• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • GENEVA SUMMIT BETWEEN US PRESIDENT JOE BIDEN AND HIS RUSSIAN COUNTERPART VLADIMIR PUTIN MAKES SMALL GAINS RRC

মুখোমুখি বৈঠকে খুব একটা আশার আলো দেখছেন না বাইডেন - পুতিন

বাইডেন - পুতিন সাক্ষাতে বরফ গলার ইঙ্গিত নামমাত্র

আমেরিকা এবং রাশিয়ার সম্পর্ক স্বাভাবিক হয়নি। এই পরিস্থিতিতে ‘ইতিবাচক’ মানসিকতা নিয়ে বৈঠকে বসলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন

  • Share this:

    #জেনিভা: বিশ্বের দুই শক্তিধর দেশের দুই রাষ্ট্রপ্রধান। ডোনাল্ড ট্রাম্প জমানা শেষে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট বাইডেন দেশকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে চান। করোনা কাটিয়ে উঠে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হওয়ার চেষ্টা করছে আমেরিকা। অন্যদিকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, যিনি এক কথায় অলিখিত সম্রাটও বটে ! কেজিবি'র প্রধান থেকে সফল রাষ্ট্রনেতা, পুতিনের সাফল্য বিশ্বের বাকি দেশের রাষ্ট্রনেতাদের থেকে অনেক বেশি। ঠান্ডা যুদ্ধের ইতি হয়েছে আগেই। গ্লাসনস্ত ও পেরেস্ত্রৈকার ঢেউ আছড়ে পড়েছে কমিউনিস্ট রাশিয়ায়।

    এরপর দু’দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা বিভিন্ন সময়ে সম্পর্কের উন্নতিতে এগিয়ে গিয়েছেন। তবু আমেরিকা এবং রাশিয়ার সম্পর্ক স্বাভাবিক হয়নি। এই পরিস্থিতিতে ‘ইতিবাচক’ মানসিকতা নিয়ে বৈঠকে বসলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সুইজারল্যান্ডের সৈকত শহর জেনিভাতে তাঁরা মুখোমুখি হলেন। এদিন অপেক্ষারত সাংবাদিকদের সামনে বাইডেন এবং পুতিনকে করমর্দন করতেও দেখা যায়। এরপর তাঁরা ভিলা লে গ্রাঞ্জ পার্কের প্রাসাদোপম হোটেলে প্রবেশ করেন। দীর্ঘ চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা তাঁদের মধ্যে বৈঠক চলে।

    এই বৈঠককে বাইডেন ‘দুই শক্তিধর দেশে’র আলোচনা আখ্যা দিয়ে বলেছেন, ‘মুখোমুখি বসা সবসময়ই ভালো’। আর পুতিনের আশা, এই আলোচনা ‘ফলপ্রসূ’ হবে। ট্রাম্প জমানায় আমেরিকার আক্রমণের অভিমুখ অনেকটাই চিনের দিকে ঘুরে গিয়েছিল। বাইডেন ক্ষমতায় এসে আবার রাশিয়াকেই নিশানা করতে শুরু করেছেন। আমেরিকার বিরুদ্ধে হ্যাকিং এবং চরবৃত্তির অভিযোগে গত এপ্রিলে কয়েকজন রুশ কূটনীতিককে বাইডেন দেশ থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন।

    এর উত্তরে পুতিন গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে হামলার প্রসঙ্গ তুলে বলেন, এই হামলার পরে গণতন্ত্র নিয়ে অন্য দেশকে আমেরিকার জ্ঞান দেওয়া শোভা পায় না। বাইডেন প্রেসিডেন্ট হিসেবে চান আমেরিকার সঙ্গে বিশ্বের বাকি শক্তিধর রাষ্ট্রদের সুসম্পর্ক। লড়াই, ঝগড়ার পথে বিশ্বাস করেন না তিনি। তবে করোনা নিয়ে চিনের বিরুদ্ধে পূর্বসূরী ট্রাম্পের মত মনোভাব পোষণ করেন বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। রাশিয়ার সঙ্গে আমার চিনের সু-সম্পর্ক। তাই জল কতদূর গড়ায় সেদিকে দেখতে হবে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: