদলে যায় আমেরিকার ছবি। পথে নেমে হিংসাত্মক আন্দোলন শুরু করে মার্কিন নাগরিকরা। সেই আন্দোলন দমনে পুলিশ কড়া মনোভাব নিলেও মানবিক মুখও ধরা পড়ে যাচ্ছে। বিরাট অন্যায় হয়েছে, স্বীকার করে ফেলছেন বহু অফিসারই।

সোমবার বিক্ষুব্ধ জনতা মিয়ামির রাস্তায় জমায়েত করেছিল। অন্য দিনগুলিতে পুলিশ বারবার বিক্ষুব্ধ জনতার উপর চড়াও হয়েছে। কিন্ত এদিন দেখা যায় গোটা বাহিনী ফ্লয়েডের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী হয়ে হাঁটু মুড়ে বসে আছে। রনসজ্জায় সজ্জিত পুলিশের এই ক্ষমাপ্রার্থনার ভঙ্গি চোখ ভিজিয়ে দেও বহু বিক্ষোভকারীর।

বিরল চিত্র ধরা পড়ে ডেনভার শহরেরও দেখা যায়, অস্ত্র ছেড়ে বিক্ষুব্ধদের সঙ্গেই হাঁটছেন ডেনভারের পুলিশ প্রধান পল পাজেন। খাস নিউইয়র্ক শহরেও বিক্ষুব্ধদের সঙ্গে হাত মেলাতে দেখা যায় পুলিশকে।

শনিবার ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন বিক্ষোভকারীদের গায়ে হিংস্র কুকুর লেলিয়ে দেবেন। কিন্তু বিক্ষুব্ধরা কার্ফু ভেঙে হোয়াইট হাউজ পৌঁছে গেলে ট্রাম্পকেই আশ্রয় নিতে হয় বাঙ্কারে। পাশাপাশি জ্ব‌লতে শুরু করে মায়ামি, কানসাস সিটি, নিউইয়র্ক, হিউস্টন‌। পুলিশ বিক্ষোভ দমনে কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে, বিক্ষুব্ধদের উপর দিয়েই চলে গিয়েছে ঘোড়সওয়ার পুলিশ। ব্যারিকেড ভেঙে পুলিশের গাড়িও চালানো হয়েছে জনতার উপর দিয়েই। সেই পুলিশই এবার মানবিকতার নজির গড়‌ছে।

প্রসঙ্গত জর্জ ফ্লয়েডের ময়নাতদন্তের রিপোর্টে পরিষ্কার, খুনই করা হয়েছে ফ্লয়েডকে। পুলিশ কর্মী ডেরেক শওভিন হাঁটু দিয়ে চেপে শ্বাসরোধ করার ফলে জর্জ ফ্লয়েড হৃদরোগে আক্রান্ত হন। রিপোর্ট বলছে গলায় চাপ পড়ায় ৪৪ বছর বয়সি ফ্লয়েডের কার্ডিওপালমোনারি অ্যারেস্ট হয়েছিল।

Published by: Arka Deb
First published: June 2, 2020, 3:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर